ঢাকা ১১:০৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খেলাধুলা মানসিক ও সার্বিক বিকাশে সহায়তা করে- ইদ্রিস আলী

আরিফ রববানী , ময়মনসিংহ ||
  • আপডেট সময় : ০৫:৫৭:২৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ জুলাই ২০২৩ ১১১ বার পড়া হয়েছে

ময়মনসিংহ জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম আহ্বায়ক ইদ্রিস আলী বলেন, শিক্ষার বড় ধরনের একটি অংশ হচ্ছে সাংস্কৃতি ও খেলা-ধুলায় অংশ নেয়া।
সমাজ থেকে মাদক দূরীকরণে পড়ালেখার পাশাপাশি খেলাধুলায় পারদর্শী হতে হবে। খেলাধুলা
হচ্ছে একটি সংগঠিত, প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ, বিনোদনধর্মী এবং দক্ষতাসূচক শারীরিক কার্যকলাপ প্রদর্শনের উত্তম ক্ষেত্র। শারীরিক ও মানসিক দৃঢ়তা, কলা-কৌশল এবং সুস্থ ক্রীড়া প্রদর্শন করে একজন বিজয়ী তার অপূর্ব ক্রীড়াশৈলীর নিদর্শন রাখতে পারেন। আর খেলাধুলা পরিচালিত হয় একগুচ্ছ নিয়ম-কানুন বা নিজস্ব চিন্তা-চেতনার মাধ্যম। এসব চিন্তা চেতনা মেনেই খেলোয়ারদের দক্ষ হয়ে দেশের সুনাম অর্জনে নিজেকে তৈরী করতে হবে।

সোমবার (৩রা জুলাই)বিকালে ময়মনসিংহের সদর উপজেলার পরানগঞ্জ ইউনিয়নের চর হাসাদিয়া এলকায় অবস্থিত পল্লী মাতা স্পোটিং ক্লাবের উদ্যোগে ঈদুল আযহা উপলক্ষে আয়োজিত ফুটবল খেলায প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

ইদ্রিস আলী বলেন-সমাজ থেকে কুসংস্কার, অন্যায়-অত্যাচার দূরীকরণে যেমন শিক্ষার বিকল্প নেই, তেমনি মাদকমুক্ত সমাজ গঠনেও খেলাধুলার কোনো বিকল্প নেই। সেজন্য লেখাপড়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা করার সুযোগ করে দিতেও তিনি সকলের প্রতি আহবান জানান।

তিনি বলেন-খেলাধুলা করে দেশে অনেকেই নাম করেছে। অর্থ উপার্জন ছাড়াও খেলাধুলায় পারদর্শী হলে একজন মানুষ জীবনে অনেক বড় হতে পারে। তবে সবাই যে বড় হবে তা নয়, খেলাধুলা, শরীর, দেহ, মন বেড়ে ওঠার জন্যও প্রয়োজন। খেলার উদ্ভোধক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পরানগঞ্জ ইউনিয়নের জনপ্রিয় চেয়ারম্যান এবং সদর জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক আবু হানিফ সরকার। খেলার সভাপতিত্ব করেন ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার রুবেল সরকারের সভাপতিত্বে খেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চান মিয়া সরকার, আওয়ামীলীগ নেতা রুহুল আমিন সরকারসহ এলাকার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গরা।

জাতীয় যুগ্ম আহবায়ক আরও বলেন, আমাদের সদর উপজেলা পল্লীমাতা বেগম রওশন এরশাদ এমপির নেতৃত্বে শিক্ষা ও ক্রীড়া ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে। এ অঞ্চলের অভিভাবকদের বলব, আপনার ছেলেমেয়েদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলুন। আগামী দিনে আধুনিক ও উন্নত বাংলাদেশ গঠনে যেন তারা ভূমিকা রাখতে পারে। তিনি বলেন, আজকের প্রজন্মরাই আগামী দিনে এই দেশকে গড়ে তুলবে। খারাপ সঙ্গ ত্যাগ করে বর্তমান প্রজন্মরা যেন ভবিষ্যতে দায়িত্বশীল মানুষ হয়ে উঠতে পারে, সে বিষয়ে অভিভাকদের খেয়াল রাখতে হবে। লেখাপড়ার পাশাপাশি ছেলেমেয়েদের খেলাধুলায়ও পারদর্শী করে তুলতে হবে। সমাজ থেকে মাদক দূরীকরণে সবাইকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

