ঢাকা ০৬:৫৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১০ বছর পর সিলেটে নৌকার জয়

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৬:০১:৩৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ জুন ২০২৩ ৫৮ বার পড়া হয়েছে

সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়লাভ করেছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। তিনি নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ১ লাখ ১৯ হাজার ৯৯১ ভোট। ১০ বছর পর সিলেট সিটিতে মেয়র পদে জয় পেল আওয়ামী লীগ। প্রথমবারের মতো সিলেটের নগরপিতা নির্বাচিত হলেন আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।

বুধবার (২১ জুন) রাতে সিলেটের জালালাবাদ গ্যাস অডিটোরিয়ামে বেসরকারিভাবে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ফয়সল কাদের।

প্রাপ্ত ফলাফলে দেখা যায়, আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির লাঙল প্রতীকের নজরুল ইসলাম বাবুল পেয়েছেন ৫০ হাজার ৮৬২ ভোট। স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শাহজাহান মিয়া বাস গাড়ি প্রতীকে ২৯ হাজার ৬৮৮, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মাওলানা মাহমুদুল হাসান হাতপাখা প্রতীকে ১২ হাজার ৭৯৪, জাকের পার্টির মো. জহিরুল আলম গোলাপফুল প্রতীকে ৩ হাজার ৪০৫, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ আবদুল হানিফ কুটু ঘোড়া প্রতীকে ৪ হাজার ২৯৬ ভোট , মো. ছালাহ উদ্দিন রিমন ক্রিকেট ব্যাট প্রতীকে ২ হাজার ৬৪৮ ভোট ও মোশতাক আহমেদ রউফ মোস্তফা হরিণ প্রতীকে ২ হাজার ৯৫৯ ভোট পেয়েছেন।

বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৭৯ দশমিক ৫০ বর্গকিলোমিটার আয়তনের ৪২টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত সিলেট সিটি কর্পোরেশনে এ নিয়ে পঞ্চমবারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

এবারের সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আটজন ও কাউন্সিলর পদে ৩৫৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। যাদের মধ্যে ২৭২ জন সাধারণ ওয়ার্ডে এবং সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে মোট ৮৭ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সিলেট নগরীতে মোট ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৮৭ হাজার ৭৫৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২ লাখ ৫৪ হাজার ৩৬৩ জন, নারী ২ লাখ ৩৩ হাজার ৩৮৪ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন ৬ জন।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ১৫ জুন সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমেদ কামরানের সঙ্গে মেয়র পদে প্রথম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী। সে সময় তিনি ১ লাখ ৭ হাজার ৩৩০ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বদর উদ্দিন আহমেদ কামরান পেয়েছিলেন ৭২ হাজার ২৩০ ভোট।

সর্বশেষ আবারও ২০১৮ সালের সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমেদ কামরানকে আবারও পরাজিত করেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। সেবার ধানের শীষ প্রতীকে আরিফুল হক চৌধুরী পেয়েছিলেন ৯২ হাজার ৫৮৮ ভোট। বদর উদ্দিন আহমেদ কামরান নৌকা প্রতীক পেয়েছিলেন ৮৬ হাজার ৩৯২ ভোট।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

১০ বছর পর সিলেটে নৌকার জয়

আপডেট সময় : ০৬:০১:৩৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ জুন ২০২৩

সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়লাভ করেছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। তিনি নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ১ লাখ ১৯ হাজার ৯৯১ ভোট। ১০ বছর পর সিলেট সিটিতে মেয়র পদে জয় পেল আওয়ামী লীগ। প্রথমবারের মতো সিলেটের নগরপিতা নির্বাচিত হলেন আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।

বুধবার (২১ জুন) রাতে সিলেটের জালালাবাদ গ্যাস অডিটোরিয়ামে বেসরকারিভাবে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ফয়সল কাদের।

প্রাপ্ত ফলাফলে দেখা যায়, আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির লাঙল প্রতীকের নজরুল ইসলাম বাবুল পেয়েছেন ৫০ হাজার ৮৬২ ভোট। স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শাহজাহান মিয়া বাস গাড়ি প্রতীকে ২৯ হাজার ৬৮৮, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মাওলানা মাহমুদুল হাসান হাতপাখা প্রতীকে ১২ হাজার ৭৯৪, জাকের পার্টির মো. জহিরুল আলম গোলাপফুল প্রতীকে ৩ হাজার ৪০৫, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ আবদুল হানিফ কুটু ঘোড়া প্রতীকে ৪ হাজার ২৯৬ ভোট , মো. ছালাহ উদ্দিন রিমন ক্রিকেট ব্যাট প্রতীকে ২ হাজার ৬৪৮ ভোট ও মোশতাক আহমেদ রউফ মোস্তফা হরিণ প্রতীকে ২ হাজার ৯৫৯ ভোট পেয়েছেন।

বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৭৯ দশমিক ৫০ বর্গকিলোমিটার আয়তনের ৪২টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত সিলেট সিটি কর্পোরেশনে এ নিয়ে পঞ্চমবারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

এবারের সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আটজন ও কাউন্সিলর পদে ৩৫৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। যাদের মধ্যে ২৭২ জন সাধারণ ওয়ার্ডে এবং সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে মোট ৮৭ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সিলেট নগরীতে মোট ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৮৭ হাজার ৭৫৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২ লাখ ৫৪ হাজার ৩৬৩ জন, নারী ২ লাখ ৩৩ হাজার ৩৮৪ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন ৬ জন।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ১৫ জুন সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমেদ কামরানের সঙ্গে মেয়র পদে প্রথম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী। সে সময় তিনি ১ লাখ ৭ হাজার ৩৩০ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বদর উদ্দিন আহমেদ কামরান পেয়েছিলেন ৭২ হাজার ২৩০ ভোট।

সর্বশেষ আবারও ২০১৮ সালের সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমেদ কামরানকে আবারও পরাজিত করেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। সেবার ধানের শীষ প্রতীকে আরিফুল হক চৌধুরী পেয়েছিলেন ৯২ হাজার ৫৮৮ ভোট। বদর উদ্দিন আহমেদ কামরান নৌকা প্রতীক পেয়েছিলেন ৮৬ হাজার ৩৯২ ভোট।