ঢাকা ১২:০২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে কনস্টেবল ভর্তিতে জালিয়াতি, গ্রেপ্তার ১২

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৫:২১:১৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ৭৭ বার পড়া হয়েছে

দিনাজপুরে পুলিশের ট্রেনিং রিক্রুট কনস্টেবল (টিএসসি) ভর্তিতে জালিয়াতি চক্রের মূল হোতা, প্রক্সি পরীক্ষার্থী ও প্রকৃত পরীক্ষার্থীসহ ১২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে দিনাজপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জাতিয়াতি চক্রের ১২ জনকে গ্রেপ্তারের সংবাদ নিশ্চিত করেছেন পুলিশ সুপার শাহ ইফতেখার আহমেদ।

এ সময় জাতিয়ালি চক্রের কাছ থেকে বাংলাদেশ পুলিশের ট্রেনিং রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) নিয়োগের ৬টি এডমিট কার্ড , ১০০ টাকার মূল্যমানের ৯টি ননজুডিসিয়াল ফাঁকা স্ট্যাম্প। বিভিন্ন ব্যাংকের ৪টি ফাঁকা চেক। প্রতারক চক্রের ব্যবহৃত একটি হাইএস গাড়ি ও ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

দিনাজপুর পুলিশ সুপার শাহ ইফতেখার আহমেদ জানান ,পুলিশের কনস্টেবল নিয়োগে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে রংপুর, দিনাজপুর, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম ও ঠাকুরগাও জেলার এই জালিয়াাত চক্রটি বিস্তৃত অবস্থায় অবস্থান করে। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করে দিনাজপুর সদর সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ জিন্নাহ আল মামুনের নেতৃত্বে বিভিন্ন জেলা থেকে এই প্রতারক চক্রের সদস্যদের গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

উল্লেখ, গত ১১ ফেব্রুয়ারি থেকে দিনাজপুরের পুলিশ লাইন মাঠে পুলিশে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। সেই পুলিশের কনস্টেবল ভর্তির জন্য ভুয়া পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে এবং শারীরিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়। পরবর্তীতে নিজের ছবি পরিবর্তন করে লিখিত পরীক্ষায়ও প্রক্সি পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এই চক্রের সদস্যদের পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন জেলা থেকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। আটক প্রক্সি পরীক্ষার্থীর সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতেই এ পর্যন্ত তিনটি মামলায় ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

দিনাজপুরে কনস্টেবল ভর্তিতে জালিয়াতি, গ্রেপ্তার ১২

আপডেট সময় : ০৫:২১:১৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

দিনাজপুরে পুলিশের ট্রেনিং রিক্রুট কনস্টেবল (টিএসসি) ভর্তিতে জালিয়াতি চক্রের মূল হোতা, প্রক্সি পরীক্ষার্থী ও প্রকৃত পরীক্ষার্থীসহ ১২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে দিনাজপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জাতিয়াতি চক্রের ১২ জনকে গ্রেপ্তারের সংবাদ নিশ্চিত করেছেন পুলিশ সুপার শাহ ইফতেখার আহমেদ।

এ সময় জাতিয়ালি চক্রের কাছ থেকে বাংলাদেশ পুলিশের ট্রেনিং রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) নিয়োগের ৬টি এডমিট কার্ড , ১০০ টাকার মূল্যমানের ৯টি ননজুডিসিয়াল ফাঁকা স্ট্যাম্প। বিভিন্ন ব্যাংকের ৪টি ফাঁকা চেক। প্রতারক চক্রের ব্যবহৃত একটি হাইএস গাড়ি ও ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

দিনাজপুর পুলিশ সুপার শাহ ইফতেখার আহমেদ জানান ,পুলিশের কনস্টেবল নিয়োগে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে রংপুর, দিনাজপুর, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম ও ঠাকুরগাও জেলার এই জালিয়াাত চক্রটি বিস্তৃত অবস্থায় অবস্থান করে। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করে দিনাজপুর সদর সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ জিন্নাহ আল মামুনের নেতৃত্বে বিভিন্ন জেলা থেকে এই প্রতারক চক্রের সদস্যদের গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

উল্লেখ, গত ১১ ফেব্রুয়ারি থেকে দিনাজপুরের পুলিশ লাইন মাঠে পুলিশে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। সেই পুলিশের কনস্টেবল ভর্তির জন্য ভুয়া পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে এবং শারীরিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়। পরবর্তীতে নিজের ছবি পরিবর্তন করে লিখিত পরীক্ষায়ও প্রক্সি পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এই চক্রের সদস্যদের পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন জেলা থেকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। আটক প্রক্সি পরীক্ষার্থীর সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতেই এ পর্যন্ত তিনটি মামলায় ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।