ঢাকা ১২:৪৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রাত পোহালেই ঢাকা-১৭ আসনে ভোট, নেই উত্তাপ

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৬:১৩:৫০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুলাই ২০২৩ ৪০ বার পড়া হয়েছে

রাত পোহালেই রাজধানীর অভিজাত এলাকা খ্যাত ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ। পাঁচ মাসের জন্য এমপি নির্বাচিত করতে এদিন ভোট দেবেন গুলশান-বনানীর বাসিন্দারা। তবে এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নেই তেমন কোনো উত্তাপ। ভোটের আমেজও খুব একটা চোখে পড়েনি।

ঢাকা-১৭ আসনে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ব্যালটের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ চলবে। এছাড়াও এদিন দেশের মোট ৭৮টি পৌরসভা ও ইউনিয়নেও নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

ইতোমধ্যে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম। প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা। নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচনে আটজন প্রতিদ্বন্দ্বী। এর মধ্যে অন্যতম তিন প্রার্থীকে এগিয়ে রাখছেন স্থানীয় ভোটাররা। আওয়ামী লীগের প্রার্থী অধ্যাপক মোহম্মদ এ. আরাফাত, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আশরাফুল আলম (হিরো আলম) এবং জাতীয় পার্টির প্রার্থী সিকদার আনিসুর রহমান। তাদের তিনজনের মধ্যে মূল প্রতিযোগিতা হবে বলে ধারণা করছেন ভোটাররা।

উপনির্বাচনে অংশ নেওয়া অপর প্রতিদ্বন্দ্বীরা হলেন, জাকের পার্টির কাজী মো. রাশিদুল হাসান, তৃণমূল বিএনপির শেখ হাবিবুর রহমান, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. তারিকুল ইসলাম, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. রেজাউল ইসলাম স্বপন ও বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তি জোটের মো. আকবর হোসেন।

এই আসনের মোট ভোটার তিন লাখ ২৫ হাজার ২০৫ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার এক লাখ ৫৩ হাজার ৫৮০। ১২৪টি ভোটকেন্দ্রের ৬০৫টি ভোটকক্ষে ভোট গ্রহণ করা হবে।

ঢাকা-১৭ রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মুনীর হোসাইন খান ঢাকা মেইলকে রাতে জানিয়েছেন, ভোটগ্রহণের সবধরনের প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। কেন্দ্রে কেন্দ্রে ব্যালট ছাড়া সবকিছু পৌঁছানো হয়েছে। ব্যালট সকালে পাঠানো হবে।

এই কর্মকর্তা বলেন, আমাদের ১২৪টি ভোটকেন্দ্র রয়েছে এবং সুন্দর একটি নির্বাচন হবে। কোথাও কোনো কেন্দ্র নিয়ে এখন পর্যন্ত আমরা কোনো ধরনের আশঙ্কা করছি না। জাতীয় নির্বাচনের আগে এটি একটি মডেল নির্বাচন হবে বলেও জানান তিনি।

নৌকার প্রার্থীর দফতর সেলের প্রধান সমন্নয়ক উইলিয়াম প্রলয় সমাদ্দার বাপ্পি ঢাকা মেইলকে বলেন, ভোটের দিন সকাল ১০টায় গুলশান মডেল হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে ভোট দেবেন নৌকার প্রার্থী মোহম্মদ এ. আরাফাত। মানুষের কাছে গিয়ে নির্বাচন প্রচারণা চালানো হয়েছে ফলে ভালো ফলাফলের ব্যাপারে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এদিকে এই আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আলোচিত ইউটিউবার আশরাফুল আলম হিরো আলম নিজেই নিজেকে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন না। কারণ তিনি এই আসনের ভোটার নন। নিজ এলাকা বগুড়ার ভোটার তিনি।

হিরো আলমের সহকারী পরিচয় দেওয়া শুভ ঢাকা মেইলকে বলেন, ‘হিরো আলম বগুড়ার ভোটার। তাই ঢাকায় ভোট দিতে পারবেন না। তবে ভোটের দিন আমরা সব কেন্দ্রে যাওয়ার চেষ্টা করব।’ ভোট সুষ্ঠু হলে একতারা মার্কা নিয়ে হিরো আলম বিজয়ী হবেন বলেও আশা তার এই সহকারীর।

