ঢাকা ০৮:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ছাত্রদলের নতুন সভাপতি রাকিব, সাধারণ সম্পাদক নাসির জ্বালানি তেলের স্বয়ংক্রিয় দাম নির্ধারণে প্রজ্ঞাপন জারি খাবার সংগ্রহে লাইনে দাঁড়ানো ফিলিস্তিনিদের গুলি, নিহত ১১২ রাজশাহীতে ভোক্তা অধিকার অধিদফতরের অভিযান না থাকায় ক্রমেই বাড়ছে পেঁয়াজের দাম ঘুড়ি প্রতীকের বিজয়ে সর্বাত্মক সহযোগিতা চান কাউন্সিলর প্রার্থী আসলাম ‘অগ্নি নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানোর নির্দেশ দিলেও মানা হচ্ছে না’ নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রীকে নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জারি ২৩নং ওয়ার্ডকে পরিকল্পিত আধুনিক এলাকা গড়তে চান – রানা বেইলি রোডে ভয়াবহ আগুনে পুড়ে নিহত ৪৪ চাঁপাইনবাবগঞ্জে জমি জবরদখল ও গাছ কাটার প্রতিবাদে মানববন্ধন

এখনো সময় আছে সরে যান: সরকারকে ফখরুল

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৩:২৫:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ৫৯ বার পড়া হয়েছে

আন্দোলনে সবসময় জনগণ জয়ী হয়েছে, এবারও হবে মন্তব্য করেছে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ এখন আমাদের আন্দোলনকে ভয় পায়। এখনো সময় আছে সরে যান। এ সরকারের পদত্যাগের দাবি এখন সারা বাংলাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে। আন্দোলনের সব সময় দেশের জনগণ জয়ী হয়েছে, এবারও জয়ী হবে।

শুক্রবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে গোপীবাগে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচির আগে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

নেতাকর্মীদের জেলে পাঠিয়েও সরকার বিএনপিকে আটকাতে পারছে না বলে মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের আন্দোলনের দশজন নেতাকর্মীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। রাত হলে পুলিশ পাড়ায় পাড়ায় আমাদের নেতাকর্মীদের আটক করছে। তবুও তারা আমাদের দমাতে পারছে না। কারণ বিএনপি ক্ষমতা যাওয়ার রাজনীতি করছে না, জনগণের অধিকার আদায়ের রাজনীতি করছে।’

গণতন্ত্র সম্মেলনে দাওয়াত না পাওয়া বাংলাদেশের জন্য দুঃখজনক বলে মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আজকে বাংলাদেশ গণতন্ত্র সম্মেলনের দাওয়াত পাচ্ছে না। এটা আমাদের জন্য দুঃখজনক। এই সরকার বাংলাদেশের গণতন্ত্রের সব কিছু ধ্বংস করে দিয়েছে। আজকে বলে দিতে চাই আওয়ামী লীগ একটি সন্ত্রাসী দল। সেটা এখন পুরো বিশ্বের কাছে প্রমাণিত হয়েছে। আমাদের সোজা কথা এ সরকারের অধীনে আর ‘কুত্তা’ মার্কা নির্বাচনে আমরা আর যাব না।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা পায়ে হেঁটে পথযাত্রায় মানুষকে বার্তা দিয়ে যাব। আর সময় নেই রাজপথে নেমে আসতে হবে। অনেক হয়েছে এই বিনা ভোটের সরকার মানুষের ওপর নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে। প্রতিদিন চালের দাম বাড়ছে ডিম কিনেও খেতে পারছে না। নিত্যপণ্যের জিনিসের দাম বেড়ে গেছে। কোথাও কোনো শান্তি নেই। দেশের জনগণ গরিব হচ্ছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ধনী হচ্ছে। এই সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করেছে, র‌্যাবকে ব্যবহার করেছিল তাদেরকে স্যাংশন দেওয়া হয়েছে। এখন তারা পুলিশকে ব্যবহার করছে।’

বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, ‘রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে এ সংবিধান দিয়ে দেশ পরিচালিত হতে পারে না। আমরা ২৭ দফার কথা বলেছি, এর মধ্যে রয়েছে সংবিধান সংশোধনের কথা। সকল মানুষের অংশগ্রহণ নির্বাচনের জন্য আমরা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কথা বলেছি। চুরির একটা সীমা আছে। এ সরকার সবকিছু ছাড়িয়ে গেছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

এখনো সময় আছে সরে যান: সরকারকে ফখরুল

আপডেট সময় : ০৩:২৫:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

আন্দোলনে সবসময় জনগণ জয়ী হয়েছে, এবারও হবে মন্তব্য করেছে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ এখন আমাদের আন্দোলনকে ভয় পায়। এখনো সময় আছে সরে যান। এ সরকারের পদত্যাগের দাবি এখন সারা বাংলাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে। আন্দোলনের সব সময় দেশের জনগণ জয়ী হয়েছে, এবারও জয়ী হবে।

শুক্রবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে গোপীবাগে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচির আগে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

নেতাকর্মীদের জেলে পাঠিয়েও সরকার বিএনপিকে আটকাতে পারছে না বলে মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের আন্দোলনের দশজন নেতাকর্মীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। রাত হলে পুলিশ পাড়ায় পাড়ায় আমাদের নেতাকর্মীদের আটক করছে। তবুও তারা আমাদের দমাতে পারছে না। কারণ বিএনপি ক্ষমতা যাওয়ার রাজনীতি করছে না, জনগণের অধিকার আদায়ের রাজনীতি করছে।’

গণতন্ত্র সম্মেলনে দাওয়াত না পাওয়া বাংলাদেশের জন্য দুঃখজনক বলে মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আজকে বাংলাদেশ গণতন্ত্র সম্মেলনের দাওয়াত পাচ্ছে না। এটা আমাদের জন্য দুঃখজনক। এই সরকার বাংলাদেশের গণতন্ত্রের সব কিছু ধ্বংস করে দিয়েছে। আজকে বলে দিতে চাই আওয়ামী লীগ একটি সন্ত্রাসী দল। সেটা এখন পুরো বিশ্বের কাছে প্রমাণিত হয়েছে। আমাদের সোজা কথা এ সরকারের অধীনে আর ‘কুত্তা’ মার্কা নির্বাচনে আমরা আর যাব না।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা পায়ে হেঁটে পথযাত্রায় মানুষকে বার্তা দিয়ে যাব। আর সময় নেই রাজপথে নেমে আসতে হবে। অনেক হয়েছে এই বিনা ভোটের সরকার মানুষের ওপর নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে। প্রতিদিন চালের দাম বাড়ছে ডিম কিনেও খেতে পারছে না। নিত্যপণ্যের জিনিসের দাম বেড়ে গেছে। কোথাও কোনো শান্তি নেই। দেশের জনগণ গরিব হচ্ছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ধনী হচ্ছে। এই সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করেছে, র‌্যাবকে ব্যবহার করেছিল তাদেরকে স্যাংশন দেওয়া হয়েছে। এখন তারা পুলিশকে ব্যবহার করছে।’

বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, ‘রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে এ সংবিধান দিয়ে দেশ পরিচালিত হতে পারে না। আমরা ২৭ দফার কথা বলেছি, এর মধ্যে রয়েছে সংবিধান সংশোধনের কথা। সকল মানুষের অংশগ্রহণ নির্বাচনের জন্য আমরা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কথা বলেছি। চুরির একটা সীমা আছে। এ সরকার সবকিছু ছাড়িয়ে গেছে।’