ঢাকা ০৩:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাবিপ্রবিতে র‌্যাগিংয়ের অভিযোগ, ৫ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০২:৪৭:০৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ৭২ বার পড়া হয়েছে

কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) নবীন ছাত্রীকে নির্যাতন ও বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) র‌্যাগিংয়ের অভিযোগ উঠেছে।

শাবিপ্রবির নবীন শিক্ষার্থীদের র‍্যাগিং করার অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়টির ৫ জনকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। বহিষ্কৃত ৫ জনই বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী। তবে তাদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. কামরুজ্জামান চৌধুরী বুধবার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের প্রথম সেমিস্টারের নবীন এক শিক্ষার্থী র‍্যাগিংয়ের শিকার হয়ে আমাদের কাছে অভিযোগ করেছে। অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ৫ জনকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

প্রক্টর বলেন, এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনের পর এ বিষয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে তদন্ত কমিটি প্রধান ও ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. খায়রুল ইসলাম বলেন, প্রশাসনের লিখিত নোটিশ পেলে তদন্ত শুরু করবো।

তদন্ত কমিটির অন্যরা হলেন- ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মাজহারুল হাসান মজুমদার, সৈয়দ মুজতবা আলী হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. আবু সায়েদ আরফিন খান নোবেল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রভোস্ট সহকারী অধ্যাপক মনিরুজ্জামান খান ও সহকারী প্রক্টর মিজানুর রহমান।

এ বিষয়ে শাবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, র‍্যাগিংয়ের অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতার ভিত্তিতে অভিযুক্ত ৫ শিক্ষার্থীকে হল ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে৷ অধিকতর তদন্তের জন্য কমিটি গঠন করা হয়েছে৷ সাত কার্যদিবসের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয় বিধি মোতাবেক পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

র‍্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের জিরো টলারেন্সের কথা জানিয়ে উপাচার্য আরও বলেন, এ ক্ষেত্রে কোনো ধরনের ছাড় দেওয়া হবে না। র‍্যাগিংয়ের অভিযোগে আমরা আগেও ২২ জনকে বহিষ্কার করেছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

শাবিপ্রবিতে র‌্যাগিংয়ের অভিযোগ, ৫ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার

আপডেট সময় : ০২:৪৭:০৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) নবীন ছাত্রীকে নির্যাতন ও বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) র‌্যাগিংয়ের অভিযোগ উঠেছে।

শাবিপ্রবির নবীন শিক্ষার্থীদের র‍্যাগিং করার অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়টির ৫ জনকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। বহিষ্কৃত ৫ জনই বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী। তবে তাদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. কামরুজ্জামান চৌধুরী বুধবার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের প্রথম সেমিস্টারের নবীন এক শিক্ষার্থী র‍্যাগিংয়ের শিকার হয়ে আমাদের কাছে অভিযোগ করেছে। অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ৫ জনকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

প্রক্টর বলেন, এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনের পর এ বিষয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে তদন্ত কমিটি প্রধান ও ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. খায়রুল ইসলাম বলেন, প্রশাসনের লিখিত নোটিশ পেলে তদন্ত শুরু করবো।

তদন্ত কমিটির অন্যরা হলেন- ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মাজহারুল হাসান মজুমদার, সৈয়দ মুজতবা আলী হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. আবু সায়েদ আরফিন খান নোবেল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রভোস্ট সহকারী অধ্যাপক মনিরুজ্জামান খান ও সহকারী প্রক্টর মিজানুর রহমান।

এ বিষয়ে শাবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, র‍্যাগিংয়ের অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতার ভিত্তিতে অভিযুক্ত ৫ শিক্ষার্থীকে হল ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে৷ অধিকতর তদন্তের জন্য কমিটি গঠন করা হয়েছে৷ সাত কার্যদিবসের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয় বিধি মোতাবেক পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

র‍্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের জিরো টলারেন্সের কথা জানিয়ে উপাচার্য আরও বলেন, এ ক্ষেত্রে কোনো ধরনের ছাড় দেওয়া হবে না। র‍্যাগিংয়ের অভিযোগে আমরা আগেও ২২ জনকে বহিষ্কার করেছি।