ঢাকা ০৫:০৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে এনজিওর বিরুদ্ধে মানববন্ধন

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিবেদকঃ
  • আপডেট সময় : ০৪:০৮:৪৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২ এপ্রিল ২০২৩ ৮১ বার পড়া হয়েছে

স্থানীয় মধুমতি এনজিওতে ৩৫ হাজার গ্রাহকের বিনিয়োগকৃত ১০৫ কোটি টাকা ফেরতের দাবিতে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
আজ রবিবার (২ এপ্রিল) দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে ভুক্তভোগীদের ব্যানারে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। পরে প্রতিকার চেয়ে গ্রাহকরা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন।
ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ভুক্তভোগী রোকেয়া বেগম, দেলশাদ আলী, প্রতিবন্ধী পলাশ ঘোষ, সাজ্জাদ, রহিমসহ অনেকে।
ভুক্তভোগীরা বলেন, জেলায় ৪৬টি শাখার মাধ্যমে প্রায় ৩৫ হাজার গ্রাহক তৈরী করে এক লাখ টাকায় এক হাজার দুই’শ টাকা মুনাফার প্রলোভন দিয়ে প্রায় ১০৫ কোটি টাকা সংগ্রহ করে আত্নসাত করেন মধুমতি এনজিওর মালিক মাসুদ রানা। এতে অনেকেই সহায়-সম্বল হারিয়ে পথে বসেছে।
প্রথম প্রথম তাদের লাভ দেয়া হলেও গত বছরের অক্টোবর মাস থেকে কোন লাভ দেয়া হয়নি এমনকি তাদের আমানত ফেরত চাইলেও দিব দিচ্ছি করে আর ফেরত দেয়নি। এরই মধ্যে গত ১৭ নভেম্বর এনজিওটির মালিক মাসুদ রানা নিজেকে বাচাঁর জন্য অস্ত্র নিয়ে পুলিশের হাতে আটক হন। দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রতিকার চান ভুক্তভোগীরা।
এদিকে জেলা প্রশাসক একেএম গালিভ খান জানান, ভুক্তভোগীরা স্মারকলিপি দিয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

চাঁপাইনবাবগঞ্জে এনজিওর বিরুদ্ধে মানববন্ধন

আপডেট সময় : ০৪:০৮:৪৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২ এপ্রিল ২০২৩

স্থানীয় মধুমতি এনজিওতে ৩৫ হাজার গ্রাহকের বিনিয়োগকৃত ১০৫ কোটি টাকা ফেরতের দাবিতে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
আজ রবিবার (২ এপ্রিল) দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে ভুক্তভোগীদের ব্যানারে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। পরে প্রতিকার চেয়ে গ্রাহকরা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন।
ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ভুক্তভোগী রোকেয়া বেগম, দেলশাদ আলী, প্রতিবন্ধী পলাশ ঘোষ, সাজ্জাদ, রহিমসহ অনেকে।
ভুক্তভোগীরা বলেন, জেলায় ৪৬টি শাখার মাধ্যমে প্রায় ৩৫ হাজার গ্রাহক তৈরী করে এক লাখ টাকায় এক হাজার দুই’শ টাকা মুনাফার প্রলোভন দিয়ে প্রায় ১০৫ কোটি টাকা সংগ্রহ করে আত্নসাত করেন মধুমতি এনজিওর মালিক মাসুদ রানা। এতে অনেকেই সহায়-সম্বল হারিয়ে পথে বসেছে।
প্রথম প্রথম তাদের লাভ দেয়া হলেও গত বছরের অক্টোবর মাস থেকে কোন লাভ দেয়া হয়নি এমনকি তাদের আমানত ফেরত চাইলেও দিব দিচ্ছি করে আর ফেরত দেয়নি। এরই মধ্যে গত ১৭ নভেম্বর এনজিওটির মালিক মাসুদ রানা নিজেকে বাচাঁর জন্য অস্ত্র নিয়ে পুলিশের হাতে আটক হন। দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রতিকার চান ভুক্তভোগীরা।
এদিকে জেলা প্রশাসক একেএম গালিভ খান জানান, ভুক্তভোগীরা স্মারকলিপি দিয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।