ঢাকা ১২:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিএনপিকে আলোচনায় ডাকার কারণ জানালেন ইসি আহসান হাবিব

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৮:০৪:০৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মার্চ ২০২৩ ৫৬ বার পড়া হয়েছে

শুরু থেকেই বিএনপি বর্তমান নির্বাচন কমিশনের কোনো আহ্বানে সাড়া দেয়নি। এই কমিশনের অধীনে নির্বাচনে না যাওয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন দলটির নেতারা। এরপরও গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হঠাৎ করে নির্বাচন কমিশন থেকে জানানো হয়, আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপির সঙ্গে অনানুষ্ঠানিক আলোচনায় বসতে চায় তারা।

আমন্ত্রণ জানিয়ে বিএনপি মহাসচিবকে চিঠি দেওয়ার পর যখন নানা প্রশ্ন জড়ো হয়েছে রাজনীতির ভেতরে-বাইরে তখন আমন্ত্রণের কারণ জানিয়ে এক বিবৃতি দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মো. আহসান হাবিব খান। তিনি জানিয়েছেন, বিএনপিকে আমন্ত্রণ জানানোর বিষয়টি হঠাৎ করে হয়নি।

শনিবার (২৫ মার্চ) সকালে পাঠানো ‍বিবৃতিতে নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবিব জানান, ‘বিএনপিকে আমন্ত্রণ জানানোর সিদ্ধান্ত হঠাৎ করে হয়নি। কমিশন সার্বিকভাবে আলোচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর আগেও বিএনপিকে একাধিকবার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। বর্তমান কমিশন দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই অংশগ্রহণমূলক ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচনের কথা অনুধাবন করে আলোচনার ওপর গুরুত্ব আরোপ করে আসছে।’

বিবৃতিতে বলা হয়, ইসি মনে করে বিএনপির মতো নিবন্ধিত অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক না হোক অনানুষ্ঠানিক মতবিনিময় হতেই পারে। বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলে নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হওয়ার সম্ভাবনা কিছুটা হলেও কমে যাবে।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনকে অর্থবহ করার জন্য বিএনপিকে অনানুষ্ঠানিক মতবিনিময় এবং আলোচনার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে যা বর্তমান নির্বাচন কমিশনের আন্তরিকতা ও সদিচ্ছারই বহিঃপ্রকাশ।’

যদিও বিএনপিকে দেওয়া চিঠিতে আলোচনার দিনক্ষণ উল্লেখ করা হয়নি। বিএনপিকে সিদ্ধান্ত নিয়ে জানানোর কথা বলে হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

বিএনপিকে আলোচনায় ডাকার কারণ জানালেন ইসি আহসান হাবিব

আপডেট সময় : ০৮:০৪:০৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মার্চ ২০২৩

শুরু থেকেই বিএনপি বর্তমান নির্বাচন কমিশনের কোনো আহ্বানে সাড়া দেয়নি। এই কমিশনের অধীনে নির্বাচনে না যাওয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন দলটির নেতারা। এরপরও গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হঠাৎ করে নির্বাচন কমিশন থেকে জানানো হয়, আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপির সঙ্গে অনানুষ্ঠানিক আলোচনায় বসতে চায় তারা।

আমন্ত্রণ জানিয়ে বিএনপি মহাসচিবকে চিঠি দেওয়ার পর যখন নানা প্রশ্ন জড়ো হয়েছে রাজনীতির ভেতরে-বাইরে তখন আমন্ত্রণের কারণ জানিয়ে এক বিবৃতি দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মো. আহসান হাবিব খান। তিনি জানিয়েছেন, বিএনপিকে আমন্ত্রণ জানানোর বিষয়টি হঠাৎ করে হয়নি।

শনিবার (২৫ মার্চ) সকালে পাঠানো ‍বিবৃতিতে নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবিব জানান, ‘বিএনপিকে আমন্ত্রণ জানানোর সিদ্ধান্ত হঠাৎ করে হয়নি। কমিশন সার্বিকভাবে আলোচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর আগেও বিএনপিকে একাধিকবার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। বর্তমান কমিশন দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই অংশগ্রহণমূলক ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচনের কথা অনুধাবন করে আলোচনার ওপর গুরুত্ব আরোপ করে আসছে।’

বিবৃতিতে বলা হয়, ইসি মনে করে বিএনপির মতো নিবন্ধিত অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক না হোক অনানুষ্ঠানিক মতবিনিময় হতেই পারে। বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলে নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হওয়ার সম্ভাবনা কিছুটা হলেও কমে যাবে।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনকে অর্থবহ করার জন্য বিএনপিকে অনানুষ্ঠানিক মতবিনিময় এবং আলোচনার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে যা বর্তমান নির্বাচন কমিশনের আন্তরিকতা ও সদিচ্ছারই বহিঃপ্রকাশ।’

যদিও বিএনপিকে দেওয়া চিঠিতে আলোচনার দিনক্ষণ উল্লেখ করা হয়নি। বিএনপিকে সিদ্ধান্ত নিয়ে জানানোর কথা বলে হয়েছে।