ঢাকা ১২:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মেসির গোলে পিএসজির জয়

ক্রীড়া ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ১০:৩৫:১৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১২ জানুয়ারী ২০২৩ ৮৬ বার পড়া হয়েছে

বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনাকে শিরোপা উপহার দেবার পর প্রথমবারের মত পিএসজির হয়ে বুধবার (১১ জানুয়ারি) মাঠে নেমেছিলেন লিওনেল মেসি। লিগ ওয়ানে ফিরে এসেই গোল পেয়েছেন এই আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। বুধবার এ্যাঞ্জাার্সকে ২-০ গোলে পরাজিত করেছে পিএসজি।

বিশ্বকাপের পর মেসি পিএসজির প্রথম তিনটি ম্যাচে বিশ্রামে ছিলেন। সপ্তাহখানেক আগে তিনি পিএসজির অনুশীলনে ফিরেছেন। কাল তলানির দল এ্যাঞ্জার্সের বিরুদ্ধে মূল দলেই খেলতে নেমেছিলেন এলএমটেন।

প্রায় সাড়ে তিন সপ্তাহ আগে কাতার বিশ্বকাপের ফাইনালে ফ্রান্সকে পেনাল্টিতে পরাজিত করে শিরোপা জয় করেছিল আর্জেন্টিনা। কালকের জয়ে ছয় পয়েন্টের সুস্পষ্ট ব্যবধানে এগিয়ে ফরাসি লিগ টেবিলের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে প্যারিসের জায়ান্টরা। দুই ম্যাচ নিষেধাজ্ঞা ও গোঁড়ালির ইনজুরির কারনে দলের বাইরে থাকার পর কাল ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমারও প্রথম থেকেই মাঠে ছিলেন। এদিকে কিলিয়ান এমবাপ্পে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে মত বিশ্রামে ছিলেন।

বিশ্বকাপের পর ছুটি কাটাতে বর্তমানে এমবাপ্পে নিউ ইয়র্কে রয়েছেন। বিশ্বকাপের ফাইনালে হ্যাটট্রিক করা এমবাপ্পে শেষ পর্যন্ত ফ্রান্সকে শিরোপা উপহার দিতে পারেননি।

ধারনা করা হচ্ছে আগামী রোববার রেনের বিরুদ্ধে এ্যাওয়ে ম্যাচে আবারো এমবাপ্পে ও মেসি একত্রিত হবেন। এমবাপ্পের অনুপস্থিতিতে আবারো তরুণ স্ট্রাইকার হুগো একিটিকে পার্ক ডি প্রিন্সেসে কাল আক্রমনভাগে জায়গা করে নিয়েছিলেন। নোর্দি মুকিয়েলের ক্রস থেকে পাঁচ মিনিটে একিটিকে গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। এই গোলের পিছনে অবশ্য মেসিরও অবদান ছিল। কাল পিএসজি তাদের সেরাটা দিতে না পারলেও ১৭ মিনিট বাকি থাকতে মেসি দলের ব্যবধানের পাশাপাশি জয় নিশ্চিত করেন। মৌসুমে এটি তার ১৩তম গোল। এই গোলে মেসির ফিনিশের আগে একিটিকে ও মুকিয়েলেরও অবদান ছিল। প্রথমে গোলটি অফসাইডের কারনে বাতিল করা হলেও ভিএআর শেষ পর্যন্ত গোলের সিদ্ধান্ত দেয়।

ম্যাচ শেষে পিএসজি কোচ ক্রিস্টোফে গাল্টিয়ার ক্যানার প্লাসকে বলেছেন, ‘মেসি দারুনভাবে ফিরে এসেছে। সে খুব স্বস্তি নিয়ে খেলেছে, শারিরীক ভাবেও দারুন ফিট রয়েছে। মেসি ফেরায় পুরো দলের চেহারাই পাল্টে গেছে। আমাদের দলের প্রায় বেশীরভাগ খেলোয়াড়ই বিশ^কাপ শেষে দলে ফিরেছে। সে কারনে তাদের জন্য আবারো নতুন করে লিগে মনোনিবেশ করা কঠিন হয়ে পড়েছে। আমাদের এখন সবাইকে একত্রিত করাটাই মূল চ্যালেঞ্জ। খেলোয়াড়দের মধ্যে যে সামান্য সম্বনয়হীনতা দেখা দিয়েছে তা কাটিয়ে উঠতে কাজ করা হচ্ছে।’