খেলাধুলা মানসিক ও সার্বিক বিকাশে সহায়তা করে- ইদ্রিস আলী

আপডেট সময় : ০৫:৫৭:২৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ জুলাই ২০২৩

ময়মনসিংহ জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম আহ্বায়ক ইদ্রিস আলী বলেন, শিক্ষার বড় ধরনের একটি অংশ হচ্ছে সাংস্কৃতি ও খেলা-ধুলায় অংশ নেয়া।
সমাজ থেকে মাদক দূরীকরণে পড়ালেখার পাশাপাশি খেলাধুলায় পারদর্শী হতে হবে। খেলাধুলা
হচ্ছে একটি সংগঠিত, প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ, বিনোদনধর্মী এবং দক্ষতাসূচক শারীরিক কার্যকলাপ প্রদর্শনের উত্তম ক্ষেত্র। শারীরিক ও মানসিক দৃঢ়তা, কলা-কৌশল এবং সুস্থ ক্রীড়া প্রদর্শন করে একজন বিজয়ী তার অপূর্ব ক্রীড়াশৈলীর নিদর্শন রাখতে পারেন। আর খেলাধুলা পরিচালিত হয় একগুচ্ছ নিয়ম-কানুন বা নিজস্ব চিন্তা-চেতনার মাধ্যম। এসব চিন্তা চেতনা মেনেই খেলোয়ারদের দক্ষ হয়ে দেশের সুনাম অর্জনে নিজেকে তৈরী করতে হবে।

সোমবার (৩রা জুলাই)বিকালে ময়মনসিংহের সদর উপজেলার পরানগঞ্জ ইউনিয়নের চর হাসাদিয়া এলকায় অবস্থিত পল্লী মাতা স্পোটিং ক্লাবের উদ্যোগে ঈদুল আযহা উপলক্ষে আয়োজিত ফুটবল খেলায প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

ইদ্রিস আলী বলেন-সমাজ থেকে কুসংস্কার, অন্যায়-অত্যাচার দূরীকরণে যেমন শিক্ষার বিকল্প নেই, তেমনি মাদকমুক্ত সমাজ গঠনেও খেলাধুলার কোনো বিকল্প নেই। সেজন্য লেখাপড়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা করার সুযোগ করে দিতেও তিনি সকলের প্রতি আহবান জানান।

তিনি বলেন-খেলাধুলা করে দেশে অনেকেই নাম করেছে। অর্থ উপার্জন ছাড়াও খেলাধুলায় পারদর্শী হলে একজন মানুষ জীবনে অনেক বড় হতে পারে। তবে সবাই যে বড় হবে তা নয়, খেলাধুলা, শরীর, দেহ, মন বেড়ে ওঠার জন্যও প্রয়োজন। খেলার উদ্ভোধক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পরানগঞ্জ ইউনিয়নের জনপ্রিয় চেয়ারম্যান এবং সদর জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক আবু হানিফ সরকার। খেলার সভাপতিত্ব করেন ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার রুবেল সরকারের সভাপতিত্বে খেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চান মিয়া সরকার, আওয়ামীলীগ নেতা রুহুল আমিন সরকারসহ এলাকার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গরা।

জাতীয় যুগ্ম আহবায়ক আরও বলেন, আমাদের সদর উপজেলা পল্লীমাতা বেগম রওশন এরশাদ এমপির নেতৃত্বে শিক্ষা ও ক্রীড়া ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে। এ অঞ্চলের অভিভাবকদের বলব, আপনার ছেলেমেয়েদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলুন। আগামী দিনে আধুনিক ও উন্নত বাংলাদেশ গঠনে যেন তারা ভূমিকা রাখতে পারে। তিনি বলেন, আজকের প্রজন্মরাই আগামী দিনে এই দেশকে গড়ে তুলবে। খারাপ সঙ্গ ত্যাগ করে বর্তমান প্রজন্মরা যেন ভবিষ্যতে দায়িত্বশীল মানুষ হয়ে উঠতে পারে, সে বিষয়ে অভিভাকদের খেয়াল রাখতে হবে। লেখাপড়ার পাশাপাশি ছেলেমেয়েদের খেলাধুলায়ও পারদর্শী করে তুলতে হবে। সমাজ থেকে মাদক দূরীকরণে সবাইকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান তিনি।