ঢাকা ০১:১৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভারতে এক রুপি পেঁয়াজ, দেড় রুপি কেজি আলু!

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ১২:৩৪:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ৮৬ বার পড়া হয়েছে

ভারতে আলু ও পেঁয়াজ চাষ করে বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা। পেঁয়াজ কেজিপ্রতি এক রুপি করে বিক্রি করছেন তারা। অপরদিকে পাইকারিতে আলু বিক্রি করতে হচ্ছে দেড় রুপিতে। এমন অবস্থায় মাথায় হাত কৃষকদের। তাদের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছে।

ভারতের মহারাষ্ট্রে পেঁয়াজের ফলন ভালো হয়েছে। এতটাই বেশি ফলন হয়েছে যে অনেক পেঁয়াজ গুদাম ঘরে পচছে। খুব অল্প দামেই ফসল বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন কৃষকরা। এমন অবস্থায় ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল কো-অপারেটিভ মার্কেটিং ফেডারেশন অব ইন্ডিয়াকে কেন্দ্রের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যাতে নাসিকের থেকে বাড়তি পেঁয়াজ নিয়ে অন্যান্য রাজ্যে বিক্রি করা হয়।

সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে একটি বিলের ছবি ভাইরাল হয়েছে। তাতে দেখা গেছে ৮২৫ কেজি পেঁয়াজ বিক্রি করে কৃষকের ১ রুপি আরও নিজের পকেট থেকে দিতে হয়েছে। কারণ তিনি পেঁয়াজ বিক্রি করেছিলেন ৮২৫ রুপি। আর এই পেঁয়াজ বাজারে নিতে পরিবহনসহ তার খরচ হয় ৮২৬ রুপি।

সম্প্রতি আরেক চাষী ৫১২ কেজি পেঁয়াজ বিক্রি করে সব খরচ বাদ দিয়ে দুই রুপির একটি চেক পান। সেটিও তিনি ১৫ দিনের আগে তুলতে পারবেন না।

আরও পড়ুন: ৭০ কি.মি. গিয়ে ৫‌১২ কেজি পেঁয়াজ বিক্রি, মিলল ২ রুপি!

এদিকে পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চলের চাষিরা আলু চাষ করে একই ধরনের বিপাকে পড়েছেন। উত্তরবঙ্গের জেলায় জেলায় আলু চাষিদের মধ্যে ক্ষোভ ক্রমশ বাড়ছে। উত্তরের একাধিক জেলায় আলু বিক্রি করে চাষিরা কেজি প্রতি মাত্র দেড় রুপি থেকে আড়াই রুপি করে পাচ্ছেন।

উত্তরবঙ্গে ধূপগুড়ি, মালদা, কোচবিহারের একাংশে আলুর ভালো ফলন হয়। কিন্তু সেই আলুর দাম একেবারে তলানিতে। সম্প্রতি কোচবিহারের ২ ব্লকের পুণ্ডিবাড়িতে উত্তর বঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে জাতীয় সড়কে আলু ফেলে দেন কৃষকরা। আলু বিক্রি করতে এসে দাম না পেয়েই তাঁরা আলু রাস্তায় ফেলেন।

এমন অবস্থায় চাষিরা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। তারা জানিয়েছেন, বিশ্বজুড়ে আলু পেঁয়াজের সংকট চলছে। বিভিন্ন দেশে এগুলো রফতানি করলে কিছুটা দাম পাবেন তারা। এতে লাভ না হলেও অন্তত খরচটা উঠে আসবে।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ভারতে এক রুপি পেঁয়াজ, দেড় রুপি কেজি আলু!

আপডেট সময় : ১২:৩৪:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

ভারতে আলু ও পেঁয়াজ চাষ করে বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা। পেঁয়াজ কেজিপ্রতি এক রুপি করে বিক্রি করছেন তারা। অপরদিকে পাইকারিতে আলু বিক্রি করতে হচ্ছে দেড় রুপিতে। এমন অবস্থায় মাথায় হাত কৃষকদের। তাদের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছে।

ভারতের মহারাষ্ট্রে পেঁয়াজের ফলন ভালো হয়েছে। এতটাই বেশি ফলন হয়েছে যে অনেক পেঁয়াজ গুদাম ঘরে পচছে। খুব অল্প দামেই ফসল বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন কৃষকরা। এমন অবস্থায় ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল কো-অপারেটিভ মার্কেটিং ফেডারেশন অব ইন্ডিয়াকে কেন্দ্রের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যাতে নাসিকের থেকে বাড়তি পেঁয়াজ নিয়ে অন্যান্য রাজ্যে বিক্রি করা হয়।

সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে একটি বিলের ছবি ভাইরাল হয়েছে। তাতে দেখা গেছে ৮২৫ কেজি পেঁয়াজ বিক্রি করে কৃষকের ১ রুপি আরও নিজের পকেট থেকে দিতে হয়েছে। কারণ তিনি পেঁয়াজ বিক্রি করেছিলেন ৮২৫ রুপি। আর এই পেঁয়াজ বাজারে নিতে পরিবহনসহ তার খরচ হয় ৮২৬ রুপি।

সম্প্রতি আরেক চাষী ৫১২ কেজি পেঁয়াজ বিক্রি করে সব খরচ বাদ দিয়ে দুই রুপির একটি চেক পান। সেটিও তিনি ১৫ দিনের আগে তুলতে পারবেন না।

আরও পড়ুন: ৭০ কি.মি. গিয়ে ৫‌১২ কেজি পেঁয়াজ বিক্রি, মিলল ২ রুপি!

এদিকে পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চলের চাষিরা আলু চাষ করে একই ধরনের বিপাকে পড়েছেন। উত্তরবঙ্গের জেলায় জেলায় আলু চাষিদের মধ্যে ক্ষোভ ক্রমশ বাড়ছে। উত্তরের একাধিক জেলায় আলু বিক্রি করে চাষিরা কেজি প্রতি মাত্র দেড় রুপি থেকে আড়াই রুপি করে পাচ্ছেন।

উত্তরবঙ্গে ধূপগুড়ি, মালদা, কোচবিহারের একাংশে আলুর ভালো ফলন হয়। কিন্তু সেই আলুর দাম একেবারে তলানিতে। সম্প্রতি কোচবিহারের ২ ব্লকের পুণ্ডিবাড়িতে উত্তর বঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে জাতীয় সড়কে আলু ফেলে দেন কৃষকরা। আলু বিক্রি করতে এসে দাম না পেয়েই তাঁরা আলু রাস্তায় ফেলেন।

এমন অবস্থায় চাষিরা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। তারা জানিয়েছেন, বিশ্বজুড়ে আলু পেঁয়াজের সংকট চলছে। বিভিন্ন দেশে এগুলো রফতানি করলে কিছুটা দাম পাবেন তারা। এতে লাভ না হলেও অন্তত খরচটা উঠে আসবে।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস