ঢাকা ০৪:০৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বাগমারায় সোহাগ হত্যা মামলার আরেক আসামি শিবলু গ্রেপ্তার

নাজিম হাসান, নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপডেট সময় : ০৮:৫৪:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ৮৮ বার পড়া হয়েছে

রাজশাহীর বাগমারার সোহাগ হত্যা মামলার এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার নাম শিবলু রহমান (৩০)। তিনি বাগমারা উপজেলার পশ্চিম কুদাপাড়া গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে। গতকাল রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে ঝিকড়া বাজার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ জানান, রোববার দুপুরেই শিবলুকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এই নিয়ে সোহাগ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হলো। নিহত সোহাগের বাড়ি যশোর জেলার মনিরামপুর উপজেলায়। তবে চাকরির সুবাদে তিনি ঢাকায় থাকতেন। এর আগে ২ ফেব্রুয়ারি সকালে সোহাগের বন্ধু বাগমারার মরুগ্রাম ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের আনিছুর রহমানের ছেলে মনোয়ার হোসেনকে (২৮) পিটিয়ে আহত করে প্রতিপক্ষরা। জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার বিরোধ ও এলাকার একটি পুকুরকে কেন্দ্র করে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সোহাগসহ তিনজন বন্ধু মনোয়ার হোসেনকে ঢাকা থেকে দেখতে আসেন। এ সময় গ্রামে তাদের দেখে মনোয়ারের প্রতিপক্ষরা তাদের ওপর হামলা করে। তখন দুজন পালিয়ে বাঁচলেও সোহাগকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পরে ওই গ্রাম থেকে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহত সোহাগের চাচাতো ভাই সাইফুল ইসলাম সাগর বাদী হয়ে গত ৩ ফেব্রায়ারি) বাগমারা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় গত ৭ ফেব্রুয়ারি নওগাঁর আত্রাই উপজেলার দিঘা ব্রিজ বাজার এলাকা থেকে রহিদুল ইসলাম নামের আরেক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়। অন্য আসামিরা পলাতক রয়ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

বাগমারায় সোহাগ হত্যা মামলার আরেক আসামি শিবলু গ্রেপ্তার

আপডেট সময় : ০৮:৫৪:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

রাজশাহীর বাগমারার সোহাগ হত্যা মামলার এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার নাম শিবলু রহমান (৩০)। তিনি বাগমারা উপজেলার পশ্চিম কুদাপাড়া গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে। গতকাল রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে ঝিকড়া বাজার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ জানান, রোববার দুপুরেই শিবলুকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এই নিয়ে সোহাগ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হলো। নিহত সোহাগের বাড়ি যশোর জেলার মনিরামপুর উপজেলায়। তবে চাকরির সুবাদে তিনি ঢাকায় থাকতেন। এর আগে ২ ফেব্রুয়ারি সকালে সোহাগের বন্ধু বাগমারার মরুগ্রাম ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের আনিছুর রহমানের ছেলে মনোয়ার হোসেনকে (২৮) পিটিয়ে আহত করে প্রতিপক্ষরা। জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার বিরোধ ও এলাকার একটি পুকুরকে কেন্দ্র করে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সোহাগসহ তিনজন বন্ধু মনোয়ার হোসেনকে ঢাকা থেকে দেখতে আসেন। এ সময় গ্রামে তাদের দেখে মনোয়ারের প্রতিপক্ষরা তাদের ওপর হামলা করে। তখন দুজন পালিয়ে বাঁচলেও সোহাগকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পরে ওই গ্রাম থেকে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহত সোহাগের চাচাতো ভাই সাইফুল ইসলাম সাগর বাদী হয়ে গত ৩ ফেব্রায়ারি) বাগমারা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় গত ৭ ফেব্রুয়ারি নওগাঁর আত্রাই উপজেলার দিঘা ব্রিজ বাজার এলাকা থেকে রহিদুল ইসলাম নামের আরেক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়। অন্য আসামিরা পলাতক রয়ছে।