ঢাকা ০৭:৫৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

উত্তর প্রদেশে তীব্র গরমে ৫৪ জনের মৃত্যু, ৪০০ জন হাসপাতালে

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৮:০৩:০৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৮ জুন ২০২৩ ৪৫ বার পড়া হয়েছে

তীব্র গরমে ধুঁকছে ভারতের সবচেয়ে জনবহুল রাজ্য উত্তর প্রদেশ। ক্রমবর্ধমান তাপমাত্রায় অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে জনজীবন।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, গত তিন দিনে উত্তরপ্রদেশের বালিয়া জেলায় হাসপাতালে মারা গেছে ৫৪ জন এবং ভর্তি হয়েছেন প্রায় ৪০০। এ ছাড়া প্রচণ্ড গরমের কারণে প্রতিনিয়ত হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা বাড়ছে বলে জানান চিকিৎসকরা।

মৃত্যুর বিভিন্ন কারণ থাকলেও প্রচণ্ড গরম একটি কারণ হতে পারে বলছেন চিকিৎসকরা।

আজমগড় এলাকার অতিরিক্ত স্বাস্থ্য পরিচালক ডাঃ বিপি তিওয়ারি বলেন, ‘মৃতদের নির্দিষ্ট কোন রোগ শনাক্ত করা যাচ্ছে না। অতিরিক্ত গরম বা অতিরিক্ত ঠান্ডা হলে শ্বাসকষ্টের রোগী, ডায়াবেটিস রোগী এবং রক্তচাপের রোগীদের ঝুঁকি বেড়ে যায়।‘

এ বিষয় তদন্ত করতে লাখনউ থেকে একটি দল আসছে বলেও জানান তিনি।

বর্তমানে বালিয়ার জেলা হাসপাতালগুলোতে রোগীদের এত ভিড় যে স্ট্রেচার পাচ্ছেন না রোগীরা। অনেক ক্ষেত্রে রোগীদের কাঁধে করে জরুরি ওয়ার্ডে নিয়ে যাচ্ছেন হাসপাতাল সংশ্লিষ্টরা।

ভারতের আবহাওয়া দপ্তরের তথ্য অনুযায়ী শুক্রবার বালিয়া জেলায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪২ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস (১০৮ ডিগ্রি ফারেনহাইট) ছিল, যা স্বাভাবিকের চেয়ে ৪ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস (৮ ফারেনহাইট) বেশি।

এ ছাড়া কয়েকদিন ধরেই টানা তাপপ্রবাহ চলছে রাজ্যটিতে। বেশিরভাগ জায়গায় তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির উপরে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

উত্তর প্রদেশে তীব্র গরমে ৫৪ জনের মৃত্যু, ৪০০ জন হাসপাতালে

আপডেট সময় : ০৮:০৩:০৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৮ জুন ২০২৩

তীব্র গরমে ধুঁকছে ভারতের সবচেয়ে জনবহুল রাজ্য উত্তর প্রদেশ। ক্রমবর্ধমান তাপমাত্রায় অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে জনজীবন।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, গত তিন দিনে উত্তরপ্রদেশের বালিয়া জেলায় হাসপাতালে মারা গেছে ৫৪ জন এবং ভর্তি হয়েছেন প্রায় ৪০০। এ ছাড়া প্রচণ্ড গরমের কারণে প্রতিনিয়ত হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা বাড়ছে বলে জানান চিকিৎসকরা।

মৃত্যুর বিভিন্ন কারণ থাকলেও প্রচণ্ড গরম একটি কারণ হতে পারে বলছেন চিকিৎসকরা।

আজমগড় এলাকার অতিরিক্ত স্বাস্থ্য পরিচালক ডাঃ বিপি তিওয়ারি বলেন, ‘মৃতদের নির্দিষ্ট কোন রোগ শনাক্ত করা যাচ্ছে না। অতিরিক্ত গরম বা অতিরিক্ত ঠান্ডা হলে শ্বাসকষ্টের রোগী, ডায়াবেটিস রোগী এবং রক্তচাপের রোগীদের ঝুঁকি বেড়ে যায়।‘

এ বিষয় তদন্ত করতে লাখনউ থেকে একটি দল আসছে বলেও জানান তিনি।

বর্তমানে বালিয়ার জেলা হাসপাতালগুলোতে রোগীদের এত ভিড় যে স্ট্রেচার পাচ্ছেন না রোগীরা। অনেক ক্ষেত্রে রোগীদের কাঁধে করে জরুরি ওয়ার্ডে নিয়ে যাচ্ছেন হাসপাতাল সংশ্লিষ্টরা।

ভারতের আবহাওয়া দপ্তরের তথ্য অনুযায়ী শুক্রবার বালিয়া জেলায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪২ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস (১০৮ ডিগ্রি ফারেনহাইট) ছিল, যা স্বাভাবিকের চেয়ে ৪ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস (৮ ফারেনহাইট) বেশি।

এ ছাড়া কয়েকদিন ধরেই টানা তাপপ্রবাহ চলছে রাজ্যটিতে। বেশিরভাগ জায়গায় তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির উপরে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।