এর আগে শনিবার মধ্যরাতে নির্বাচনী প্রচার বন্ধ হয়। সেই সাথে মোটরসাইকেল চালাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। রোববার রাত ১২টার পর থেকে নির্বাচনী এলাকায় সাধারণভাবে ট্রাক, মিনিবাস, মাইক্রোবাস, জিপ, পিকআপ, কার ও ইজি বাইক চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। তবে মহাসড়কগুলো এ নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকছে।

এছাড়া নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারী, নির্বাচন পর্যবেক্ষক ও সাংবাদিক, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী এবং জরুরি সেবার কাজে ব্যবহৃত যানবাহনের ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা শিথিল থাকবে।

ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচন উপলক্ষে ভোটকেন্দ্রে পুলিশ ও আনসার সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। রোববার সকালে মিরপুর পিওএম পুলিশ লাইনস মাঠে ভোটকেন্দ্রে নিয়োজিত পুলিশ ও আনসার সদস্যদের করণীয় এবং বর্জনীয় বিষয়ে ব্রিফিং করা হয়েছে। ব্রিফিংয়ে পুলিশ ও আনসার সদস্যদের সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন এবং সরকারি ও ব্যক্তিগত সম্পদের প্রতি সতর্ক থাকার নির্দেশনা দেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশনস) ড. খ. মহিদ উদ্দিন।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে যাতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি না ঘটে সে লক্ষ্যে সবাইকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান তিনি।

ব্রিফিংয়ে ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও ঢাকার জ্যেষ্ঠ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মুনীর হোসাইন খানসহ ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন পদমর্যাদার কর্মকর্তা ও ফোর্সরা উপস্থিত ছিলেন।

রাজধানীর গুলশান, বনানী, ভাসানটেক থানা ও সেনানিবাস এলাকা নিয়ে গঠিত ঢাকা-১৭ আসন। গত ১৫ মে চিত্রনায়ক আকবর হোসেন পাঠান (ফারুক) মারা যাওয়ার পর আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

রাত পোহালেই ঢাকা-১৭ আসনে ভোট, নেই উত্তাপ

আপডেট সময় : ০৬:১৩:৫০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুলাই ২০২৩

রাত পোহালেই রাজধানীর অভিজাত এলাকা খ্যাত ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ। পাঁচ মাসের জন্য এমপি নির্বাচিত করতে এদিন ভোট দেবেন গুলশান-বনানীর বাসিন্দারা। তবে এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নেই তেমন কোনো উত্তাপ। ভোটের আমেজও খুব একটা চোখে পড়েনি।

ঢাকা-১৭ আসনে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ব্যালটের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ চলবে। এছাড়াও এদিন দেশের মোট ৭৮টি পৌরসভা ও ইউনিয়নেও নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

ইতোমধ্যে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম। প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা। নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচনে আটজন প্রতিদ্বন্দ্বী। এর মধ্যে অন্যতম তিন প্রার্থীকে এগিয়ে রাখছেন স্থানীয় ভোটাররা। আওয়ামী লীগের প্রার্থী অধ্যাপক মোহম্মদ এ. আরাফাত, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আশরাফুল আলম (হিরো আলম) এবং জাতীয় পার্টির প্রার্থী সিকদার আনিসুর রহমান। তাদের তিনজনের মধ্যে মূল প্রতিযোগিতা হবে বলে ধারণা করছেন ভোটাররা।

উপনির্বাচনে অংশ নেওয়া অপর প্রতিদ্বন্দ্বীরা হলেন, জাকের পার্টির কাজী মো. রাশিদুল হাসান, তৃণমূল বিএনপির শেখ হাবিবুর রহমান, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. তারিকুল ইসলাম, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. রেজাউল ইসলাম স্বপন ও বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তি জোটের মো. আকবর হোসেন।

এই আসনের মোট ভোটার তিন লাখ ২৫ হাজার ২০৫ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার এক লাখ ৫৩ হাজার ৫৮০। ১২৪টি ভোটকেন্দ্রের ৬০৫টি ভোটকক্ষে ভোট গ্রহণ করা হবে।

