ঢাকা ০২:০৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রাজশাহী মহানগর আ.লীগের সম্পাদক ডাবলু সরকারের অপসরণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল

সোহরাব হোসেন সৌরভ, রাজশাহী ||
  • আপডেট সময় : ০১:৩৫:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ মার্চ ২০২৩ ৬৫ বার পড়া হয়েছে

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারের অপসরণের দাবিতে এবার ‘রাজশাহী আওয়ামী পরিবারের’ ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করা হয়েছে। আজ শনিবার দুপুরে রাজশাহী মহানগরীর জিরোপয়েন্টে এ বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করা হয়। বিক্ষোভ মিছিল থেকে ডাবলু সরকারকে দল থেকে বহিস্কারের দাবি জানানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আওয়ামী পরিবারের ব্যানারে প্রায় ৫ শতাধিক লোকজন নগরীর জিরোপয়েন্টের বড় মসজিদের সামনে জড় হয়। সেখান থেকে জিরোপয়েন্টে ডাবলু সরকারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ডাবলু সরকার রাজশাহীর রাজনীতিতে বিপদজনক। তাকে দলে রাখলে দলের ভাবমুর্তি নষ্ট হবে। মানববন্ধনে বক্তারা ডাবলু সরকারের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। এছাড়াও ছোট ছোট ব্যানারে ডাবলু সরকারকে গডফাদার উল্লেখ করে তার বিচার দাবি করা হয়।

মানববন্ধন শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর জিরোপয়েন্ট থেকে শুরু হয়। মিছিলটি সোনাদিঘী মোড় গিয়ে শেষ হয়। বিক্ষোভ মিছিলের ব্যানারে লেখা ছিল, ডাবলু সরকারের নোংরা ভিডিও রাজনীতিতে অশনি সংকেট ও সমাজের জন্য বিপদজনক। অবিলম্বে ডাবলু সরকারকে রাজনীতি থেকে অপসরণ করতে হবে।

বিক্ষোভ ও মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, ছাত্রমৈত্রী, কেন্দ্রীয় কমিটি সাবেক সহ-সভাপতি ও বর্তমান আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাড. আবু রায়হান মাসুদ, রাজপাড়া থানা সাবেক কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক বুলবুল, সাবেক ছাত্রনেতা সিরাজি কয়েল, সাবেক ছাত্রনেতা ও ক্রীড়া সংগঠক এস এম রবিউল ইসলাম, সাবেক ছাত্রনেতা বেলায়েত হোসেন বেলালসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

এরআগে গত ২ মার্চ নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারের অবসারণ দাবিতে সচেতন রাজশাহীবাসীর ব্যানারে নগরীর জিরোপয়েন্টে মানববন্ধন করা হয়। এদিন মানববন্ধন চলাকালীন সময়ে কিছু ব্যক্তি সেখানে উপস্থিত হয়ে মানববন্ধনের বাধা দেয় ও ব্যানার ছিনিয়ে নেয়। এসময় মানববন্ধনকারীদের সাথে তাদের ধাক্কা-ধাক্কির ঘটনাও ঘটে।

প্রসঙ্গত, গত ১৭ই ফেব্রুয়ারি ডাবলু সরকারের একটি ৩ মিনিট ২৬ সেকেন্ডের আপত্তিকর ভিডিও নেট দুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। এ কারণেই রাজশাহী মহানগর উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

রাজশাহী মহানগর আ.লীগের সম্পাদক ডাবলু সরকারের অপসরণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল

আপডেট সময় : ০১:৩৫:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ মার্চ ২০২৩

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারের অপসরণের দাবিতে এবার ‘রাজশাহী আওয়ামী পরিবারের’ ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করা হয়েছে। আজ শনিবার দুপুরে রাজশাহী মহানগরীর জিরোপয়েন্টে এ বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করা হয়। বিক্ষোভ মিছিল থেকে ডাবলু সরকারকে দল থেকে বহিস্কারের দাবি জানানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আওয়ামী পরিবারের ব্যানারে প্রায় ৫ শতাধিক লোকজন নগরীর জিরোপয়েন্টের বড় মসজিদের সামনে জড় হয়। সেখান থেকে জিরোপয়েন্টে ডাবলু সরকারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ডাবলু সরকার রাজশাহীর রাজনীতিতে বিপদজনক। তাকে দলে রাখলে দলের ভাবমুর্তি নষ্ট হবে। মানববন্ধনে বক্তারা ডাবলু সরকারের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। এছাড়াও ছোট ছোট ব্যানারে ডাবলু সরকারকে গডফাদার উল্লেখ করে তার বিচার দাবি করা হয়।

মানববন্ধন শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর জিরোপয়েন্ট থেকে শুরু হয়। মিছিলটি সোনাদিঘী মোড় গিয়ে শেষ হয়। বিক্ষোভ মিছিলের ব্যানারে লেখা ছিল, ডাবলু সরকারের নোংরা ভিডিও রাজনীতিতে অশনি সংকেট ও সমাজের জন্য বিপদজনক। অবিলম্বে ডাবলু সরকারকে রাজনীতি থেকে অপসরণ করতে হবে।

বিক্ষোভ ও মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, ছাত্রমৈত্রী, কেন্দ্রীয় কমিটি সাবেক সহ-সভাপতি ও বর্তমান আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাড. আবু রায়হান মাসুদ, রাজপাড়া থানা সাবেক কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক বুলবুল, সাবেক ছাত্রনেতা সিরাজি কয়েল, সাবেক ছাত্রনেতা ও ক্রীড়া সংগঠক এস এম রবিউল ইসলাম, সাবেক ছাত্রনেতা বেলায়েত হোসেন বেলালসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

এরআগে গত ২ মার্চ নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারের অবসারণ দাবিতে সচেতন রাজশাহীবাসীর ব্যানারে নগরীর জিরোপয়েন্টে মানববন্ধন করা হয়। এদিন মানববন্ধন চলাকালীন সময়ে কিছু ব্যক্তি সেখানে উপস্থিত হয়ে মানববন্ধনের বাধা দেয় ও ব্যানার ছিনিয়ে নেয়। এসময় মানববন্ধনকারীদের সাথে তাদের ধাক্কা-ধাক্কির ঘটনাও ঘটে।

প্রসঙ্গত, গত ১৭ই ফেব্রুয়ারি ডাবলু সরকারের একটি ৩ মিনিট ২৬ সেকেন্ডের আপত্তিকর ভিডিও নেট দুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। এ কারণেই রাজশাহী মহানগর উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।