ঢাকা ০৩:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নওগাঁয় জামিন নিতে গিয়ে বিএনপির ১৬ নেতা-কর্মী কারাগারে

নওগাঁ প্রতিবেদক :
  • আপডেট সময় : ০৩:৩৬:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ৩৫ বার পড়া হয়েছে

নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলায় বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে করা মামলায় বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনের ১৬ নেতা-কর্মীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। ওই আসামিরা সবাই হাইকোর্ট থেকে ছয় সপ্তাহের আগাম জামিনে ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে আদালতে হাজির হয়ে ফের জামিন চাইলে তা নামঞ্জুর করে আসামিদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন নওগাঁর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক বিশ্বনাথ মণ্ডল।

কারাগারে পাঠানো বিএনপির নেতাকর্মীরা হলেন—পত্নীতলা উপজেলা যুবদলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহ্বায়ক বায়েজিদ রায়হান (শাহিন), নজিপুর পৌর যুবদলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল কাদের, পৌর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ওবায়দুল ইসলাম, পৌর বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রমজান আলী সরদার, আকবর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের ও সহ-সভাপতি জুয়েল, পত্নীতলা ইউনিয়ন যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল বাতেন, শাহির হোসেন, নজিপুর পৌর যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক সাখাওয়াত হোসেন, নজিপুর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আলামিন কবির জামাল, নজিপুর পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, বিএনপি কর্মী লিটু ফকির, সুব্রত কুমার, যুবদল কর্মী উজ্জ্বল হোসেন, জেলা ছাত্রদলের সহ-প্রচার সম্পাদক রাকিবুল হাসান এবং পত্নীতলা উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক আল আমিন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ২৮ অক্টোবর রাত সাড়ে ৮টার দিকে নজিপুর বাজার এলাকায় উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে দলীয় মিটিং শেষে বাড়ি ফেরার পথে নজিপুর পৌরসভার বাদপুঁইয়া এলাকায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বাপ্পী চক্রবর্তী নামে এক আওয়ামী লীগ কর্মী বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনের ২৩ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত আরও ৪০-৫০ জনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা করেন। এ মামলায় ওই ১৬ নেতাকর্মী ৬ সপ্তাহ আগে হাইকোর্ট থেকে আগাম জামিন পান। জামিনের মেয়াদ শেষে আজ বৃহস্পতিবার নওগাঁর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পুনরায় জামিন চাইলে বিচারক তাঁদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠান।

জামিন নামঞ্জুর হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন আসামিদের আইনজীবী এ্যাডভোকেট মিনহাজুল আবেদীন বলেন- আদালত তাদের সবাইকে কারাগারে পাঠিয়েছেন। আমরা পরবর্তী সময়ে আবার জামিন চাইব।

এদিকে দলের নেতা-কর্মীদের কারাগারে পাঠানোর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে নওগাঁ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবুবক্কর সিদ্দিক নান্নু অবিলম্বে নওগাঁ জেলা পত্নীতলা উপজেলা বিএনপি ও এরঅঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার এবং তাদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

নওগাঁয় জামিন নিতে গিয়ে বিএনপির ১৬ নেতা-কর্মী কারাগারে

আপডেট সময় : ০৩:৩৬:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলায় বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে করা মামলায় বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনের ১৬ নেতা-কর্মীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। ওই আসামিরা সবাই হাইকোর্ট থেকে ছয় সপ্তাহের আগাম জামিনে ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে আদালতে হাজির হয়ে ফের জামিন চাইলে তা নামঞ্জুর করে আসামিদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন নওগাঁর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক বিশ্বনাথ মণ্ডল।

কারাগারে পাঠানো বিএনপির নেতাকর্মীরা হলেন—পত্নীতলা উপজেলা যুবদলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহ্বায়ক বায়েজিদ রায়হান (শাহিন), নজিপুর পৌর যুবদলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল কাদের, পৌর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ওবায়দুল ইসলাম, পৌর বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রমজান আলী সরদার, আকবর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের ও সহ-সভাপতি জুয়েল, পত্নীতলা ইউনিয়ন যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল বাতেন, শাহির হোসেন, নজিপুর পৌর যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক সাখাওয়াত হোসেন, নজিপুর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আলামিন কবির জামাল, নজিপুর পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, বিএনপি কর্মী লিটু ফকির, সুব্রত কুমার, যুবদল কর্মী উজ্জ্বল হোসেন, জেলা ছাত্রদলের সহ-প্রচার সম্পাদক রাকিবুল হাসান এবং পত্নীতলা উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক আল আমিন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ২৮ অক্টোবর রাত সাড়ে ৮টার দিকে নজিপুর বাজার এলাকায় উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে দলীয় মিটিং শেষে বাড়ি ফেরার পথে নজিপুর পৌরসভার বাদপুঁইয়া এলাকায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বাপ্পী চক্রবর্তী নামে এক আওয়ামী লীগ কর্মী বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনের ২৩ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত আরও ৪০-৫০ জনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা করেন। এ মামলায় ওই ১৬ নেতাকর্মী ৬ সপ্তাহ আগে হাইকোর্ট থেকে আগাম জামিন পান। জামিনের মেয়াদ শেষে আজ বৃহস্পতিবার নওগাঁর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পুনরায় জামিন চাইলে বিচারক তাঁদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠান।

জামিন নামঞ্জুর হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন আসামিদের আইনজীবী এ্যাডভোকেট মিনহাজুল আবেদীন বলেন- আদালত তাদের সবাইকে কারাগারে পাঠিয়েছেন। আমরা পরবর্তী সময়ে আবার জামিন চাইব।

এদিকে দলের নেতা-কর্মীদের কারাগারে পাঠানোর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে নওগাঁ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবুবক্কর সিদ্দিক নান্নু অবিলম্বে নওগাঁ জেলা পত্নীতলা উপজেলা বিএনপি ও এরঅঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার এবং তাদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।