ঢাকা ০৪:৪৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিএসএফের নির্যাতনে ৩ দিন পর আহত যুবকের মৃত্যু

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০১:৩১:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ৯৯ বার পড়া হয়েছে

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের নির্যাতনে আহত সুমন মিয়া (২৫) নামে এক যুবক তিনদিন পর রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

এর আগে, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাতে চন্দ্রপুর বুড়িরহাট বিওপির ৯১৩ নম্বর পীলার এলাকায় বিএসএফের নির্যাতনে আহত হন। নিহত সুমন মিয়া কালীগঞ্জ উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের উত্তর বালাপাড়া এলাকার আলাউদ্দিনের ছেলে।

বিজিবি ও পুলিশ সূত্রে জানা যায় , গত ২৫ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাতে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার ১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়ন বুড়িরহাট বিওপি সীমান্ত পিলার ৯১৩ নং মেইন পিলার সংলগ্ন এলাকায় ০৩/০৪ জন সহ অবৈধভাবে ভারত হতে বাংলাদেশে ফেনসিডিল নিয়ে আসার সময় ভারতীয় অংশের ৭৫ বিএসএফ ব্যাটালিয়ন ওয়েস্ট চামটা ক্যাম্পের টহলরত বিএসএফের তাড়া খেয়ে সবাই পালিয়ে আসতে পারলেও সুমন মিয়া তাদের কাছে আটক হন। এসময় তাকে বিএসএফের নির্যাতন করে ফেলে যায়। পরে তার সহযোগীরা গুরুতর আহতাবস্থায় সুমনকে গোপনে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয়ে আজ ভোরে তার মৃত্যু হয়। মরদেহ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে একটি রিপোর্ট আমার কাছে এসেছে। তদন্তের জন্য ঘটনাস্থলে এসেছি।

তিনি আরও বলেন, সীমান্তে গেলে বিএসএফ তার মাথা ও বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করে এতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। কালীগঞ্জ থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বিএসএফের নির্যাতনে ৩ দিন পর আহত যুবকের মৃত্যু

আপডেট সময় : ০১:৩১:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের নির্যাতনে আহত সুমন মিয়া (২৫) নামে এক যুবক তিনদিন পর রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

এর আগে, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাতে চন্দ্রপুর বুড়িরহাট বিওপির ৯১৩ নম্বর পীলার এলাকায় বিএসএফের নির্যাতনে আহত হন। নিহত সুমন মিয়া কালীগঞ্জ উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের উত্তর বালাপাড়া এলাকার আলাউদ্দিনের ছেলে।

বিজিবি ও পুলিশ সূত্রে জানা যায় , গত ২৫ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাতে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার ১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়ন বুড়িরহাট বিওপি সীমান্ত পিলার ৯১৩ নং মেইন পিলার সংলগ্ন এলাকায় ০৩/০৪ জন সহ অবৈধভাবে ভারত হতে বাংলাদেশে ফেনসিডিল নিয়ে আসার সময় ভারতীয় অংশের ৭৫ বিএসএফ ব্যাটালিয়ন ওয়েস্ট চামটা ক্যাম্পের টহলরত বিএসএফের তাড়া খেয়ে সবাই পালিয়ে আসতে পারলেও সুমন মিয়া তাদের কাছে আটক হন। এসময় তাকে বিএসএফের নির্যাতন করে ফেলে যায়। পরে তার সহযোগীরা গুরুতর আহতাবস্থায় সুমনকে গোপনে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয়ে আজ ভোরে তার মৃত্যু হয়। মরদেহ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে একটি রিপোর্ট আমার কাছে এসেছে। তদন্তের জন্য ঘটনাস্থলে এসেছি।

তিনি আরও বলেন, সীমান্তে গেলে বিএসএফ তার মাথা ও বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করে এতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। কালীগঞ্জ থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।