ঢাকা ১২:২০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নবগঠিত কমিটির যাত্রা শুরু চালের বস্তায় দামসহ থাকতে হবে সব তথ্য, পরিপত্র জারি টি-টোয়েন্টিতে দ্রুততম ১০ হাজারে শীর্ষে বাবর অমর একুশে ময়মনসিংহে শহীদ বেদীতে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের শ্রদ্ধা নিবেদন ১৯৩ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা অনুমোদন ইইউ’র স্মার্ট হতে ইংরেজিতে কথা বলতে হবে তা ঠিক নয়: প্রধানমন্ত্রী ভাষা শহীদদের স্মরণে দেশের প্রথম শহীদ মিনারে আরসিআরইউ’র শ্রদ্ধা স্মার্ট ত্রিশাল উপজেলা গড়তে জনগণের সেবক হতে চান’যুবনেতা জুয়েল সরকার পুঠিয়ায় শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত চুরির অপবাদ সইতে না পেরে পুঠিয়ায় নৈশ্য প্রহোরীর আত্মহত্যা

জনগণই দানবকে পরাজয়ের পথ দেখাবে: ফখরুল

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৫:৫২:২৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২৩ ৫৬ বার পড়া হয়েছে

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলন চলছে, এই আন্দোলনে গণতন্ত্রকামী সব রাজনৈতিক দল তাদের সঙ্গে আছে বলে দাবি করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে ‘দানব’ আখ্যায়িত করে তাদের হঠাতে কী করতে হবে জনগণই সেই পথ দেখাবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব।

রোববার (২২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনার সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

৬৯-এর গণ-অভ্যুত্থানের মহানায়ক শহীদ আসাদের ৫৪তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে শহীদ আসাদ পরিষদ।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আজকে এই সরকার সমস্ত স্বপ্নকে ভেঙে দিয়ে রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় টিকে রয়েছে। দমন-পীড়ন করছে এবং আমাদের সমস্ত অধিকার কেড়ে নিয়েছে। আজকে আমরা আমাদের অধিকারকে ফিরিয়ে আনার জন্য লড়াই করছি, সংগ্রাম করছি। আজকে সমস্ত দল ঐক্যবদ্ধ হয়েছি, আরও ঐক্যবদ্ধ হব। জনগণ আমাদের পথ দেখাবে, কোন পথে গেলে এই দানবকে পরাজিত করতে পারব। এটাই হচ্ছে আমাদের মূলকথা।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘শুধু বিএনপি নয়, আজকে সমস্ত রাজনৈতিক দল আমরা একমত হয়েছি, শুধু ক্ষমতার জন্য নয়, রাষ্ট্রের কাঠামো পরিবর্তন করতে চাই।’

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে ফখরুল বলেন, ‘এরা কিছুতেই যাবে না, অবৈধ ক্ষমতাকে টিকিয়ে রাখার জন্য শেষ পর্যন্ত লড়াই করে যাবে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমরা বারবার করে বলেছি, আজকে এই সরকার আমাদের দুটি বিষয়কে অত্যন্ত ক্ষতিগ্রস্ত করেছে- একটি হচ্ছে রাজনৈতিক বিষয়, যে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র আমরা গঠন করতে চেয়েছিলাম উদার গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রব্যবস্থা। আরেকটি হচ্ছে, সাম্যের ওপর ভিত্তি করে একটি অর্থনৈতিকব্যবস্থা চালু করতে চেয়েছিলাম, সে জায়গাতে আমরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি। আজকে গরিবরা আরও গরিব হচ্ছে, ধনীরা আরও বড়লোক হচ্ছে।’

‘আজকে আমরা দেখছি- যে মানুষটি ছেঁড়া জোতা পরে ঘুরতো সে আজকে দামি দামি গাড়িতে চড়ছে। যার মাথা গোজার ঠাঁই ছিল না সে আজ তারা বিল্ডিং করেছে। এখান থেকে আমাদের বের হতেই হবে।’

ফখরুল বলেন, ‘জনগণের স্বার্থ রক্ষা করার জন্য বাংলাদেশকে সত্যিকার অর্থে একটি কল্যাণমূলক, একটি সমৃদ্ধি রাষ্ট্র গঠন করার জন্য, মানুষের অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক মুক্তির জন্য আজকে আরও বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি করে এদেরকে পরাজিত করতে হবে। আজকে আমরা জাতির স্বার্থে সংগ্রামে নেমেছি। যেভাবে আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে সংগ্রামে নেমেছি, অবশ্যই এ দেশকে ফ্যাসিবাদের হাত থেকে ভয়াবহ দানবের হাত থেকে মুক্ত করে সত্যিকার অর্থে কল্যাণমূলক সমৃদ্ধির বাংলাদেশ নির্মাণ করতে সক্ষম হব।’

শহীদ আসাদের স্মৃতিচারণ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘শহীদ আসাদের যে ত্যাগ, শহীদ আসাদের যে আত্মোৎসর্গ সেটা এই সময়ের সাথে অনেকটা মিল রয়েছে। আসাদ আমাদের কাছে প্রেরণা। আজকে সেই একইভাবে একটি ফ্যাসিবাদ আমাদের বুকের ওপর চেপে বসেছে।’

