ঢাকা ১১:৪৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নবগঠিত কমিটির যাত্রা শুরু চালের বস্তায় দামসহ থাকতে হবে সব তথ্য, পরিপত্র জারি টি-টোয়েন্টিতে দ্রুততম ১০ হাজারে শীর্ষে বাবর অমর একুশে ময়মনসিংহে শহীদ বেদীতে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের শ্রদ্ধা নিবেদন ১৯৩ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা অনুমোদন ইইউ’র স্মার্ট হতে ইংরেজিতে কথা বলতে হবে তা ঠিক নয়: প্রধানমন্ত্রী ভাষা শহীদদের স্মরণে দেশের প্রথম শহীদ মিনারে আরসিআরইউ’র শ্রদ্ধা স্মার্ট ত্রিশাল উপজেলা গড়তে জনগণের সেবক হতে চান’যুবনেতা জুয়েল সরকার পুঠিয়ায় শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত চুরির অপবাদ সইতে না পেরে পুঠিয়ায় নৈশ্য প্রহোরীর আত্মহত্যা

দুর্গাপুরে জমি নিয়ে বিরোধ, ৫ শতাধিক গাছ কর্তন

নিজস্ব প্রতিবেদক//
  • আপডেট সময় : ০৭:৩৩:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ মে ২০২৩ ৫৭ বার পড়া হয়েছে

রাজশাহীর দুর্গাপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জের পাঁচ শতাধিক কলা ও পেঁপে গাছ কেটে ফেলেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। ঘটনার পর খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
বুধবার (৩ মে) সকালে উপজেলার নওপাড়া ইউনিয়নের ইসবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, ইসবপুর গ্রামের অসহায় কৃষক মমিন মন্ডলের ছেলে আব্দুস সাত্তার মন্ডলের এক দশমিক ৩০ শতাংশ জমি নিয়ে একই ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের মানিক মন্ডলের ছেলে আমির মন্ডলের সাথে দীর্ঘদীন ধরে দ্বন্দ্ব চলে আসছিলো। বিবাদমান জমিতে আমির মন্ডল, কামরুজ্জামান মন্ডল, বুলুবুল, ও শহিদুল ইসলাম সহ অজ্ঞাত ১০/১২ জন সংঘবদ্ধ হয়ে বুধবার সকালের দিকে আব্দুল সাত্তারের লাগানো কলা ও পেঁপে বাগানের পাঁচ শতাধিক গাছ কেটে ফেলে।

কৃষক সাত্তার অভিযোগ করে বলেন, আমার পৈতৃক সম্পত্তি এক দশমিক ৩০ শতাংশ জমিতে লাগানো কলা ও পেঁপে সহ পাঁচ শতাধিক গাছ প্রতিপক্ষের লোকজন কেটে ফেলেছে।

তিনি আরো বলেন, আমি কৃষি কাজ করে আমার সংসার এবং আমার সন্তানদের লেখাপড়ার খরচ চালাই। গাছ কাটায় আমার প্রায় ৪ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আমি এখন অসহায় হয়ে পড়েছি।

অভিযুক্ত আমির মন্ডলের ছোট ভাই আক্তার হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেম, আব্দুস সাত্তার আমাদের বাপ-দাদার পৈতৃক জমি দখল করে কলা ও পেঁপের চাষ করে। দখল মুক্ত করার জন্য আমাদের লোকজন গাছ গুলো কেটে ফেলেছে।

জানতে চাইলে, দুর্গাপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শফিকুল ইসলাম বলেন, জরুরী সেবা ৯৯৯ এ ফোন পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। উভয় পক্ষকেই জমির কাগজপত্র সহ থানায় ডাকা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাজমুল হক জানান, ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। কেউ যদি লিখিত অভিযোগ করে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

দুর্গাপুরে জমি নিয়ে বিরোধ, ৫ শতাধিক গাছ কর্তন

আপডেট সময় : ০৭:৩৩:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ মে ২০২৩

রাজশাহীর দুর্গাপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জের পাঁচ শতাধিক কলা ও পেঁপে গাছ কেটে ফেলেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। ঘটনার পর খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
বুধবার (৩ মে) সকালে উপজেলার নওপাড়া ইউনিয়নের ইসবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, ইসবপুর গ্রামের অসহায় কৃষক মমিন মন্ডলের ছেলে আব্দুস সাত্তার মন্ডলের এক দশমিক ৩০ শতাংশ জমি নিয়ে একই ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের মানিক মন্ডলের ছেলে আমির মন্ডলের সাথে দীর্ঘদীন ধরে দ্বন্দ্ব চলে আসছিলো। বিবাদমান জমিতে আমির মন্ডল, কামরুজ্জামান মন্ডল, বুলুবুল, ও শহিদুল ইসলাম সহ অজ্ঞাত ১০/১২ জন সংঘবদ্ধ হয়ে বুধবার সকালের দিকে আব্দুল সাত্তারের লাগানো কলা ও পেঁপে বাগানের পাঁচ শতাধিক গাছ কেটে ফেলে।

কৃষক সাত্তার অভিযোগ করে বলেন, আমার পৈতৃক সম্পত্তি এক দশমিক ৩০ শতাংশ জমিতে লাগানো কলা ও পেঁপে সহ পাঁচ শতাধিক গাছ প্রতিপক্ষের লোকজন কেটে ফেলেছে।

তিনি আরো বলেন, আমি কৃষি কাজ করে আমার সংসার এবং আমার সন্তানদের লেখাপড়ার খরচ চালাই। গাছ কাটায় আমার প্রায় ৪ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আমি এখন অসহায় হয়ে পড়েছি।

অভিযুক্ত আমির মন্ডলের ছোট ভাই আক্তার হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেম, আব্দুস সাত্তার আমাদের বাপ-দাদার পৈতৃক জমি দখল করে কলা ও পেঁপের চাষ করে। দখল মুক্ত করার জন্য আমাদের লোকজন গাছ গুলো কেটে ফেলেছে।

জানতে চাইলে, দুর্গাপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শফিকুল ইসলাম বলেন, জরুরী সেবা ৯৯৯ এ ফোন পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। উভয় পক্ষকেই জমির কাগজপত্র সহ থানায় ডাকা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাজমুল হক জানান, ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। কেউ যদি লিখিত অভিযোগ করে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।