ঢাকা ০৫:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশে ফেরার কারণ বললেন হাথুরুসিংহে

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০২:৫১:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ৭০ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশ ক্রিকেটে সফল কোচদের তালিকা করলে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের নাম অবশ্য আসবেই। তবে ২০১৭ সালে চরম অপেশাদারিত্বের পরিচয় দিয়ে টাইগারদের দায়িত্ব ছেড়ে যান তিনি। সেই হাথুরুসিংহে ফের বাংলাদেশের ক্রিকেটে যুক্ত হয়েছেন পুরোনো ভূমিকাতেই।

এরই মধ্যে কাজেও নেমে পড়েছেন হাথুরু। বুধবার আনুষ্ঠানিক সংবাদসম্মেলনে হাজির হয়ে বাংলাদেশে ফেরা নিয়ে বললেন তিনি। এ সময় এই লঙ্কান কোচ বলেন, বাংলাদেশ ছেড়ে যাওয়ার সব সময়ই ফেরার তাগিদ অনুভব করতেন তিনি।

হাথুরুর কথায়, ‘বাংলাদেশ ছেড়ে যাওয়ার পর এ দেশের ক্রিকেটকে নিয়মিতই ফলো করেছি। ভেতরে ভেতরে অনুভব করতাম এবং ভাবতাম, আবার কখনো এ দেশে এসে কাজ করব।’ কিন্তু এত তাড়াতাড়ি যে সেটা ঘটে যাবে তা ভাবেননি বলে জানান হাথুরুসিংহে।

এর আগে ২০১৪ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের প্রধান কোচের দায়িত্ব সামলেছেন হাথুরুসিংহে। তার সময়েই ওয়ানডেতে বড় শক্তি হয়ে উঠে টাইগাররা।

বাংলাদেশ ছেড়ে গিয়ে প্রথমে নিজ দেশ শ্রীলঙ্কার প্রধান কোচের দায়িত্ব নিয়েছিলেন হাথুরুসিংহে। যদিও সেখানে বরখাস্ত হতে হয় তাকে। ফের বাংলাদেশে ফেরার আগে অস্ট্রেলিয়ার রাজ্য দল নিউ সাউথ ওয়েলসের সহকারী কোচ ছিলেন তিনি।

হাথুরু এখন অস্ট্রেলিয়াতেই স্থায়ী। সেখান থেকে সোমবার রাতে তিনি বাংলাদেশে আসেন। মঙ্গলবার মিরপুরে ক্রিকেটারদের অনুশীলনে দেখা যায় তাকে। সেদিন অবশ্য সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি তিনি।

বিসিবি এদিন তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে হাজির করল। বলা যায় কোচ হিসেবে হাথুরুর পরিচয় পর্ব এটি। তবে বাংলাদেশের ক্রিকেটের সবকিছু তো হাথুরুর চেনা।

হাথুরু জানালেন দ্বিতীয়বার টাইগারদের দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি চ্যালেঞ্জ থেকেই। তার কথায়, ‘এবার মনে হয়েছে যে বেশ কিছু সিনিয়র খেলোয়াড় আছে দলটিতে। যারা অন্তত ১০ বছর জাতীয় দলকে সার্ভিস দিচ্ছে। কিছু পরিণত খেলোয়াড় আছে এবং সঙ্গে কিছু ইয়াং ট্যালেন্টও আসছে। এদের মিশ্রণে এই টিমটা নিয়ে কাজ করার চ্যালেঞ্জ অনুভব করেছি। এ কারণেই বিসিবির এবারের অফারটা গ্রহণ করেছি।’

এ দফায় বিসিবির সঙ্গে দুই বছরের চুক্তি হাথুরুসিংহের। তার প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হোম সিরিজ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

বাংলাদেশে ফেরার কারণ বললেন হাথুরুসিংহে

আপডেট সময় : ০২:৫১:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

বাংলাদেশ ক্রিকেটে সফল কোচদের তালিকা করলে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের নাম অবশ্য আসবেই। তবে ২০১৭ সালে চরম অপেশাদারিত্বের পরিচয় দিয়ে টাইগারদের দায়িত্ব ছেড়ে যান তিনি। সেই হাথুরুসিংহে ফের বাংলাদেশের ক্রিকেটে যুক্ত হয়েছেন পুরোনো ভূমিকাতেই।

এরই মধ্যে কাজেও নেমে পড়েছেন হাথুরু। বুধবার আনুষ্ঠানিক সংবাদসম্মেলনে হাজির হয়ে বাংলাদেশে ফেরা নিয়ে বললেন তিনি। এ সময় এই লঙ্কান কোচ বলেন, বাংলাদেশ ছেড়ে যাওয়ার সব সময়ই ফেরার তাগিদ অনুভব করতেন তিনি।

হাথুরুর কথায়, ‘বাংলাদেশ ছেড়ে যাওয়ার পর এ দেশের ক্রিকেটকে নিয়মিতই ফলো করেছি। ভেতরে ভেতরে অনুভব করতাম এবং ভাবতাম, আবার কখনো এ দেশে এসে কাজ করব।’ কিন্তু এত তাড়াতাড়ি যে সেটা ঘটে যাবে তা ভাবেননি বলে জানান হাথুরুসিংহে।

এর আগে ২০১৪ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের প্রধান কোচের দায়িত্ব সামলেছেন হাথুরুসিংহে। তার সময়েই ওয়ানডেতে বড় শক্তি হয়ে উঠে টাইগাররা।

বাংলাদেশ ছেড়ে গিয়ে প্রথমে নিজ দেশ শ্রীলঙ্কার প্রধান কোচের দায়িত্ব নিয়েছিলেন হাথুরুসিংহে। যদিও সেখানে বরখাস্ত হতে হয় তাকে। ফের বাংলাদেশে ফেরার আগে অস্ট্রেলিয়ার রাজ্য দল নিউ সাউথ ওয়েলসের সহকারী কোচ ছিলেন তিনি।

হাথুরু এখন অস্ট্রেলিয়াতেই স্থায়ী। সেখান থেকে সোমবার রাতে তিনি বাংলাদেশে আসেন। মঙ্গলবার মিরপুরে ক্রিকেটারদের অনুশীলনে দেখা যায় তাকে। সেদিন অবশ্য সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি তিনি।

বিসিবি এদিন তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে হাজির করল। বলা যায় কোচ হিসেবে হাথুরুর পরিচয় পর্ব এটি। তবে বাংলাদেশের ক্রিকেটের সবকিছু তো হাথুরুর চেনা।

হাথুরু জানালেন দ্বিতীয়বার টাইগারদের দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি চ্যালেঞ্জ থেকেই। তার কথায়, ‘এবার মনে হয়েছে যে বেশ কিছু সিনিয়র খেলোয়াড় আছে দলটিতে। যারা অন্তত ১০ বছর জাতীয় দলকে সার্ভিস দিচ্ছে। কিছু পরিণত খেলোয়াড় আছে এবং সঙ্গে কিছু ইয়াং ট্যালেন্টও আসছে। এদের মিশ্রণে এই টিমটা নিয়ে কাজ করার চ্যালেঞ্জ অনুভব করেছি। এ কারণেই বিসিবির এবারের অফারটা গ্রহণ করেছি।’

এ দফায় বিসিবির সঙ্গে দুই বছরের চুক্তি হাথুরুসিংহের। তার প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হোম সিরিজ।