ঢাকা ০৯:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাকিস্তানে বৃষ্টি ও তুষারপাতে ২৯ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৮:৩৭:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪ ২৩ বার পড়া হয়েছে

পাকিস্তানের বিভিন্ন অঞ্চলে ভারী বৃষ্টি ও তুষারপাতে ১৬ শিশুসহ অন্তত ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (৩ মার্চ) পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডন এ তথ্য জানায়।

ডনের প্রতিবেদন অনুযায়ী, দেশটির গিলগিট-বালতিস্তান, বেলুচিস্তান ও খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে গত শুক্রবার (১ মার্চ) থেকে ভারী বৃষ্টি ও তুষারপাত হচ্ছে। খাইবার পাকতুনখোয়ার বেশিরভাগ অঞ্চল প্রায় তলিয়ে গেছে। এই প্রদেশে অন্তত ২৪ জন মারা গেছেন এবং আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩৪ জন।

ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে সৃষ্ট বন্যায় বেলুচিস্তানের বেশ কয়েকটি জেলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। নোশকি ও চাগাই জেলা প্রদেশ থেকে সম্পূর্ণভাবে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

দক্ষিণ-পশ্চিম বেলুচিস্তান প্রদেশে উপকূলীয় শহর গোয়াদর প্লাবিত হওয়ার পরে ৫ জন মারা গেছেন, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ প্রায় ১০ হাজার মানুষকে সরিয়ে নিতে নৌকা ব্যবহার করেছে।

পাকিস্তান-শাসিত কাশ্মীরেও হতাহতের ঘটনা এবং ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে, জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ একটি পৃথক বিবৃতিতে জানিয়েছে।

গিলগিট-বালতিস্তানে আসা-যাওয়ার পথে রোগী ও শিশুসহ হাজারও যাত্রী বিভিন্ন এলাকায় আটকা পড়েছে। কারণ এই প্রদেশের বেশিরভাগ রাস্তা ডুবে গেছে। অথবা ভূমিধসের কারণে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় সড়কগুলো মেরামতের উদ্যোগ নেওয়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ।

উত্তর গিলগিট বাল্টিস্তান অঞ্চলের মুখপাত্র ফয়জুল্লাহ ফারাকের মতে, দেশটির কারাকোরাম হাইওয়ে, যা পাকিস্তানকে চীনের সাথে সংযুক্ত করে, এখনও কিছু জায়গায় ভূমিধসের কারণে অবরুদ্ধ রয়েছে।

এদিকে, প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে ইসলামাবাদ, গিলগিট ও স্কারদু শহরের সব অভ্যন্তরীন ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। এছাড়াও স্কারদু, শিগার, খারমং ও ঘাঞ্চে জেলার স্কুলগুলোর শীতকালীন ছুটি ১০ মার্চ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

এসব এলাকায় ছয় ইঞ্চি পর্যন্ত তুষারপাত হয়েছে ও তাপমাত্রা শূন্যের নিচে নেমে গেছে। পাকিস্তান আবহাওয়া বিভাগ সতর্ক করে বলেছে, এসব অঞ্চলে এ ধরনের আবহাওয়া আরও কয়েকদিন বজায় থাকবে।

সূত্র: আল জাজিরা, দ্য ট্রিবিউন এক্সপ্রেস

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

পাকিস্তানে বৃষ্টি ও তুষারপাতে ২৯ জনের মৃত্যু

আপডেট সময় : ০৮:৩৭:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪

পাকিস্তানের বিভিন্ন অঞ্চলে ভারী বৃষ্টি ও তুষারপাতে ১৬ শিশুসহ অন্তত ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (৩ মার্চ) পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডন এ তথ্য জানায়।

ডনের প্রতিবেদন অনুযায়ী, দেশটির গিলগিট-বালতিস্তান, বেলুচিস্তান ও খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে গত শুক্রবার (১ মার্চ) থেকে ভারী বৃষ্টি ও তুষারপাত হচ্ছে। খাইবার পাকতুনখোয়ার বেশিরভাগ অঞ্চল প্রায় তলিয়ে গেছে। এই প্রদেশে অন্তত ২৪ জন মারা গেছেন এবং আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩৪ জন।

ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে সৃষ্ট বন্যায় বেলুচিস্তানের বেশ কয়েকটি জেলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। নোশকি ও চাগাই জেলা প্রদেশ থেকে সম্পূর্ণভাবে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

দক্ষিণ-পশ্চিম বেলুচিস্তান প্রদেশে উপকূলীয় শহর গোয়াদর প্লাবিত হওয়ার পরে ৫ জন মারা গেছেন, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ প্রায় ১০ হাজার মানুষকে সরিয়ে নিতে নৌকা ব্যবহার করেছে।

পাকিস্তান-শাসিত কাশ্মীরেও হতাহতের ঘটনা এবং ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে, জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ একটি পৃথক বিবৃতিতে জানিয়েছে।

গিলগিট-বালতিস্তানে আসা-যাওয়ার পথে রোগী ও শিশুসহ হাজারও যাত্রী বিভিন্ন এলাকায় আটকা পড়েছে। কারণ এই প্রদেশের বেশিরভাগ রাস্তা ডুবে গেছে। অথবা ভূমিধসের কারণে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় সড়কগুলো মেরামতের উদ্যোগ নেওয়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ।

উত্তর গিলগিট বাল্টিস্তান অঞ্চলের মুখপাত্র ফয়জুল্লাহ ফারাকের মতে, দেশটির কারাকোরাম হাইওয়ে, যা পাকিস্তানকে চীনের সাথে সংযুক্ত করে, এখনও কিছু জায়গায় ভূমিধসের কারণে অবরুদ্ধ রয়েছে।

এদিকে, প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে ইসলামাবাদ, গিলগিট ও স্কারদু শহরের সব অভ্যন্তরীন ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। এছাড়াও স্কারদু, শিগার, খারমং ও ঘাঞ্চে জেলার স্কুলগুলোর শীতকালীন ছুটি ১০ মার্চ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

এসব এলাকায় ছয় ইঞ্চি পর্যন্ত তুষারপাত হয়েছে ও তাপমাত্রা শূন্যের নিচে নেমে গেছে। পাকিস্তান আবহাওয়া বিভাগ সতর্ক করে বলেছে, এসব অঞ্চলে এ ধরনের আবহাওয়া আরও কয়েকদিন বজায় থাকবে।

সূত্র: আল জাজিরা, দ্য ট্রিবিউন এক্সপ্রেস