ঢাকা ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাফুফের ডাকে সাড়া দিচ্ছেন না ছোটন

ক্রীড়া ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৯:১১:৩৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৭ মে ২০২৩ ৬৯ বার পড়া হয়েছে

হঠাৎ করেই বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বাফুফের সঙ্গে আর কাজ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। পরবর্তীতে তাকে ছাড়াই আজ (২৭ মে) অনুশীলন করেছেন সাবিনা খাতুনরা। তবে দুপুরে বাফুফের নারী উইংয়ের চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ ছোটনকে কাজে ফেরার অনুরোধ জানিয়েছিলেন। কিন্তু সেই অনুরোধে অনুরোধে সাড়া দেননি অসন্তোষ নিয়ে বিদায় নিতে চাওয়া ছোটন।

মাহফুজা আক্তার কিরণের সঙ্গে আলাপের পর ছোটন বলেন, ‘কিরণ আপা আমার অত্যন্ত প্রিয় ও শ্রদ্ধেয় একজন মানুষ। তার প্রতি আমার সম্মান ও ভালোবাসা আগের অবস্থানেই রয়েছে, তবে আমি আমার সিদ্ধান্তে অটল।’

আলোচনার জন্য কিরণ ছোটনকে ফেডারেশনে আসার অনুরোধ করেছিলেন। কিন্তু আজ ফেডারেশনে না যাওয়ার কথা জানিয়ে ছোটন বলেছেন তিনি আর অনুশীলন করাবেন না।

কিরণ ছাড়াও বাফুফের অন্যান্য স্টাফরাও ছোটনকে কাজে ফেরার অনুরোধ জানিয়েছেন। সবার অনুরোধই প্রত্যাখ্যান করেছেন তিনি। বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন অনুরোধ করলেও তিনি তার অবস্থান পরিবর্তন করবেন না বলে জানান, ‘সভাপতি অত্যন্ত শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিত্ব, কিন্তু আমার ব্যক্তি স্বাধীনতা রয়েছে। আমি আর কাজ করতে চাই না। সেই অবস্থানেই থাকব।’

মে মাসের শেষ সপ্তাহ চললেও, এখনও এপ্রিল মাসের সম্মানী পাননি ছোটন। ৩১ মে পর্যন্ত তিনি ফেডারেশনের সঙ্গে থাকলেও অনুশীলনে যাবেন না। আগামীকাল বাংলাদেশ ক্রীড়া লেখক সমিতির অনুষ্ঠানে সেরা কোচের পুরস্কার গ্রহণের পরদিন (২৯ মে) ফেডারেশনে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দেশের ফুটবলের এই পরিচিত মুখ।

জানা গেছে, ছোটন পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার পর বাফুফে ছাড়তে পারেন তার দুই সহকারী লিটু এবং অনন্যাও। বাফুফের ব্রিটিশ টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পল স্মলি কয়েক দফা বিদায়ের কথা বলেছেন নিজের মুখেই। অথচ খেলোয়াড় ও কোচিং স্টাফদের কাছ থেকে বিদায় নিয়েও, বেতন নিয়ে দর-কষাকষি করে আবার থেকে যাচ্ছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বাফুফের ডাকে সাড়া দিচ্ছেন না ছোটন

আপডেট সময় : ০৯:১১:৩৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৭ মে ২০২৩

হঠাৎ করেই বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বাফুফের সঙ্গে আর কাজ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। পরবর্তীতে তাকে ছাড়াই আজ (২৭ মে) অনুশীলন করেছেন সাবিনা খাতুনরা। তবে দুপুরে বাফুফের নারী উইংয়ের চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ ছোটনকে কাজে ফেরার অনুরোধ জানিয়েছিলেন। কিন্তু সেই অনুরোধে অনুরোধে সাড়া দেননি অসন্তোষ নিয়ে বিদায় নিতে চাওয়া ছোটন।

মাহফুজা আক্তার কিরণের সঙ্গে আলাপের পর ছোটন বলেন, ‘কিরণ আপা আমার অত্যন্ত প্রিয় ও শ্রদ্ধেয় একজন মানুষ। তার প্রতি আমার সম্মান ও ভালোবাসা আগের অবস্থানেই রয়েছে, তবে আমি আমার সিদ্ধান্তে অটল।’

আলোচনার জন্য কিরণ ছোটনকে ফেডারেশনে আসার অনুরোধ করেছিলেন। কিন্তু আজ ফেডারেশনে না যাওয়ার কথা জানিয়ে ছোটন বলেছেন তিনি আর অনুশীলন করাবেন না।

কিরণ ছাড়াও বাফুফের অন্যান্য স্টাফরাও ছোটনকে কাজে ফেরার অনুরোধ জানিয়েছেন। সবার অনুরোধই প্রত্যাখ্যান করেছেন তিনি। বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন অনুরোধ করলেও তিনি তার অবস্থান পরিবর্তন করবেন না বলে জানান, ‘সভাপতি অত্যন্ত শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিত্ব, কিন্তু আমার ব্যক্তি স্বাধীনতা রয়েছে। আমি আর কাজ করতে চাই না। সেই অবস্থানেই থাকব।’

মে মাসের শেষ সপ্তাহ চললেও, এখনও এপ্রিল মাসের সম্মানী পাননি ছোটন। ৩১ মে পর্যন্ত তিনি ফেডারেশনের সঙ্গে থাকলেও অনুশীলনে যাবেন না। আগামীকাল বাংলাদেশ ক্রীড়া লেখক সমিতির অনুষ্ঠানে সেরা কোচের পুরস্কার গ্রহণের পরদিন (২৯ মে) ফেডারেশনে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দেশের ফুটবলের এই পরিচিত মুখ।

জানা গেছে, ছোটন পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার পর বাফুফে ছাড়তে পারেন তার দুই সহকারী লিটু এবং অনন্যাও। বাফুফের ব্রিটিশ টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পল স্মলি কয়েক দফা বিদায়ের কথা বলেছেন নিজের মুখেই। অথচ খেলোয়াড় ও কোচিং স্টাফদের কাছ থেকে বিদায় নিয়েও, বেতন নিয়ে দর-কষাকষি করে আবার থেকে যাচ্ছেন।