শহীদ আসাদ পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ড. মাহবুব উল্যাহর সভাপতিত্বে এ সময় নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জুনায়েদ সাকি, বিএনপির মিডিয়ার সেলের আহ্বায়ক জহির উদ্দীন স্বপন, শহীদ আসাদের ছোট ভাই ড. নুরুজ্জামান হক প্রমুখ বক্তব্য দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

জনগণই দানবকে পরাজয়ের পথ দেখাবে: ফখরুল

আপডেট সময় : ০৫:৫২:২৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২৩

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলন চলছে, এই আন্দোলনে গণতন্ত্রকামী সব রাজনৈতিক দল তাদের সঙ্গে আছে বলে দাবি করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে ‘দানব’ আখ্যায়িত করে তাদের হঠাতে কী করতে হবে জনগণই সেই পথ দেখাবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব।

রোববার (২২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনার সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

৬৯-এর গণ-অভ্যুত্থানের মহানায়ক শহীদ আসাদের ৫৪তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে শহীদ আসাদ পরিষদ।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আজকে এই সরকার সমস্ত স্বপ্নকে ভেঙে দিয়ে রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় টিকে রয়েছে। দমন-পীড়ন করছে এবং আমাদের সমস্ত অধিকার কেড়ে নিয়েছে। আজকে আমরা আমাদের অধিকারকে ফিরিয়ে আনার জন্য লড়াই করছি, সংগ্রাম করছি। আজকে সমস্ত দল ঐক্যবদ্ধ হয়েছি, আরও ঐক্যবদ্ধ হব। জনগণ আমাদের পথ দেখাবে, কোন পথে গেলে এই দানবকে পরাজিত করতে পারব। এটাই হচ্ছে আমাদের মূলকথা।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘শুধু বিএনপি নয়, আজকে সমস্ত রাজনৈতিক দল আমরা একমত হয়েছি, শুধু ক্ষমতার জন্য নয়, রাষ্ট্রের কাঠামো পরিবর্তন করতে চাই।’

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে ফখরুল বলেন, ‘এরা কিছুতেই যাবে না, অবৈধ ক্ষমতাকে টিকিয়ে রাখার জন্য শেষ পর্যন্ত লড়াই করে যাবে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমরা বারবার করে বলেছি, আজকে এই সরকার আমাদের দুটি বিষয়কে অত্যন্ত ক্ষতিগ্রস্ত করেছে- একটি হচ্ছে রাজনৈতিক বিষয়, যে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র আমরা গঠন করতে চেয়েছিলাম উদার গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রব্যবস্থা। আরেকটি হচ্ছে, সাম্যের ওপর ভিত্তি করে একটি অর্থনৈতিকব্যবস্থা চালু করতে চেয়েছিলাম, সে জায়গাতে আমরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি। আজকে গরিবরা আরও গরিব হচ্ছে, ধনীরা আরও বড়লোক হচ্ছে।’

‘আজকে আমরা দেখছি- যে মানুষটি ছেঁড়া জোতা পরে ঘুরতো সে আজকে দামি দামি গাড়িতে চড়ছে। যার মাথা গোজার ঠাঁই ছিল না সে আজ তারা বিল্ডিং করেছে। এখান থেকে আমাদের বের হতেই হবে।’

ফখরুল বলেন, ‘জনগণের স্বার্থ রক্ষা করার জন্য বাংলাদেশকে সত্যিকার অর্থে একটি কল্যাণমূলক, একটি সমৃদ্ধি রাষ্ট্র গঠন করার জন্য, মানুষের অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক মুক্তির জন্য আজকে আরও বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি করে এদেরকে পরাজিত করতে হবে। আজকে আমরা জাতির স্বার্থে সংগ্রামে নেমেছি। যেভাবে আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে সংগ্রামে নেমেছি, অবশ্যই এ দেশকে ফ্যাসিবাদের হাত থেকে ভয়াবহ দানবের হাত থেকে মুক্ত করে সত্যিকার অর্থে কল্যাণমূলক সমৃদ্ধির বাংলাদেশ নির্মাণ করতে সক্ষম হব।’

শহীদ আসাদের স্মৃতিচারণ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘শহীদ আসাদের যে ত্যাগ, শহীদ আসাদের যে আত্মোৎসর্গ সেটা এই সময়ের সাথে অনেকটা মিল রয়েছে। আসাদ আমাদের কাছে প্রেরণা। আজকে সেই একইভাবে একটি ফ্যাসিবাদ আমাদের বুকের ওপর চেপে বসেছে।’

শহীদ আসাদ পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ড. মাহবুব উল্যাহর সভাপতিত্বে এ সময় নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জুনায়েদ সাকি, বিএনপির মিডিয়ার সেলের আহ্বায়ক জহির উদ্দীন স্বপন, শহীদ আসাদের ছোট ভাই ড. নুরুজ্জামান হক প্রমুখ বক্তব্য দেন।