ঢাকা ০৪:২৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

২৩নং ওয়ার্ডকে পরিকল্পিত আধুনিক এলাকা গড়তে চান – রানা

ময়মনসিংহ প্রতিবেদক:
  • আপডেট সময় : ০৫:৫৫:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪ ৩৯ বার পড়া হয়েছে

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের (মসিক) ২৩ নম্বর ওয়ার্ডকে পরিকল্পিত, পরিচ্ছন্ন, আধুনিক এবং একটি আদর্শ এলাকা হিসেবে গড়ে তুলতে চান তরুণ জনবান্ধব সমাজ সেবক কাউন্সিলর প্রার্থী রাশেদুল ইসলাম রানা। সে লক্ষে তিনি আসন্ন ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ঠেলাগাড়ি প্রতীক নিয়ে মানুষের বাড়ী বাড়ী গিয়ে ভোট ও দোয়া চেয়ে বেড়াচ্ছেন।

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের বর্ধিত অংশ সাবেক ভাবখালী ইউনিয়নের সতিয়াখালী,বেলতলীসহ কয়েকটি পাড়া-মহল্লায় যুক্ত হওয়া এই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত হলে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা হাতে নিয়ে এলাকার স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা ও রাস্তাঘাটসহ সার্বিক উন্নয়ন করতে চান তিনি।একই সঙ্গে ওয়ার্ডকে মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত করে গড়ে তুলতে চান রাশেদুল ইসলাম রানা । তিনি বলেন বলেন, আমার ব্যক্তিগত চাওয়া-পাওয়ার কিছু নেই। এই এলাকার প্রতিটি মানুষকে আমি আমার নিজের পরিবারের সদস্য মনে করি।

সুখ-দুঃখে তাদের পাশে থাকার চেষ্টা করি। গত নির্বাচনে পরাজিত হলেও ঘরে বসে থাকতে পারিনি। তারা আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করলে এই ওয়ার্ডকে পরিকল্পিতভাবে সাজাতে চাই। দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা হাতে নিয়ে রাস্তাঘাট, স্যুয়ারেজ লাইনসহ সব কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন করতে চাই।

এছাড়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছেন। এই বিষয়ে তার নির্দেশনা বাস্তবায়নে কাজ করে যেতে চাই।

এই ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ৯ হাজারেরও বেশি প্রায় সাড়ে ৯হাজার ভোটার সংখ্যা কম হলেও এই ওয়ার্ডে ২০-২৫ হাজারের বেশি মানুষের বসবাস।

এদিকে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা ও প্রতীক বরাদ্দের পরে বেশ বেশ কয়েকজন প্রার্থী বিভিন্ন প্রতীক নিয়ে মাঠে নেমেছেন।

কিন্তু সুখে-দুঃখে সাধারণ মানুষের পাশে থেকে এবং ব্যক্তিগত উদ্যোগে এলাকার উন্নয়নে ভূমিকা রেখে এই ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় রয়েছেন ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের কৃতি সন্তান রাশেদুল ইসলাম রানা। ওয়ার্ডটির স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, রাশেদুল ইসলাম রানাকে তারা নম্র ও ভদ্র মানুষ হিসেবেই জানেন।

একজন ব্যবসায়ী ও সঙ্গীত শিল্পী হিসেবেও এলাকায় তার ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। যে কোনো প্রয়োজনে ডাকলে তাকে পাশে পান এলাকার মানুষ। এই ওয়ার্ডের প্রতিটি গ্রামে রয়েছে তার পদচারণা। এই সব গ্রামে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ মাদ্রাসা এবং বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গে রয়েছে তার নিবিড় সম্পর্ক।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

২৩নং ওয়ার্ডকে পরিকল্পিত আধুনিক এলাকা গড়তে চান – রানা

আপডেট সময় : ০৫:৫৫:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের (মসিক) ২৩ নম্বর ওয়ার্ডকে পরিকল্পিত, পরিচ্ছন্ন, আধুনিক এবং একটি আদর্শ এলাকা হিসেবে গড়ে তুলতে চান তরুণ জনবান্ধব সমাজ সেবক কাউন্সিলর প্রার্থী রাশেদুল ইসলাম রানা। সে লক্ষে তিনি আসন্ন ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ঠেলাগাড়ি প্রতীক নিয়ে মানুষের বাড়ী বাড়ী গিয়ে ভোট ও দোয়া চেয়ে বেড়াচ্ছেন।

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের বর্ধিত অংশ সাবেক ভাবখালী ইউনিয়নের সতিয়াখালী,বেলতলীসহ কয়েকটি পাড়া-মহল্লায় যুক্ত হওয়া এই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত হলে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা হাতে নিয়ে এলাকার স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা ও রাস্তাঘাটসহ সার্বিক উন্নয়ন করতে চান তিনি।একই সঙ্গে ওয়ার্ডকে মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত করে গড়ে তুলতে চান রাশেদুল ইসলাম রানা । তিনি বলেন বলেন, আমার ব্যক্তিগত চাওয়া-পাওয়ার কিছু নেই। এই এলাকার প্রতিটি মানুষকে আমি আমার নিজের পরিবারের সদস্য মনে করি।

সুখ-দুঃখে তাদের পাশে থাকার চেষ্টা করি। গত নির্বাচনে পরাজিত হলেও ঘরে বসে থাকতে পারিনি। তারা আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করলে এই ওয়ার্ডকে পরিকল্পিতভাবে সাজাতে চাই। দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা হাতে নিয়ে রাস্তাঘাট, স্যুয়ারেজ লাইনসহ সব কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন করতে চাই।

এছাড়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছেন। এই বিষয়ে তার নির্দেশনা বাস্তবায়নে কাজ করে যেতে চাই।

এই ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ৯ হাজারেরও বেশি প্রায় সাড়ে ৯হাজার ভোটার সংখ্যা কম হলেও এই ওয়ার্ডে ২০-২৫ হাজারের বেশি মানুষের বসবাস।

এদিকে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা ও প্রতীক বরাদ্দের পরে বেশ বেশ কয়েকজন প্রার্থী বিভিন্ন প্রতীক নিয়ে মাঠে নেমেছেন।

কিন্তু সুখে-দুঃখে সাধারণ মানুষের পাশে থেকে এবং ব্যক্তিগত উদ্যোগে এলাকার উন্নয়নে ভূমিকা রেখে এই ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় রয়েছেন ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের কৃতি সন্তান রাশেদুল ইসলাম রানা। ওয়ার্ডটির স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, রাশেদুল ইসলাম রানাকে তারা নম্র ও ভদ্র মানুষ হিসেবেই জানেন।

একজন ব্যবসায়ী ও সঙ্গীত শিল্পী হিসেবেও এলাকায় তার ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। যে কোনো প্রয়োজনে ডাকলে তাকে পাশে পান এলাকার মানুষ। এই ওয়ার্ডের প্রতিটি গ্রামে রয়েছে তার পদচারণা। এই সব গ্রামে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ মাদ্রাসা এবং বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গে রয়েছে তার নিবিড় সম্পর্ক।