ঢাকা ০২:০২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সুনামগঞ্জে নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নে মিডিয়া সম্পৃক্তকরণে কর্মশালা

নিজস্ব প্রতিবেদক//
  • আপডেট সময় : ১০:২৪:০৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০২৩ ৫১ বার পড়া হয়েছে

জেলা পর্যায়ে নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নে মিডিয়া সম্পৃক্তকরণ বিষয়ে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এনজিও সংস্থা প্রিপ ট্রাস্টের আয়োজনে শহরের শহীদ জগৎজ্যোতি পাঠাগার মিলনায়তনে এ কর্মশালায় তৃণমূলের নারীরা অংশগ্রহন করেন। এতে বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্র মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন এবং নারীদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব ও দেন সাংবাদিকরা।

জামালগঞ্জ উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ও উত্তর ইউনিয়ন অপরাজিতার সভাপতি শাহানা আল আজাদের সভাপতিত্বে ও এনজিও সংস্থা প্রিপ ট্রাস্টের ডিস্টিক প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর মো. ইশতেহার হোসেন মৃধার সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন,বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামীলীগ সুনামগঞ্জ জেলা শাখার ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মারজানা ইসলাম শিবনা,বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগ সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক জান্নাত মরিয়ম, প্রিপ ট্রাস্টের ফিল্ড কো-অর্ডিনেটর মাহবুব আলম,ফিল্ড কো-অর্ডিনেটক লাভলী সরকার,সুরমা ইউপির মাজেদা বেগম,তাহিরপুর উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি আইরিন,যুব মহিলা লীগের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা শাখার যুগ্ম আহবায়ক প্রতিমা রানী দেবী,সামছুন নাহার,বেবী আক্তার,রেহেনা পারভীন ও প্রতিমা রানী দাস প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে জামালগঞ্জ উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ও উত্তর ইউনিয়ন অপরাজিতার সভাপতি শাহানা আল আজাদ বলেন,আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী একজন নারী, জাতীয় সংসদের স্পিকার,শিক্ষামন্ত্রী নারী। দেশের বৈপ্লবিক উন্নয়নে দেশের বিভিন্ন সেক্টরে নারীদের অংশগ্রহন কেবল বর্তমান সরকারের আমলে নিশ্চিত হয়েছে। তারা বলেন ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা সংগ্রামে প্রতিটি ধর্মের নারীরা বিভিন্নভাবে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন এবং ত্রিশলাখ শহীদ ও দু”লাখ মাবোনের ইজ্জতের বিনিময়ে অর্জিত আজকের উন্নত ও সমৃদ্ধ ডিজিটাল বাংলাদেশ বির্নিমাণে কার্যকর ভূমিকা রয়েছে। তারা আরো বলেন দেশের মোট জনসংখ্যার অর্ধেকেই তো নারী। কাজেই পূরুষ শাসিত সমাজ ব্যবস্থায় রাষ্ট্রের প্রতিটি স্তরে নারীদের অংশগ্রহন আরো বাড়াতে সমাজে কিছুটা প্রতিবন্ধকতা থাকলে ও বর্তমান প্রজন্মের নারীরা আর ঘরে বন্দী দশায় থাকতে চান না। তাদের দাবী হচ্ছে জাতীয় সংসদ থেকে শুরু করে,জেলা পরিষদ,উপজেলা পরিষদ,ইউনিয়ন পরিষদ ও সরকারী এবং আধা সরকারী প্রতিষ্ঠানে নারীদের অংশগ্রহন বাড়াতে এবং নিশ্চিত করতে গণমাধ্যমের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ । তাই মুক্তিযুদ্ধে এক সাগর রক্তের বিনিময়ে অর্জিত আগামীর একটি অসাম্প্রদায়িকতার চেতনার বাংলাদেশ নির্মাণে নারী পূরুষের বৈষম্য দূরীকরনসহ প্রতিটি ধর্মের নারীদের অংশগ্রহন নিশ্চিত করতে গণমাধ্যমের সহযোগিতা চান নারীনেত্রীরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

