ঢাকা ০৫:০৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পপ-তারকা কোকো লি মারা গেছেন

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৬:৩০:০৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুলাই ২০২৩ ৫০ বার পড়া হয়েছে

হংকংয়ে জন্মগ্রহণকারী জনপ্রিয় পপ তারকা ও অভিনেত্রী কোকো লি মারা গেছেন। মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিল ৪৮ বছর। গত কয়েক বছর ধরে তিনি বিষণ্ণতায় ভুগছিলেন। একটা সময় তিনি এতটাই হতাশ হয়ে পড়েন যে, রোববার গলায় ফাঁস দেন। তারপর উদ্ধার করে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। কোমায় চলে যাওয়া এই শিল্পী আর চোখ খোলেননি।
এরপর বুধবার তিনি মৃত্যুবরণ করেন। গণমাধ্যমকে তার মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছেন বোন ক্যারল ও ন্যানস।

কয়েক দশকের ক্যারিয়ারে অসংখ্যা হিট অ্যালবাম, সিনেমা এবং টেলিভিশন শোয়ে দেখা গেছে কোকো লিকে। সিএনএনকে তার বোনেরা জানিয়েছেন, রোববার কোকোর অবস্থা খুবই মুমূর্ষু হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু কোমা থেকে জীবিত ফেরানো যায়নি তাকে। বুধবার মারা যান তিনি।

এ বছর ছিল কোকোর সংগীত ক্যারিয়ারের ৩০তম বর্ষ। তিনি আন্তর্জাতিক সংগীতে চীনা গায়কদের জন্য নতুন বিশ্ব উন্মোচনে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন। এ কারণে চীনাদের কাছে উজ্জ্বল নক্ষত্র হয়েছিলেন বলেও জানিয়েছেন কোকোর বোনরা।

প্রসঙ্গত, কোকো হংকংয়ে জন্মগ্রহণ করেন এবং বেড়ে ওঠেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। উচ্চমাধ্যমিকের পর হংকংয়ে ফেরার সময় একটি গানের প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করেন। যেখান থেকে সংগীত ক্যারিয়ার শুরু হয় তার। ১৯৯০ দশকে এশিয়াতে সফলতা পান। লাখ লাখ অ্যালবাম বিক্রি হয়। ইংরেজি, ম্যান্ডারিন ও ক্যান্টনিজ ভাষায় অনেক অ্যালবাম প্রকাশ করেছেন কোকো।

সূত্র: আনন্দবাজার

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

পপ-তারকা কোকো লি মারা গেছেন

আপডেট সময় : ০৬:৩০:০৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুলাই ২০২৩

হংকংয়ে জন্মগ্রহণকারী জনপ্রিয় পপ তারকা ও অভিনেত্রী কোকো লি মারা গেছেন। মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিল ৪৮ বছর। গত কয়েক বছর ধরে তিনি বিষণ্ণতায় ভুগছিলেন। একটা সময় তিনি এতটাই হতাশ হয়ে পড়েন যে, রোববার গলায় ফাঁস দেন। তারপর উদ্ধার করে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। কোমায় চলে যাওয়া এই শিল্পী আর চোখ খোলেননি।
এরপর বুধবার তিনি মৃত্যুবরণ করেন। গণমাধ্যমকে তার মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছেন বোন ক্যারল ও ন্যানস।

কয়েক দশকের ক্যারিয়ারে অসংখ্যা হিট অ্যালবাম, সিনেমা এবং টেলিভিশন শোয়ে দেখা গেছে কোকো লিকে। সিএনএনকে তার বোনেরা জানিয়েছেন, রোববার কোকোর অবস্থা খুবই মুমূর্ষু হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু কোমা থেকে জীবিত ফেরানো যায়নি তাকে। বুধবার মারা যান তিনি।

এ বছর ছিল কোকোর সংগীত ক্যারিয়ারের ৩০তম বর্ষ। তিনি আন্তর্জাতিক সংগীতে চীনা গায়কদের জন্য নতুন বিশ্ব উন্মোচনে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন। এ কারণে চীনাদের কাছে উজ্জ্বল নক্ষত্র হয়েছিলেন বলেও জানিয়েছেন কোকোর বোনরা।

প্রসঙ্গত, কোকো হংকংয়ে জন্মগ্রহণ করেন এবং বেড়ে ওঠেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। উচ্চমাধ্যমিকের পর হংকংয়ে ফেরার সময় একটি গানের প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করেন। যেখান থেকে সংগীত ক্যারিয়ার শুরু হয় তার। ১৯৯০ দশকে এশিয়াতে সফলতা পান। লাখ লাখ অ্যালবাম বিক্রি হয়। ইংরেজি, ম্যান্ডারিন ও ক্যান্টনিজ ভাষায় অনেক অ্যালবাম প্রকাশ করেছেন কোকো।

সূত্র: আনন্দবাজার