এ নিয়ে লিগ ওয়ানে টানা ১০ম পরাজয়ের স্বাদ পেল তলানিতে থাকা এ্যাঞ্জার্স। কাল দিনের আরেক ম্যাচে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লেন্স ২-২ গোলে স্ট্রসবার্গের সাথে ড্র করার সুযোগে পিএসজি তাদের পয়েন্টের ব্যবধান বাড়িয়েছে। নতুন বছরে পিএসজি লেন্সের কাছে ৩-১ গোলে পরাজিত হওয়ায় অপরাজিত থাকার রেকর্ড ধরে রাখতে পারেনি। কিন্তু সপ্তাহের শেষে ফরাসি কাপে তৃতীয় টায়ারের দল চাটেরক্সের সাথে ৩-১ গোলের জয় দিয়ে আবারো জয়ের ধারায় ফিরেছে।

লেন্স এবারের মৌসুমটা বেশ উপভোগ করছে। কিন্তু ধুকতে থাকা স্ট্রসবার্গের সাথে আরো ভাল খেলতে পারতো। কোচ জুলিয়ে স্টিফেনকে বরখাস্তের পর এটাই তাদের প্রথম ম্যাচ। এ্যালেক্সিস ক্লডে-মরিস ১১ মিনিটে সফরকারী লেন্সকে এগিয়ে দেন। সানজিন প্রাসিচ ১৩ মিনিটে সমতা ফেরানোর পরক্ষনেই কেভিন গামেরিও দারুন এক গোলে স্ট্রসবার্গকে এগিয়ে দেন। বিরতির আগে বেলজিয়ান লোয়িস ওপেন্ডার গোলে ম্যাচে সমতা ফেরায় লেন্স। এরপর ম্যাচ আরো কোন গোল হয়নি।

ট্রোয়েসের বিরুদ্ধে ২-০ গোলে জয়ী হয়ে তৃতীয় স্থানে থাকা মার্সেই এখন লেন্সের থেকে মাত্র দুই পয়েন্ট পিছিয়ে আছে। চান্সেল এমবেম্বা ও ফরাসি বিশ্বকাপ দলের সদস্য জর্ডান ভেরেটুটের গোলে মার্সেইর জয় নিশ্চিত হয়।

ইনজুরি টাইমে গোল হজম করে ক্লারমন্টের বিরুদ্ধে ২-১ গোলের পরাজয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে রেনে। এ নিয়ে চতুর্থ ম্যাচে পরাজিত হলো রেনে। দ্বিতীয় হলুদ কার্ডের কারনে বেঞ্জামিন বোরেগেয়াড ৭৭ মিনিট ও ৮৩ মিনিটে ওয়ারমেড ওমারি সরাসরি লাল কার্ড দেখে মাঠত্যাগে বাধ্য হলে রেনেকে ম্যাচটি শেষ করতে হয়েছে ৯ জন নিয়ে।

পঞ্চম স্থানে থাকা মোনাকো ২-২ গোলে লোরিয়েন্টের সথে ড্র করেছে। অন্যদিকে মন্টিপিলিয়ারকে ৬-১ গোলে বিধ্বস্ত করেছে নিস। কোচ লুসিয়েন ফাভরেকে বরখাস্তের পর এটাই নিসের প্রথম ম্যাচ। ধারে আর্সেনাল থেকে খেলতে আসা ফরোয়ার্ড নিকোলাস পেপে ও ইংলিশ মিডফিল্ডার রস বার্কলি দুটি করে গোল করেছেন।

অপর দুই ম্যাচে লিঁও ও লিলি যথাক্রমে নঁতে ও ব্রেস্টের সাথে নিজেদের ম্যাচে গোলশুন্য ড্র করে পয়েন্ট হারিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