সুনামগঞ্জে নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নে মিডিয়া সম্পৃক্তকরণে কর্মশালা

আপডেট সময় : ১০:২৪:০৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০২৩

জেলা পর্যায়ে নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নে মিডিয়া সম্পৃক্তকরণ বিষয়ে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এনজিও সংস্থা প্রিপ ট্রাস্টের আয়োজনে শহরের শহীদ জগৎজ্যোতি পাঠাগার মিলনায়তনে এ কর্মশালায় তৃণমূলের নারীরা অংশগ্রহন করেন। এতে বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্র মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন এবং নারীদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব ও দেন সাংবাদিকরা।

জামালগঞ্জ উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ও উত্তর ইউনিয়ন অপরাজিতার সভাপতি শাহানা আল আজাদের সভাপতিত্বে ও এনজিও সংস্থা প্রিপ ট্রাস্টের ডিস্টিক প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর মো. ইশতেহার হোসেন মৃধার সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন,বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামীলীগ সুনামগঞ্জ জেলা শাখার ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মারজানা ইসলাম শিবনা,বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগ সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক জান্নাত মরিয়ম, প্রিপ ট্রাস্টের ফিল্ড কো-অর্ডিনেটর মাহবুব আলম,ফিল্ড কো-অর্ডিনেটক লাভলী সরকার,সুরমা ইউপির মাজেদা বেগম,তাহিরপুর উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি আইরিন,যুব মহিলা লীগের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা শাখার যুগ্ম আহবায়ক প্রতিমা রানী দেবী,সামছুন নাহার,বেবী আক্তার,রেহেনা পারভীন ও প্রতিমা রানী দাস প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে জামালগঞ্জ উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ও উত্তর ইউনিয়ন অপরাজিতার সভাপতি শাহানা আল আজাদ বলেন,আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী একজন নারী, জাতীয় সংসদের স্পিকার,শিক্ষামন্ত্রী নারী। দেশের বৈপ্লবিক উন্নয়নে দেশের বিভিন্ন সেক্টরে নারীদের অংশগ্রহন কেবল বর্তমান সরকারের আমলে নিশ্চিত হয়েছে। তারা বলেন ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা সংগ্রামে প্রতিটি ধর্মের নারীরা বিভিন্নভাবে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন এবং ত্রিশলাখ শহীদ ও দু”লাখ মাবোনের ইজ্জতের বিনিময়ে অর্জিত আজকের উন্নত ও সমৃদ্ধ ডিজিটাল বাংলাদেশ বির্নিমাণে কার্যকর ভূমিকা রয়েছে। তারা আরো বলেন দেশের মোট জনসংখ্যার অর্ধেকেই তো নারী। কাজেই পূরুষ শাসিত সমাজ ব্যবস্থায় রাষ্ট্রের প্রতিটি স্তরে নারীদের অংশগ্রহন আরো বাড়াতে সমাজে কিছুটা প্রতিবন্ধকতা থাকলে ও বর্তমান প্রজন্মের নারীরা আর ঘরে বন্দী দশায় থাকতে চান না। তাদের দাবী হচ্ছে জাতীয় সংসদ থেকে শুরু করে,জেলা পরিষদ,উপজেলা পরিষদ,ইউনিয়ন পরিষদ ও সরকারী এবং আধা সরকারী প্রতিষ্ঠানে নারীদের অংশগ্রহন বাড়াতে এবং নিশ্চিত করতে গণমাধ্যমের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ । তাই মুক্তিযুদ্ধে এক সাগর রক্তের বিনিময়ে অর্জিত আগামীর একটি অসাম্প্রদায়িকতার চেতনার বাংলাদেশ নির্মাণে নারী পূরুষের বৈষম্য দূরীকরনসহ প্রতিটি ধর্মের নারীদের অংশগ্রহন নিশ্চিত করতে গণমাধ্যমের সহযোগিতা চান নারীনেত্রীরা।