ঢাকা-১৭ রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মুনীর হোসাইন খান ঢাকা মেইলকে রাতে জানিয়েছেন, ভোটগ্রহণের সবধরনের প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। কেন্দ্রে কেন্দ্রে ব্যালট ছাড়া সবকিছু পৌঁছানো হয়েছে। ব্যালট সকালে পাঠানো হবে।

এই কর্মকর্তা বলেন, আমাদের ১২৪টি ভোটকেন্দ্র রয়েছে এবং সুন্দর একটি নির্বাচন হবে। কোথাও কোনো কেন্দ্র নিয়ে এখন পর্যন্ত আমরা কোনো ধরনের আশঙ্কা করছি না। জাতীয় নির্বাচনের আগে এটি একটি মডেল নির্বাচন হবে বলেও জানান তিনি।

নৌকার প্রার্থীর দফতর সেলের প্রধান সমন্নয়ক উইলিয়াম প্রলয় সমাদ্দার বাপ্পি ঢাকা মেইলকে বলেন, ভোটের দিন সকাল ১০টায় গুলশান মডেল হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে ভোট দেবেন নৌকার প্রার্থী মোহম্মদ এ. আরাফাত। মানুষের কাছে গিয়ে নির্বাচন প্রচারণা চালানো হয়েছে ফলে ভালো ফলাফলের ব্যাপারে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এদিকে এই আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আলোচিত ইউটিউবার আশরাফুল আলম হিরো আলম নিজেই নিজেকে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন না। কারণ তিনি এই আসনের ভোটার নন। নিজ এলাকা বগুড়ার ভোটার তিনি।

হিরো আলমের সহকারী পরিচয় দেওয়া শুভ ঢাকা মেইলকে বলেন, ‘হিরো আলম বগুড়ার ভোটার। তাই ঢাকায় ভোট দিতে পারবেন না। তবে ভোটের দিন আমরা সব কেন্দ্রে যাওয়ার চেষ্টা করব।’ ভোট সুষ্ঠু হলে একতারা মার্কা নিয়ে হিরো আলম বিজয়ী হবেন বলেও আশা তার এই সহকারীর।

এর আগে শনিবার মধ্যরাতে নির্বাচনী প্রচার বন্ধ হয়। সেই সাথে মোটরসাইকেল চালাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। রোববার রাত ১২টার পর থেকে নির্বাচনী এলাকায় সাধারণভাবে ট্রাক, মিনিবাস, মাইক্রোবাস, জিপ, পিকআপ, কার ও ইজি বাইক চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। তবে মহাসড়কগুলো এ নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকছে।

এছাড়া নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারী, নির্বাচন পর্যবেক্ষক ও সাংবাদিক, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী এবং জরুরি সেবার কাজে ব্যবহৃত যানবাহনের ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা শিথিল থাকবে।

ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচন উপলক্ষে ভোটকেন্দ্রে পুলিশ ও আনসার সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। রোববার সকালে মিরপুর পিওএম পুলিশ লাইনস মাঠে ভোটকেন্দ্রে নিয়োজিত পুলিশ ও আনসার সদস্যদের করণীয় এবং বর্জনীয় বিষয়ে ব্রিফিং করা হয়েছে। ব্রিফিংয়ে পুলিশ ও আনসার সদস্যদের সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন এবং সরকারি ও ব্যক্তিগত সম্পদের প্রতি সতর্ক থাকার নির্দেশনা দেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশনস) ড. খ. মহিদ উদ্দিন।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে যাতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি না ঘটে সে লক্ষ্যে সবাইকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান তিনি।

ব্রিফিংয়ে ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও ঢাকার জ্যেষ্ঠ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মুনীর হোসাইন খানসহ ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন পদমর্যাদার কর্মকর্তা ও ফোর্সরা উপস্থিত ছিলেন।

রাজধানীর গুলশান, বনানী, ভাসানটেক থানা ও সেনানিবাস এলাকা নিয়ে গঠিত ঢাকা-১৭ আসন। গত ১৫ মে চিত্রনায়ক আকবর হোসেন পাঠান (ফারুক) মারা যাওয়ার পর আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়।