মেসির গোলে পিএসজির জয়

আপডেট সময় : ১০:৩৫:১৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১২ জানুয়ারী ২০২৩

বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনাকে শিরোপা উপহার দেবার পর প্রথমবারের মত পিএসজির হয়ে বুধবার (১১ জানুয়ারি) মাঠে নেমেছিলেন লিওনেল মেসি। লিগ ওয়ানে ফিরে এসেই গোল পেয়েছেন এই আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। বুধবার এ্যাঞ্জাার্সকে ২-০ গোলে পরাজিত করেছে পিএসজি।

বিশ্বকাপের পর মেসি পিএসজির প্রথম তিনটি ম্যাচে বিশ্রামে ছিলেন। সপ্তাহখানেক আগে তিনি পিএসজির অনুশীলনে ফিরেছেন। কাল তলানির দল এ্যাঞ্জার্সের বিরুদ্ধে মূল দলেই খেলতে নেমেছিলেন এলএমটেন।

প্রায় সাড়ে তিন সপ্তাহ আগে কাতার বিশ্বকাপের ফাইনালে ফ্রান্সকে পেনাল্টিতে পরাজিত করে শিরোপা জয় করেছিল আর্জেন্টিনা। কালকের জয়ে ছয় পয়েন্টের সুস্পষ্ট ব্যবধানে এগিয়ে ফরাসি লিগ টেবিলের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে প্যারিসের জায়ান্টরা। দুই ম্যাচ নিষেধাজ্ঞা ও গোঁড়ালির ইনজুরির কারনে দলের বাইরে থাকার পর কাল ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমারও প্রথম থেকেই মাঠে ছিলেন। এদিকে কিলিয়ান এমবাপ্পে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে মত বিশ্রামে ছিলেন।

বিশ্বকাপের পর ছুটি কাটাতে বর্তমানে এমবাপ্পে নিউ ইয়র্কে রয়েছেন। বিশ্বকাপের ফাইনালে হ্যাটট্রিক করা এমবাপ্পে শেষ পর্যন্ত ফ্রান্সকে শিরোপা উপহার দিতে পারেননি।

ধারনা করা হচ্ছে আগামী রোববার রেনের বিরুদ্ধে এ্যাওয়ে ম্যাচে আবারো এমবাপ্পে ও মেসি একত্রিত হবেন। এমবাপ্পের অনুপস্থিতিতে আবারো তরুণ স্ট্রাইকার হুগো একিটিকে পার্ক ডি প্রিন্সেসে কাল আক্রমনভাগে জায়গা করে নিয়েছিলেন। নোর্দি মুকিয়েলের ক্রস থেকে পাঁচ মিনিটে একিটিকে গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। এই গোলের পিছনে অবশ্য মেসিরও অবদান ছিল। কাল পিএসজি তাদের সেরাটা দিতে না পারলেও ১৭ মিনিট বাকি থাকতে মেসি দলের ব্যবধানের পাশাপাশি জয় নিশ্চিত করেন। মৌসুমে এটি তার ১৩তম গোল। এই গোলে মেসির ফিনিশের আগে একিটিকে ও মুকিয়েলেরও অবদান ছিল। প্রথমে গোলটি অফসাইডের কারনে বাতিল করা হলেও ভিএআর শেষ পর্যন্ত গোলের সিদ্ধান্ত দেয়।

ম্যাচ শেষে পিএসজি কোচ ক্রিস্টোফে গাল্টিয়ার ক্যানার প্লাসকে বলেছেন, ‘মেসি দারুনভাবে ফিরে এসেছে। সে খুব স্বস্তি নিয়ে খেলেছে, শারিরীক ভাবেও দারুন ফিট রয়েছে। মেসি ফেরায় পুরো দলের চেহারাই পাল্টে গেছে। আমাদের দলের প্রায় বেশীরভাগ খেলোয়াড়ই বিশ^কাপ শেষে দলে ফিরেছে। সে কারনে তাদের জন্য আবারো নতুন করে লিগে মনোনিবেশ করা কঠিন হয়ে পড়েছে। আমাদের এখন সবাইকে একত্রিত করাটাই মূল চ্যালেঞ্জ। খেলোয়াড়দের মধ্যে যে সামান্য সম্বনয়হীনতা দেখা দিয়েছে তা কাটিয়ে উঠতে কাজ করা হচ্ছে।’

