ঢাকা ০৩:২১ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

“পুঠিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রধান শিক্ষক নিহত”

মেহেদী হাসান, নিজস্ব প্রতিবেদক, পুঠিয়াঃ
  • আপডেট সময় : ১০:৪২:০৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মার্চ ২০২৩ ৭৮ বার পড়া হয়েছে

রাজশাহীর পুঠিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক আব্দুস সাত্তার (৬৫) সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। রামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার ১১টার দিকে তিনি মারা যান।

আব্দুস সাত্তারের বাড়ি পুঠিয়া পৌর সদরের কাঠালবাড়িয়া ৭ নং ওয়ার্ডের সিক্স বিল্ডিং এলাকায়।

জানা গেছে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে রাস্তা পারাপারের সময় একটি ট্রাকের ধাক্কায় গুরুতর আহত হন তিনি। এসময় স্থানীয়রা তাকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনলে তার অবস্থার অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য রামেক হাসপাতালে পাঠান কর্তব্যরত চিকিৎসক। একদিন পর শুক্রবার ১১টার দিকে মারা যান তিনি। দুর্ঘটনা কবলিত ট্রাকটি আটক করে পুঠিয়া মোটর শ্রমিক অফিসে রাখা হয়েছে।

পবা হাইওয়ে থানা (শিবপুর হাট) পুলিশের ইন্সপেক্টর মোফাখ্খারুল ইসলাম বলেন, ঘটনাটি আমাদের জানা নাই। ওই শিক্ষকের পরিবার থেকেও কিছু জানানো হয়নি। আপনাদের মাধ্যমে বিষয়টি অবগত হলাম। সবকিছু খোঁজ নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

“পুঠিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রধান শিক্ষক নিহত”

আপডেট সময় : ১০:৪২:০৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মার্চ ২০২৩

রাজশাহীর পুঠিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক আব্দুস সাত্তার (৬৫) সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। রামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার ১১টার দিকে তিনি মারা যান।

আব্দুস সাত্তারের বাড়ি পুঠিয়া পৌর সদরের কাঠালবাড়িয়া ৭ নং ওয়ার্ডের সিক্স বিল্ডিং এলাকায়।

জানা গেছে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে রাস্তা পারাপারের সময় একটি ট্রাকের ধাক্কায় গুরুতর আহত হন তিনি। এসময় স্থানীয়রা তাকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনলে তার অবস্থার অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য রামেক হাসপাতালে পাঠান কর্তব্যরত চিকিৎসক। একদিন পর শুক্রবার ১১টার দিকে মারা যান তিনি। দুর্ঘটনা কবলিত ট্রাকটি আটক করে পুঠিয়া মোটর শ্রমিক অফিসে রাখা হয়েছে।

পবা হাইওয়ে থানা (শিবপুর হাট) পুলিশের ইন্সপেক্টর মোফাখ্খারুল ইসলাম বলেন, ঘটনাটি আমাদের জানা নাই। ওই শিক্ষকের পরিবার থেকেও কিছু জানানো হয়নি। আপনাদের মাধ্যমে বিষয়টি অবগত হলাম। সবকিছু খোঁজ নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।