ঢাকা ১২:১৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগ-বিএনপি সংঘর্ষে আহত ৩০

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৬:১৭:৪০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ জুলাই ২০২৩ ৪৮ বার পড়া হয়েছে

চট্টগ্রামে ফটিকছড়িতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে সংঘর্ষের ঘটনায় উভয়পক্ষের অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে।
সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে ভূজপুর থানার দাঁতমারা ইউনিয়নের হেয়াকোঁ বাজারে এ ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় বেশ কয়েকটি গাড়িও ভাংচুর করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানা যায়, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপি নেতা সরোয়ার আলমগীরের সমর্থক নেতাকর্মীরা প্রায় দুইশত মোটরসাইকেল বহর নিয়ে হেয়াকোঁ চৌধুরী পাড়ায় বিএনপি নেতা কামাল চৌধুরীর বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছিল। তাদের গাড়িবহর হেয়াকোঁ বাজারে পৌঁছালে সেখানে অবস্থানরত আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে উভয়পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

দাঁতমারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য সেলিম সরকার বলেন, বিয়ে অনুষ্ঠানে যাওয়ার সময় হেয়াকোঁ বাজারের মোড়ে বিএনপি নেতাকর্মীরা প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে আপত্তিকর স্লোগান দিতে থাকে। এ সময় আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীরা প্রতিবাদ করলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। এ সময় উভয় পক্ষকে অনুরোধ করে পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত করা হয়।

কিন্তু পরবর্তীতে বিএনপি নেতাকর্মীরা শক্তি সঞ্চয় করে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের উপর পাল্টা হামলা করে। এতে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হানিফ সরকার ও বনানী কলেজ ছাত্রলীগ নেতা আলমগীর গুরুতর আহত হয়েছে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা তাদেরকে ধাওয়া দেয়। খবরে পেয়ে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ভূজপুর থানা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক একরামুল হক বলেন, হেয়াকোঁতে কামাল চৌধুরীর বাড়িতে দাওয়াতে যাওয়ার সময় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালায়। এতে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের অন্তত দেড় শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এছাড়া বেশ কিছু গাড়িও ভাংচুর করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ভূজপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হেলাল উদ্দিন ফারুকী বলেন, বিএনপি নেতা সরোয়ার আলমগীর কয়েকশত মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে হেয়াকোঁতে একটি দাওয়াতে যাওয়ার সময় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগ-বিএনপি সংঘর্ষে আহত ৩০

আপডেট সময় : ০৬:১৭:৪০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ জুলাই ২০২৩

চট্টগ্রামে ফটিকছড়িতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে সংঘর্ষের ঘটনায় উভয়পক্ষের অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে।
সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে ভূজপুর থানার দাঁতমারা ইউনিয়নের হেয়াকোঁ বাজারে এ ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় বেশ কয়েকটি গাড়িও ভাংচুর করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানা যায়, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপি নেতা সরোয়ার আলমগীরের সমর্থক নেতাকর্মীরা প্রায় দুইশত মোটরসাইকেল বহর নিয়ে হেয়াকোঁ চৌধুরী পাড়ায় বিএনপি নেতা কামাল চৌধুরীর বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছিল। তাদের গাড়িবহর হেয়াকোঁ বাজারে পৌঁছালে সেখানে অবস্থানরত আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে উভয়পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

দাঁতমারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য সেলিম সরকার বলেন, বিয়ে অনুষ্ঠানে যাওয়ার সময় হেয়াকোঁ বাজারের মোড়ে বিএনপি নেতাকর্মীরা প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে আপত্তিকর স্লোগান দিতে থাকে। এ সময় আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীরা প্রতিবাদ করলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। এ সময় উভয় পক্ষকে অনুরোধ করে পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত করা হয়।

কিন্তু পরবর্তীতে বিএনপি নেতাকর্মীরা শক্তি সঞ্চয় করে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের উপর পাল্টা হামলা করে। এতে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হানিফ সরকার ও বনানী কলেজ ছাত্রলীগ নেতা আলমগীর গুরুতর আহত হয়েছে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা তাদেরকে ধাওয়া দেয়। খবরে পেয়ে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ভূজপুর থানা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক একরামুল হক বলেন, হেয়াকোঁতে কামাল চৌধুরীর বাড়িতে দাওয়াতে যাওয়ার সময় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালায়। এতে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের অন্তত দেড় শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এছাড়া বেশ কিছু গাড়িও ভাংচুর করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ভূজপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হেলাল উদ্দিন ফারুকী বলেন, বিএনপি নেতা সরোয়ার আলমগীর কয়েকশত মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে হেয়াকোঁতে একটি দাওয়াতে যাওয়ার সময় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।