ঢাকা ০১:১৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাইতিতে বন্যা-ভূমিধসে ৪২ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৯:০৭:৩৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ জুন ২০২৩ ৫৮ বার পড়া হয়েছে

হাইতিতে ভারী বৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে কমপক্ষে ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন ১১ জন। দেশটির জনসুরক্ষা-বিষয়ক কর্মকর্তারা গতকাল সোমবার এ কথা জানিয়েছেন।

অর্থনৈতিক দুরবস্থা, রাজনৈতিক অস্থিরতা ও গ্যাং সহিংসতার জেরে ক্যারিবীয় অঞ্চলের দ্বীপদেশটিতে মানবিক সংকট চলছে। এ অবস্থায় দেশটির ১০ বিভাগের মধ্যে ৭টিই বৈরী আবহাওয়ার কবলে পড়ল।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী অ্যারিয়েল হেনরি জরুরি অবস্থা দেখভালে নিয়োজিত জাতীয় জরুরি পরিচালনা কেন্দ্রকে সম্ভাব্য সব ধরনের ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন।

হাইতিতে শক্তিশালী ভূমিকম্পে অনেক ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। জাতিসংঘ বলছে, ভারী বৃষ্টিতে ৩৭ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ঘরবাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছে প্রায় সাড়ে ১৩ হাজার মানুষ।

হাইতির রাজধানী পোর্ট-অ-প্রিন্স থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর লিওগানের অবস্থা বেশি খারাপ। শহরটির আশপাশের তিনটি নদী প্লাবিত হওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

শহরটির কর্মকর্তারা বলছেন, এখানে অন্তত ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। লিওগানের মেয়র আর্নসন হেনরি বলেন, ‘শহরবাসী হতাশ হয়ে পড়েছেন। তারা সবকিছু হারিয়েছেন।’

হাজারো পরিবার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে উল্লেখ করে মেয়র হেনরি বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জরুরি ভিত্তিতে খাদ্য, খাওয়ার পানি ও ওষুধ দরকার।

হাইতিতে নিয়োজিত জাতিসংঘের মানবিক সহায়তাবিষয়ক সমন্বয়ক জঁ মার্টিন বাওয়ের বলেন, ‘যদিও এটি হারিকেন বা গ্রীষ্মমণ্ডলীয় ঝড় নয়, তবে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার অবস্থা আমলে নেওয়ার মতো।’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

হাইতিতে বন্যা-ভূমিধসে ৪২ জনের মৃত্যু

আপডেট সময় : ০৯:০৭:৩৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ জুন ২০২৩

হাইতিতে ভারী বৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে কমপক্ষে ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন ১১ জন। দেশটির জনসুরক্ষা-বিষয়ক কর্মকর্তারা গতকাল সোমবার এ কথা জানিয়েছেন।

অর্থনৈতিক দুরবস্থা, রাজনৈতিক অস্থিরতা ও গ্যাং সহিংসতার জেরে ক্যারিবীয় অঞ্চলের দ্বীপদেশটিতে মানবিক সংকট চলছে। এ অবস্থায় দেশটির ১০ বিভাগের মধ্যে ৭টিই বৈরী আবহাওয়ার কবলে পড়ল।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী অ্যারিয়েল হেনরি জরুরি অবস্থা দেখভালে নিয়োজিত জাতীয় জরুরি পরিচালনা কেন্দ্রকে সম্ভাব্য সব ধরনের ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন।

হাইতিতে শক্তিশালী ভূমিকম্পে অনেক ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। জাতিসংঘ বলছে, ভারী বৃষ্টিতে ৩৭ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ঘরবাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছে প্রায় সাড়ে ১৩ হাজার মানুষ।

হাইতির রাজধানী পোর্ট-অ-প্রিন্স থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর লিওগানের অবস্থা বেশি খারাপ। শহরটির আশপাশের তিনটি নদী প্লাবিত হওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

শহরটির কর্মকর্তারা বলছেন, এখানে অন্তত ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। লিওগানের মেয়র আর্নসন হেনরি বলেন, ‘শহরবাসী হতাশ হয়ে পড়েছেন। তারা সবকিছু হারিয়েছেন।’

হাজারো পরিবার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে উল্লেখ করে মেয়র হেনরি বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জরুরি ভিত্তিতে খাদ্য, খাওয়ার পানি ও ওষুধ দরকার।

হাইতিতে নিয়োজিত জাতিসংঘের মানবিক সহায়তাবিষয়ক সমন্বয়ক জঁ মার্টিন বাওয়ের বলেন, ‘যদিও এটি হারিকেন বা গ্রীষ্মমণ্ডলীয় ঝড় নয়, তবে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার অবস্থা আমলে নেওয়ার মতো।’