ঢাকা ০৪:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

গোপন নথি নিয়ে কোনও অনুশোচনা নেই : বাইডেন

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ১০:৪০:৫০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৩ ৬৯ বার পড়া হয়েছে

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, নিজের ব্যক্তিগত অফিসে গোপন নথি খুঁজে পাওয়ার খবর মধ্যবর্তী নির্বাচনের আগে জনসম্মুখে প্রকাশ না করা নিয়ে তার ‘কোনও অনুশোচনা’ নেই।

যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল বিষয়টি তদন্তের জন্য একজন বিশেষ কাউন্সেল নিয়োগ করেছেন।

জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন গোপন সরকারি ফাইলগুলো তার ব্যক্তিগত দপ্তর থেকে পাওয়া গেছে।

ওয়াশিংটন ডিসি-ভিত্তিক ‘পেন বাইডেন সেন্টার ফর ডিপ্লোমেসি অ্যান্ড গ্লোবাল এনগেজমেন্ট’ দপ্তর বন্ধ করার সময় গতবছর নভেম্বরে তালা মারা একটি ক্লজেটের ভেতরে প্রায় ১০ টি মতো ফাইলের খোঁজ পেয়েছেন আইনজীবীরা।

পরে ডিসেম্বরে আরওকিছু গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রীয় গোপন নথি বাইডেনের ডেলওয়্যারের বাড়ি থেকেও পাওয়া যায়, এমনকী ১২ জানুয়ারিতেও তার বাড়িতে আরেকটি নথি মেলে বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবীরা।

নভেম্বরে নথি পাওয়া যাওয়ার পরপরই বাইডেন সেকথা প্রকাশ করেননি কেন? এক সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে বাইডেন বলেন, আমি মনে করি আপনারা দেখবেন সখানে কিছুই নেই।

এরপর বৃহস্পতিবার ঝড়ে লন্ডভন্ড হওয়া ক্যালিফোর্নিয়ার সৈকতের শহর পরিদর্শনের সময় তিনি গোপন নথির প্রসঙ্গে বলেন, আমরা কোনও অনুশোচনা নেই। আমাকে আইনজীবীরা যা করতে বলেছেন আমি সেটিই করছি। আমরা ঠিক এটাই করছি।

গোপন নথিগুলো নিয়ে বাইডেন এই প্রথম প্রকাশ্যে কথা বললেন। এই সমস্ত নথি নিয়ে বাইডেন সমালোচনার স্বীকার হয়েছেন। বিশেষ করে রিপাবলিকানদের কাছ থেকে।

বিবিসি জানায়, গোপন নথিগুলো খুঁজে পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই যে তা ন্যাশনাল আর্কাইভ এবং বিচার বিভাগকে দেওয়া হয়েছে সেকথাই আবার বলেছেন বাইডেন। সংস্থাগুলোর সঙ্গে তারা সহযোগিতা করছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

বাইডেনের আইনজীবী রিচার্ড সাউবার বলেছেন, নথিগুলো অসাবধানতাবশত স্থানচ্যুত হয়ে গিয়েছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

গোপন নথি নিয়ে কোনও অনুশোচনা নেই : বাইডেন

আপডেট সময় : ১০:৪০:৫০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৩

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, নিজের ব্যক্তিগত অফিসে গোপন নথি খুঁজে পাওয়ার খবর মধ্যবর্তী নির্বাচনের আগে জনসম্মুখে প্রকাশ না করা নিয়ে তার ‘কোনও অনুশোচনা’ নেই।

যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল বিষয়টি তদন্তের জন্য একজন বিশেষ কাউন্সেল নিয়োগ করেছেন।

জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন গোপন সরকারি ফাইলগুলো তার ব্যক্তিগত দপ্তর থেকে পাওয়া গেছে।

ওয়াশিংটন ডিসি-ভিত্তিক ‘পেন বাইডেন সেন্টার ফর ডিপ্লোমেসি অ্যান্ড গ্লোবাল এনগেজমেন্ট’ দপ্তর বন্ধ করার সময় গতবছর নভেম্বরে তালা মারা একটি ক্লজেটের ভেতরে প্রায় ১০ টি মতো ফাইলের খোঁজ পেয়েছেন আইনজীবীরা।

পরে ডিসেম্বরে আরওকিছু গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রীয় গোপন নথি বাইডেনের ডেলওয়্যারের বাড়ি থেকেও পাওয়া যায়, এমনকী ১২ জানুয়ারিতেও তার বাড়িতে আরেকটি নথি মেলে বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবীরা।

নভেম্বরে নথি পাওয়া যাওয়ার পরপরই বাইডেন সেকথা প্রকাশ করেননি কেন? এক সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে বাইডেন বলেন, আমি মনে করি আপনারা দেখবেন সখানে কিছুই নেই।

এরপর বৃহস্পতিবার ঝড়ে লন্ডভন্ড হওয়া ক্যালিফোর্নিয়ার সৈকতের শহর পরিদর্শনের সময় তিনি গোপন নথির প্রসঙ্গে বলেন, আমরা কোনও অনুশোচনা নেই। আমাকে আইনজীবীরা যা করতে বলেছেন আমি সেটিই করছি। আমরা ঠিক এটাই করছি।

গোপন নথিগুলো নিয়ে বাইডেন এই প্রথম প্রকাশ্যে কথা বললেন। এই সমস্ত নথি নিয়ে বাইডেন সমালোচনার স্বীকার হয়েছেন। বিশেষ করে রিপাবলিকানদের কাছ থেকে।

বিবিসি জানায়, গোপন নথিগুলো খুঁজে পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই যে তা ন্যাশনাল আর্কাইভ এবং বিচার বিভাগকে দেওয়া হয়েছে সেকথাই আবার বলেছেন বাইডেন। সংস্থাগুলোর সঙ্গে তারা সহযোগিতা করছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

বাইডেনের আইনজীবী রিচার্ড সাউবার বলেছেন, নথিগুলো অসাবধানতাবশত স্থানচ্যুত হয়ে গিয়েছিল।