ঢাকা ০৫:১৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রীর উপহার ট্যাব বিতরণে অনিয়ম, দুই প্রধানকে শোকজ

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৫:২১:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুলাই ২০২৩ ১০৫ বার পড়া হয়েছে

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ট্যাব বিতরণে অনিয়ম করায় দুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার স্বাক্ষরিত এক পত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

উপজেলার দিলপাশার ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আফছার আলী রানা ও মাগুড়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার কে এম জাকির হোসেনকে এই কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

নোটিশ সূত্রে জানা যায়, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে আদম শুমরীতে ব্যবহৃত ট্যাব গুলি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদরাসার মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণের কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় এই উপজেলায় ২য় পর্য়ায়ে মাদ্রাসা ক্ষেত্রে ১ম হতে ৩য় এবং বিদ্যালয় ক্ষেত্রে ১ম হতে ৫ম মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণের জন্য তালিকা করতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের প্রধানেরা প্রদত্ত মেধাবীদের তালিকা বিধি মোতাবেক জমা দেন। কিন্তু দিলপাশার ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফসার আলী রানা ও মাগুড়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার কে এম জাকির হোসেন মেধাবীদের নামের তালিকা না করে ৯ম ও ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের অন্তর্ভুক্ত করে ট্যাব বিতরণ করেন।

পরে বঞ্চিত মোধাবীদের অভিভাবক উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নাহিদ হাসান খান এর নিকট লিখিত অভিযোগ করেন। বিষয়টি তদন্ত শেষে মেধাবিদের তালিকায় অনিয়মের অভিযোগের সত্যতা পান এবং ওই প্রতিষ্ঠানে বরাদ্দকৃত বিতরণকৃত ট্যাব গুলি ফিরিয়ে নিয়ে প্রকৃত মেধাবিদের যাচাই বাছাই শেষে মেধাবিদের মাঝে ট্যাব গুলি বিতরণ করা হয়।

পাশাপাশি সরকারি বিধি পরিপন্থি কাজ করায় দিলপাশার ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফসার আলী রানা ও মাগুড়া দাখিল মাদ্রাসার সুপারকে এম জাকির হোসেনকে তিন কর্মদিবসের মধ্যে অনিয়ম করার কারণ ব্যাখ্যা করতে বলা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জানান, ওই দুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার পরামর্শক্রমে সরকারি সিধান্তের পরিপন্থি কাজ করার কারণে তাদেরকে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

প্রধানমন্ত্রীর উপহার ট্যাব বিতরণে অনিয়ম, দুই প্রধানকে শোকজ

আপডেট সময় : ০৫:২১:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুলাই ২০২৩

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ট্যাব বিতরণে অনিয়ম করায় দুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার স্বাক্ষরিত এক পত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

উপজেলার দিলপাশার ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আফছার আলী রানা ও মাগুড়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার কে এম জাকির হোসেনকে এই কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

নোটিশ সূত্রে জানা যায়, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে আদম শুমরীতে ব্যবহৃত ট্যাব গুলি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদরাসার মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণের কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় এই উপজেলায় ২য় পর্য়ায়ে মাদ্রাসা ক্ষেত্রে ১ম হতে ৩য় এবং বিদ্যালয় ক্ষেত্রে ১ম হতে ৫ম মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণের জন্য তালিকা করতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের প্রধানেরা প্রদত্ত মেধাবীদের তালিকা বিধি মোতাবেক জমা দেন। কিন্তু দিলপাশার ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফসার আলী রানা ও মাগুড়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার কে এম জাকির হোসেন মেধাবীদের নামের তালিকা না করে ৯ম ও ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের অন্তর্ভুক্ত করে ট্যাব বিতরণ করেন।

পরে বঞ্চিত মোধাবীদের অভিভাবক উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নাহিদ হাসান খান এর নিকট লিখিত অভিযোগ করেন। বিষয়টি তদন্ত শেষে মেধাবিদের তালিকায় অনিয়মের অভিযোগের সত্যতা পান এবং ওই প্রতিষ্ঠানে বরাদ্দকৃত বিতরণকৃত ট্যাব গুলি ফিরিয়ে নিয়ে প্রকৃত মেধাবিদের যাচাই বাছাই শেষে মেধাবিদের মাঝে ট্যাব গুলি বিতরণ করা হয়।

পাশাপাশি সরকারি বিধি পরিপন্থি কাজ করায় দিলপাশার ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফসার আলী রানা ও মাগুড়া দাখিল মাদ্রাসার সুপারকে এম জাকির হোসেনকে তিন কর্মদিবসের মধ্যে অনিয়ম করার কারণ ব্যাখ্যা করতে বলা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জানান, ওই দুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার পরামর্শক্রমে সরকারি সিধান্তের পরিপন্থি কাজ করার কারণে তাদেরকে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।