এ নিয়ে লিগ ওয়ানে টানা ১০ম পরাজয়ের স্বাদ পেল তলানিতে থাকা এ্যাঞ্জার্স। কাল দিনের আরেক ম্যাচে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লেন্স ২-২ গোলে স্ট্রসবার্গের সাথে ড্র করার সুযোগে পিএসজি তাদের পয়েন্টের ব্যবধান বাড়িয়েছে। নতুন বছরে পিএসজি লেন্সের কাছে ৩-১ গোলে পরাজিত হওয়ায় অপরাজিত থাকার রেকর্ড ধরে রাখতে পারেনি। কিন্তু সপ্তাহের শেষে ফরাসি কাপে তৃতীয় টায়ারের দল চাটেরক্সের সাথে ৩-১ গোলের জয় দিয়ে আবারো জয়ের ধারায় ফিরেছে।

লেন্স এবারের মৌসুমটা বেশ উপভোগ করছে। কিন্তু ধুকতে থাকা স্ট্রসবার্গের সাথে আরো ভাল খেলতে পারতো। কোচ জুলিয়ে স্টিফেনকে বরখাস্তের পর এটাই তাদের প্রথম ম্যাচ। এ্যালেক্সিস ক্লডে-মরিস ১১ মিনিটে সফরকারী লেন্সকে এগিয়ে দেন। সানজিন প্রাসিচ ১৩ মিনিটে সমতা ফেরানোর পরক্ষনেই কেভিন গামেরিও দারুন এক গোলে স্ট্রসবার্গকে এগিয়ে দেন। বিরতির আগে বেলজিয়ান লোয়িস ওপেন্ডার গোলে ম্যাচে সমতা ফেরায় লেন্স। এরপর ম্যাচ আরো কোন গোল হয়নি।

ট্রোয়েসের বিরুদ্ধে ২-০ গোলে জয়ী হয়ে তৃতীয় স্থানে থাকা মার্সেই এখন লেন্সের থেকে মাত্র দুই পয়েন্ট পিছিয়ে আছে। চান্সেল এমবেম্বা ও ফরাসি বিশ্বকাপ দলের সদস্য জর্ডান ভেরেটুটের গোলে মার্সেইর জয় নিশ্চিত হয়।

ইনজুরি টাইমে গোল হজম করে ক্লারমন্টের বিরুদ্ধে ২-১ গোলের পরাজয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে রেনে। এ নিয়ে চতুর্থ ম্যাচে পরাজিত হলো রেনে। দ্বিতীয় হলুদ কার্ডের কারনে বেঞ্জামিন বোরেগেয়াড ৭৭ মিনিট ও ৮৩ মিনিটে ওয়ারমেড ওমারি সরাসরি লাল কার্ড দেখে মাঠত্যাগে বাধ্য হলে রেনেকে ম্যাচটি শেষ করতে হয়েছে ৯ জন নিয়ে।

পঞ্চম স্থানে থাকা মোনাকো ২-২ গোলে লোরিয়েন্টের সথে ড্র করেছে। অন্যদিকে মন্টিপিলিয়ারকে ৬-১ গোলে বিধ্বস্ত করেছে নিস। কোচ লুসিয়েন ফাভরেকে বরখাস্তের পর এটাই নিসের প্রথম ম্যাচ। ধারে আর্সেনাল থেকে খেলতে আসা ফরোয়ার্ড নিকোলাস পেপে ও ইংলিশ মিডফিল্ডার রস বার্কলি দুটি করে গোল করেছেন।

অপর দুই ম্যাচে লিঁও ও লিলি যথাক্রমে নঁতে ও ব্রেস্টের সাথে নিজেদের ম্যাচে গোলশুন্য ড্র করে পয়েন্ট হারিয়েছে।