ঢাকা ০১:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কুষ্টিয়ায় আগুনে পুড়ে ঘুমন্ত দুই বোনের মৃত্যু

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৯:২৮:৫০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৩ ৬৭ বার পড়া হয়েছে

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে নিজ বাড়িতে ঘুমন্ত অবস্থায় আগুন লেগে মারা গেল দুই বোন। সোনিয়া খাতুন (৮) ও শর্মিলা খাতুন (২) নামে দুই বোন দুপুরে ঘুমিয়ে ছিল ঘরে। মা ঘরের পাশে রান্নাঘরে কাজ করছিলেন। হঠাৎ রান্নাঘরে আগুন লাগে। মুহূর্তেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে শোবার ঘরে। এতে ঘুমের মধ্যে আগুনে পুড়ে মারা যায় ওই দুই বোন।বুধবার বেলা ৩টার দিকে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার দীঘলকান্দি গ্রামে হৃদয়বিদারক এ দুর্ঘটনা ঘটে। দৌলতপুর থানা-পুলিশ মরদেহ দুটি উদ্ধার করেছে।

আগুন লাগার খবর পেয়ে ভেড়ামার ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে দুটি বাড়ি পুড়ে ভস্মীভূত হয় এবং আগুনে পুড়ে মারা যায় ওই দুই শিশু। পরে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

দৌলতপুর উপজেলায় কোনো ফায়ার সার্ভিস কার্যালয় নেই। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে সেখানে মিরপুর উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের দল যায়।

স্থানীয় দীঘলকান্দি পুলিশ ক্যাম্পের এসআই জামাল হোসেন জানান, কোনো অভিযোগ না থাকায় মরদেহ দুটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তাৎক্ষণিক আগুন লাগার কারণ জানাতে পারেননি দমকল কর্মীরা। তবে রান্নাঘরের চুলা অথবা বিদ্যুতের শর্টসার্কিট থেকে আগুন সূত্রপাত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

রিফাইতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ বাবলু বলেন, আগুনে দুটি পরিবারের অন্তত পাঁচ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

কুষ্টিয়ায় আগুনে পুড়ে ঘুমন্ত দুই বোনের মৃত্যু

আপডেট সময় : ০৯:২৮:৫০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৩

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে নিজ বাড়িতে ঘুমন্ত অবস্থায় আগুন লেগে মারা গেল দুই বোন। সোনিয়া খাতুন (৮) ও শর্মিলা খাতুন (২) নামে দুই বোন দুপুরে ঘুমিয়ে ছিল ঘরে। মা ঘরের পাশে রান্নাঘরে কাজ করছিলেন। হঠাৎ রান্নাঘরে আগুন লাগে। মুহূর্তেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে শোবার ঘরে। এতে ঘুমের মধ্যে আগুনে পুড়ে মারা যায় ওই দুই বোন।বুধবার বেলা ৩টার দিকে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার দীঘলকান্দি গ্রামে হৃদয়বিদারক এ দুর্ঘটনা ঘটে। দৌলতপুর থানা-পুলিশ মরদেহ দুটি উদ্ধার করেছে।

আগুন লাগার খবর পেয়ে ভেড়ামার ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে দুটি বাড়ি পুড়ে ভস্মীভূত হয় এবং আগুনে পুড়ে মারা যায় ওই দুই শিশু। পরে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

দৌলতপুর উপজেলায় কোনো ফায়ার সার্ভিস কার্যালয় নেই। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে সেখানে মিরপুর উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের দল যায়।

স্থানীয় দীঘলকান্দি পুলিশ ক্যাম্পের এসআই জামাল হোসেন জানান, কোনো অভিযোগ না থাকায় মরদেহ দুটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তাৎক্ষণিক আগুন লাগার কারণ জানাতে পারেননি দমকল কর্মীরা। তবে রান্নাঘরের চুলা অথবা বিদ্যুতের শর্টসার্কিট থেকে আগুন সূত্রপাত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

রিফাইতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ বাবলু বলেন, আগুনে দুটি পরিবারের অন্তত পাঁচ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।