ঢাকা ০৯:০৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খাবার সংগ্রহে লাইনে দাঁড়ানো ফিলিস্তিনিদের গুলি, নিহত ১১২

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৬:২২:০৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪ ১৮ বার পড়া হয়েছে

গাজায় মানবিক সহায়তার খাবার সংগ্রহের জন্য লাইনে দাঁড়ানো ফিলিস্তিনিদের ওপর বৃহস্পতিবার গুলি চালিয়েছে ইসরাইলি বাহিনী। এতে অন্তত ১১২ জন নিহত এবং আরো ৭৬০ জন ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, গাজার নুসেইরাত, বুরেইজ ও খান ইউনিসের ক্যাম্পগুলোতে ইসরাইলের পৃথক বিমান হামলা ও গোলা নিক্ষেপে অন্তত ৩০ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

এছাড়াও গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, উত্তর গাজার কামাল আদওয়ান এবং আল-শিফা হাসপাতালে পানিশূন্যতা ও অপুষ্টিজনিত কারণে ছয় শিশু মারা গেছে, অন্যদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এদিকে, গাজা থেকে ভয়ঙ্কর গতিতে জীবন নিঃশেষ হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসঙ্ঘের মানবিক সহায়তা সংস্থার প্রধান মার্টিন গ্রিফিথ।

খাবার সংগ্রহকারীদের হত্যার বিষয়টিকে আরেকটি গণহত্যা হিসেবে উল্লেখ করে এর নিন্দা জানিয়েছে তুরস্ক। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, উত্তর গাজার এ ঘটনা আরেকটি মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ। এলাকাটি কয়েক মাস ধরে ইসরাইল অবরুদ্ধ করে রেখেছে এবং মানবিক সহায়তা প্রবেশেও বাধা দিয়েছে।

গত ৭ অক্টোবর থেকে ইসরাইলের অব্যাহত হামলায় সব মিলিয়ে নিহত ফিলিস্তিনির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩০ হাজার ৩৫ জন। এছাড়া আহত হয়েছেন আরো ৭০ হাজার ৪৫৭ জন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

খাবার সংগ্রহে লাইনে দাঁড়ানো ফিলিস্তিনিদের গুলি, নিহত ১১২

আপডেট সময় : ০৬:২২:০৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪

গাজায় মানবিক সহায়তার খাবার সংগ্রহের জন্য লাইনে দাঁড়ানো ফিলিস্তিনিদের ওপর বৃহস্পতিবার গুলি চালিয়েছে ইসরাইলি বাহিনী। এতে অন্তত ১১২ জন নিহত এবং আরো ৭৬০ জন ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, গাজার নুসেইরাত, বুরেইজ ও খান ইউনিসের ক্যাম্পগুলোতে ইসরাইলের পৃথক বিমান হামলা ও গোলা নিক্ষেপে অন্তত ৩০ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

এছাড়াও গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, উত্তর গাজার কামাল আদওয়ান এবং আল-শিফা হাসপাতালে পানিশূন্যতা ও অপুষ্টিজনিত কারণে ছয় শিশু মারা গেছে, অন্যদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এদিকে, গাজা থেকে ভয়ঙ্কর গতিতে জীবন নিঃশেষ হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসঙ্ঘের মানবিক সহায়তা সংস্থার প্রধান মার্টিন গ্রিফিথ।

খাবার সংগ্রহকারীদের হত্যার বিষয়টিকে আরেকটি গণহত্যা হিসেবে উল্লেখ করে এর নিন্দা জানিয়েছে তুরস্ক। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, উত্তর গাজার এ ঘটনা আরেকটি মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ। এলাকাটি কয়েক মাস ধরে ইসরাইল অবরুদ্ধ করে রেখেছে এবং মানবিক সহায়তা প্রবেশেও বাধা দিয়েছে।

গত ৭ অক্টোবর থেকে ইসরাইলের অব্যাহত হামলায় সব মিলিয়ে নিহত ফিলিস্তিনির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩০ হাজার ৩৫ জন। এছাড়া আহত হয়েছেন আরো ৭০ হাজার ৪৫৭ জন।