ঢাকা ০১:২৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ক্রীড়া খাতে বরাদ্দ বেড়েছে ২৭ কোটি

ক্রীড়া ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৭:৪৭:১২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২ জুন ২০২৩ ৬০ বার পড়া হয়েছে

বাজেটে ক্রীড়া খাতে বরাদ্দ বাড়ানোর প্রত্যাশা ছিল, সেই প্রত্যাশা পূরণ হতে যাচ্ছে। ২০২৩-২৪ অর্থ বছরের বাজেটে ক্রীড়া খাতে ২৭ কোটি টাকা বরাদ্দ বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

আগের অর্থবছরে এই খাতে বাজেটের পরিমাণ ছিল ১ হাজার ২৮২ কোটি টাকা। চলতি বছরে ক্রীড়া খাতে বরাদ্দ করা হয়েছে ১ হাজার ৩০৯ কোটি টাকা।

অর্থমন্ত্রী বৃহস্পতিবার (১ জুন) জাতীয় সংসদে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত বাজেট বক্তৃতায় বলেন, সরকার ক্রীড়ার মানোন্নয়ন ও খেলাধুলার সুযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে আধুনিক স্টেডিয়াম, জিমনেশিয়াম, সুইমিংপুলসহ বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মাণ ও উন্নয়ন করে আসছে।

তিনি আরো বলেন, ক্রীড়া ক্লাবসমূহে বিনামূল্যে ক্রীড়া সামগ্রী প্রদান করা হচ্ছে। তাছাড়া উপজেলা শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। দ্বিতীয় পর্যায়ে আরো ১৮৬টি উপজেলা স্টেডিয়াম নির্মাণের কাজ চলমান রয়েছে। দক্ষ খেলোয়াড় তৈরির জন্য ক্রীড়া প্রতিভা অন্বেষণ করে বিভিন্ন বিভাগ থেকে নিয়মিত প্রতিভাবান খেলোয়াড় খুঁজে বের করার প্রক্রিয়া চলছে।

পাশপাশি, খেলোয়াড়দের স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি প্রশিক্ষণ প্রদান, ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ক্রীড়া দল প্রেরণ ও অংশগ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়া হচ্ছে।

আমাদের খেলোয়াড়দের সাফল্য বিশ্ব দরবারে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে। বাংলাদেশের মেয়েরাও জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে সফলতার স্বাক্ষর রাখছে। খেলোয়াড়দের কল্যাণের দিকেও আমরা বিশেষ দৃষ্টি রাখছি।

বিশিষ্ট ক্রীড়াবিদ/সংগঠকদের জন্য শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার প্রবর্তন করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবী কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে প্রতি বছর অসচ্ছল, আহত ও অসমর্থ ক্রীড়াসেবীদের মাসিক ভাতা ও এককালীন অনুদান এবং চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে।

অনেক সমস্যা ও প্রতিবন্ধকতা থাকা সত্ত্বেও কিন্তু দেশের ক্রীড়াঙ্গন ধাপে ধাপে এগিয়ে চলেছে। গত কয়েক বছরে তরুণরা ক্রীড়াঙ্গনকে বেশ কয়েকটি চিত্তাকর্ষক জয় উপহার দিয়েছে। সবমিলিয়ে এই বরাদ্দ ক্রীড়াখাতের উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন অর্থনীতিবীদরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ক্রীড়া খাতে বরাদ্দ বেড়েছে ২৭ কোটি

আপডেট সময় : ০৭:৪৭:১২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২ জুন ২০২৩

বাজেটে ক্রীড়া খাতে বরাদ্দ বাড়ানোর প্রত্যাশা ছিল, সেই প্রত্যাশা পূরণ হতে যাচ্ছে। ২০২৩-২৪ অর্থ বছরের বাজেটে ক্রীড়া খাতে ২৭ কোটি টাকা বরাদ্দ বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

আগের অর্থবছরে এই খাতে বাজেটের পরিমাণ ছিল ১ হাজার ২৮২ কোটি টাকা। চলতি বছরে ক্রীড়া খাতে বরাদ্দ করা হয়েছে ১ হাজার ৩০৯ কোটি টাকা।

অর্থমন্ত্রী বৃহস্পতিবার (১ জুন) জাতীয় সংসদে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত বাজেট বক্তৃতায় বলেন, সরকার ক্রীড়ার মানোন্নয়ন ও খেলাধুলার সুযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে আধুনিক স্টেডিয়াম, জিমনেশিয়াম, সুইমিংপুলসহ বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মাণ ও উন্নয়ন করে আসছে।

তিনি আরো বলেন, ক্রীড়া ক্লাবসমূহে বিনামূল্যে ক্রীড়া সামগ্রী প্রদান করা হচ্ছে। তাছাড়া উপজেলা শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। দ্বিতীয় পর্যায়ে আরো ১৮৬টি উপজেলা স্টেডিয়াম নির্মাণের কাজ চলমান রয়েছে। দক্ষ খেলোয়াড় তৈরির জন্য ক্রীড়া প্রতিভা অন্বেষণ করে বিভিন্ন বিভাগ থেকে নিয়মিত প্রতিভাবান খেলোয়াড় খুঁজে বের করার প্রক্রিয়া চলছে।

পাশপাশি, খেলোয়াড়দের স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি প্রশিক্ষণ প্রদান, ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ক্রীড়া দল প্রেরণ ও অংশগ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়া হচ্ছে।

আমাদের খেলোয়াড়দের সাফল্য বিশ্ব দরবারে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে। বাংলাদেশের মেয়েরাও জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে সফলতার স্বাক্ষর রাখছে। খেলোয়াড়দের কল্যাণের দিকেও আমরা বিশেষ দৃষ্টি রাখছি।

বিশিষ্ট ক্রীড়াবিদ/সংগঠকদের জন্য শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার প্রবর্তন করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবী কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে প্রতি বছর অসচ্ছল, আহত ও অসমর্থ ক্রীড়াসেবীদের মাসিক ভাতা ও এককালীন অনুদান এবং চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে।

অনেক সমস্যা ও প্রতিবন্ধকতা থাকা সত্ত্বেও কিন্তু দেশের ক্রীড়াঙ্গন ধাপে ধাপে এগিয়ে চলেছে। গত কয়েক বছরে তরুণরা ক্রীড়াঙ্গনকে বেশ কয়েকটি চিত্তাকর্ষক জয় উপহার দিয়েছে। সবমিলিয়ে এই বরাদ্দ ক্রীড়াখাতের উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন অর্থনীতিবীদরা।