ঢাকা ১২:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

কুষ্টিয়ায় শ্বাসরোধ গৃহবধূকে হত্যার দায়ে তিনজনের যাবজ্জীবন

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০১:৫৭:৩২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ মার্চ ২০২৩ ৯১ বার পড়া হয়েছে

কুষ্টিয়ার মিরপুরে রুনা খাতুন (৪৪) নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার দায়ে তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (১ মার্চ) দুপুর দেড়টার দিকে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-১ এর বিচারক মো. তাজুল ইসলাম আসামিদের উপস্থিততে এই রায় ঘোষণা করেন। এছাড়া একই মামলায় অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তিন আসামিকে খালাসে দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার পর দণ্ডপ্রাপ্তদের কড়া পুলিশ পাহারায় জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

কুষ্টিয়া জজ আদালতের কৌসুলি (পিপি) অ্যাডভোকেট অনুপ কমার নন্দি রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, মিরপুর উপজেলার নফরকান্দী ছোন্দুয়া ক্যানেলপাড়া গ্রামের জান আলীর ছেলে আব্দুস সামাদ (৩০), শামসুল আক্তার বাগুজার ছেলে মতিয়ার রহমান (৪৭) এবং মৃত আব্দুল গণি সর্দ্দারের ছেলে ছালিম সর্দ্দার (৫০)।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ এবং আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১৫ আগস্ট রুনা ও তার স্বামী তাদের সন্তানদের নিয়ে রাতে খাওয়ার পর ঘুমিয়ে পড়েন। মধ্যরাতে প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হন রুনা। কিন্তু দীর্ঘ সময়েও ঘরে আসেননি তিনি। এরপর ওই দিন অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে কোথাও পাওয়া যায়নি। সকালে তার স্বামী জানতে পারেন রুনার লাশ ডুকরা কবরস্থানে পড়ে আছে। পরে ময়নাতদন্তে বেরিয়ে আসে রুনাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। ওই দিনই রুনার স্বামী মিরপুর থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

আদালত ‍সূত্রে আরও জানা গেছে, দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২০১৬ সালের ১৭ ডিসেম্বর অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চার্জশিট তৈরি করে আদালতে জমাদেন তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই রাজীব শিকদার। পরে সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে আজকের রায় ঘোষণা করেন আদালত।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

কুষ্টিয়ায় শ্বাসরোধ গৃহবধূকে হত্যার দায়ে তিনজনের যাবজ্জীবন

আপডেট সময় : ০১:৫৭:৩২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ মার্চ ২০২৩

কুষ্টিয়ার মিরপুরে রুনা খাতুন (৪৪) নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার দায়ে তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (১ মার্চ) দুপুর দেড়টার দিকে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-১ এর বিচারক মো. তাজুল ইসলাম আসামিদের উপস্থিততে এই রায় ঘোষণা করেন। এছাড়া একই মামলায় অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তিন আসামিকে খালাসে দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার পর দণ্ডপ্রাপ্তদের কড়া পুলিশ পাহারায় জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

কুষ্টিয়া জজ আদালতের কৌসুলি (পিপি) অ্যাডভোকেট অনুপ কমার নন্দি রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, মিরপুর উপজেলার নফরকান্দী ছোন্দুয়া ক্যানেলপাড়া গ্রামের জান আলীর ছেলে আব্দুস সামাদ (৩০), শামসুল আক্তার বাগুজার ছেলে মতিয়ার রহমান (৪৭) এবং মৃত আব্দুল গণি সর্দ্দারের ছেলে ছালিম সর্দ্দার (৫০)।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ এবং আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১৫ আগস্ট রুনা ও তার স্বামী তাদের সন্তানদের নিয়ে রাতে খাওয়ার পর ঘুমিয়ে পড়েন। মধ্যরাতে প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হন রুনা। কিন্তু দীর্ঘ সময়েও ঘরে আসেননি তিনি। এরপর ওই দিন অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে কোথাও পাওয়া যায়নি। সকালে তার স্বামী জানতে পারেন রুনার লাশ ডুকরা কবরস্থানে পড়ে আছে। পরে ময়নাতদন্তে বেরিয়ে আসে রুনাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। ওই দিনই রুনার স্বামী মিরপুর থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

আদালত ‍সূত্রে আরও জানা গেছে, দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২০১৬ সালের ১৭ ডিসেম্বর অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চার্জশিট তৈরি করে আদালতে জমাদেন তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই রাজীব শিকদার। পরে সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে আজকের রায় ঘোষণা করেন আদালত।