ঢাকা ১২:৪৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সরকার পতনের মধ্য দিয়ে বিএনপির পদযাত্রা থামবে : মির্জা আব্বাস

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৫:৩২:৪৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ মে ২০২৩ ৭২ বার পড়া হয়েছে

জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিএনপির পদযাত্রা শুরু হয়েছে, যা ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের বিদায়ের মাধ্যমে শেষ হবে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। তিনি বলেন, এই সরকারের বিরুদ্ধে সব জনগণ যদি ঐক্যবদ্ধভাবে নেমে যায়, ইনশাআল্লাহ তারা টিকে থাকতে পারবে না।

বুধবার (১৭ মে) রাজধানীর বাসাবো বালুর মাঠের সামনে মহানগর দক্ষিণ বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচি পূর্ব সমাবেশে এ মন্তব্য করেন তিনি।

মির্জা আব্বাস বলেন, দেশের মানুষকে সম্পদহীন করেছে এই সরকার। বাংলাদেশ ব্যাংক লুট করেছে। সম্পদ তো লুট করেছে, এখন বাংলাদেশের মানচিত্র নিয়ে খেলাধুলা শুরু করছে। এটা বাংলাদেশের জনগণ কখনও হতে দেবে না। এই দেশ রক্ত দিয়ে অর্জন করা, এই দেশ মুক্তিযোদ্ধাদের দেশ। এই দেশ বিনা রক্তপাতে কখনও কেউ নিতে পারবে না।

শুনছি আবার নাকি গ্যাসের দাম বাড়ানো হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই কয়েকদিন আগে গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছে, এটা মনে হয় তারা ভুলে গেছে। কয়েকদিন আগে তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে, এটাও মনে হয় তারা ভুলে গেছে। কীভাবে দেশে লুটপাট হচ্ছে এটা তারা ভুলে গেছে। নিশি রাতে ভোট ডাকাতি করে ক্ষমতায় এসেছে এটাও তারা ভুলে গেছে। এখন তারা বলে খালেদা জিয়ার আমলে নাকি ভোট চুরি হয়েছে।

সরকারের অত্যাচারের সীমা বয়স্ক মানুষ থেকে বাচ্চা পর্যন্ত চলে গেছে মন্তব্য করে মির্জা আব্বাস বলেন, বাচ্চাদেরকেও ভালো রাখেনি। বাচ্চারা ঘরের মধ্যে থাকতে-থাকতে ফার্মের বাচ্চার মতো হয়ে গেছে। এই বাচ্চারা বড় হবে আন্দোলন করবে, আপনারা গুলি করে মারবেন এমন চিন্তা করবেন না। বাচ্চাদের বড় করা হচ্ছে তারা আপনাদেরকে পরিচালনা করবে।

বাসাবো বালুর মাঠের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ শেষ করে বিকেল পাঁচটায় পদযাত্রা কর্মসূচি শুরু হয়। যা মালিবাগ কমিউনিটি সেন্টারের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনুর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, উপদেষ্ঠা আবুল খায়ের ভূঁইয়া, আব্দুস সালাম আজাদ, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সারাফত আলী শপু প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

সরকার পতনের মধ্য দিয়ে বিএনপির পদযাত্রা থামবে : মির্জা আব্বাস

আপডেট সময় : ০৫:৩২:৪৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ মে ২০২৩

জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিএনপির পদযাত্রা শুরু হয়েছে, যা ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের বিদায়ের মাধ্যমে শেষ হবে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। তিনি বলেন, এই সরকারের বিরুদ্ধে সব জনগণ যদি ঐক্যবদ্ধভাবে নেমে যায়, ইনশাআল্লাহ তারা টিকে থাকতে পারবে না।

বুধবার (১৭ মে) রাজধানীর বাসাবো বালুর মাঠের সামনে মহানগর দক্ষিণ বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচি পূর্ব সমাবেশে এ মন্তব্য করেন তিনি।

মির্জা আব্বাস বলেন, দেশের মানুষকে সম্পদহীন করেছে এই সরকার। বাংলাদেশ ব্যাংক লুট করেছে। সম্পদ তো লুট করেছে, এখন বাংলাদেশের মানচিত্র নিয়ে খেলাধুলা শুরু করছে। এটা বাংলাদেশের জনগণ কখনও হতে দেবে না। এই দেশ রক্ত দিয়ে অর্জন করা, এই দেশ মুক্তিযোদ্ধাদের দেশ। এই দেশ বিনা রক্তপাতে কখনও কেউ নিতে পারবে না।

শুনছি আবার নাকি গ্যাসের দাম বাড়ানো হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই কয়েকদিন আগে গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছে, এটা মনে হয় তারা ভুলে গেছে। কয়েকদিন আগে তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে, এটাও মনে হয় তারা ভুলে গেছে। কীভাবে দেশে লুটপাট হচ্ছে এটা তারা ভুলে গেছে। নিশি রাতে ভোট ডাকাতি করে ক্ষমতায় এসেছে এটাও তারা ভুলে গেছে। এখন তারা বলে খালেদা জিয়ার আমলে নাকি ভোট চুরি হয়েছে।

সরকারের অত্যাচারের সীমা বয়স্ক মানুষ থেকে বাচ্চা পর্যন্ত চলে গেছে মন্তব্য করে মির্জা আব্বাস বলেন, বাচ্চাদেরকেও ভালো রাখেনি। বাচ্চারা ঘরের মধ্যে থাকতে-থাকতে ফার্মের বাচ্চার মতো হয়ে গেছে। এই বাচ্চারা বড় হবে আন্দোলন করবে, আপনারা গুলি করে মারবেন এমন চিন্তা করবেন না। বাচ্চাদের বড় করা হচ্ছে তারা আপনাদেরকে পরিচালনা করবে।

বাসাবো বালুর মাঠের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ শেষ করে বিকেল পাঁচটায় পদযাত্রা কর্মসূচি শুরু হয়। যা মালিবাগ কমিউনিটি সেন্টারের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনুর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, উপদেষ্ঠা আবুল খায়ের ভূঁইয়া, আব্দুস সালাম আজাদ, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সারাফত আলী শপু প্রমুখ।