ঢাকা ০৭:৩৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রমজান মাসে শান্তি আলোচনায় ইসরায়েল-ফিলিস্তিন বৈঠক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৯:১৪:৫৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মার্চ ২০২৩ ৭২ বার পড়া হয়েছে

দুই-তিনদিন পরেই শুরু হচ্ছে মুসলমানদের পবিত্র ধর্মীয় মাস রমজান। তাই পবিত্র রমজান মাসকে ঘিরে সহিংসতা এড়াতে এবং শান্তি বজায় রাখতে ইসরাইল ও ফিলিস্তিনি কর্মকর্তাদের মধ্যে একটি বৈঠকের আয়োজন করেছে মিশর।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

মিশরের রিসোর্ট নগরী শার্ম আল-শেখ এ রোববার (১৯ মার্চ) বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। এ বৈঠকে সমর্থন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও জর্ডান। মূলত ২৬ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় জর্ডানে একটি সম্মেলনের পর পাঁচ পক্ষের এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

মিসরের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, আলোচনার লক্ষ্য ‘ এ বৈঠকের লক্ষ্য হলো ফিলিস্তিনি ও ইসরায়েলি পক্ষের মধ্যে সংলাপকে সমর্থন করে এর মাধ্যমে একতরফা পদক্ষেপ ও উত্তেজনা বন্ধ করার চেষ্টা করা। এটি শান্তি প্রক্রিয়া পুনরায় শুরু করার জন্য একটি অনুকূল পরিবেশ তৈরি করতে সাহায্য করতে পারে।

ইসরায়েলি মিডিয়ার তথ্যমতে, ইসরায়েলি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জাচি হানেগবি, সাথে গোয়েন্দা (শিন বেট) প্রধান রনেন বার এবং সামরিক জেনারেল ঘাসান আলিয়ান রয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

রমজান মাসে শান্তি আলোচনায় ইসরায়েল-ফিলিস্তিন বৈঠক

আপডেট সময় : ০৯:১৪:৫৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মার্চ ২০২৩

দুই-তিনদিন পরেই শুরু হচ্ছে মুসলমানদের পবিত্র ধর্মীয় মাস রমজান। তাই পবিত্র রমজান মাসকে ঘিরে সহিংসতা এড়াতে এবং শান্তি বজায় রাখতে ইসরাইল ও ফিলিস্তিনি কর্মকর্তাদের মধ্যে একটি বৈঠকের আয়োজন করেছে মিশর।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

মিশরের রিসোর্ট নগরী শার্ম আল-শেখ এ রোববার (১৯ মার্চ) বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। এ বৈঠকে সমর্থন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও জর্ডান। মূলত ২৬ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় জর্ডানে একটি সম্মেলনের পর পাঁচ পক্ষের এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

মিসরের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, আলোচনার লক্ষ্য ‘ এ বৈঠকের লক্ষ্য হলো ফিলিস্তিনি ও ইসরায়েলি পক্ষের মধ্যে সংলাপকে সমর্থন করে এর মাধ্যমে একতরফা পদক্ষেপ ও উত্তেজনা বন্ধ করার চেষ্টা করা। এটি শান্তি প্রক্রিয়া পুনরায় শুরু করার জন্য একটি অনুকূল পরিবেশ তৈরি করতে সাহায্য করতে পারে।

ইসরায়েলি মিডিয়ার তথ্যমতে, ইসরায়েলি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জাচি হানেগবি, সাথে গোয়েন্দা (শিন বেট) প্রধান রনেন বার এবং সামরিক জেনারেল ঘাসান আলিয়ান রয়েছেন।