ঢাকা ১১:০৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নবগঠিত কমিটির যাত্রা শুরু চালের বস্তায় দামসহ থাকতে হবে সব তথ্য, পরিপত্র জারি টি-টোয়েন্টিতে দ্রুততম ১০ হাজারে শীর্ষে বাবর অমর একুশে ময়মনসিংহে শহীদ বেদীতে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের শ্রদ্ধা নিবেদন ১৯৩ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা অনুমোদন ইইউ’র স্মার্ট হতে ইংরেজিতে কথা বলতে হবে তা ঠিক নয়: প্রধানমন্ত্রী ভাষা শহীদদের স্মরণে দেশের প্রথম শহীদ মিনারে আরসিআরইউ’র শ্রদ্ধা স্মার্ট ত্রিশাল উপজেলা গড়তে জনগণের সেবক হতে চান’যুবনেতা জুয়েল সরকার পুঠিয়ায় শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত চুরির অপবাদ সইতে না পেরে পুঠিয়ায় নৈশ্য প্রহোরীর আত্মহত্যা

ইন্দোনেশিয়ায় তেলের ডিপোতে আগুন, নিহত ১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৫:৫৪:০৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৪ মার্চ ২০২৩ ৬৩ বার পড়া হয়েছে

ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তার উত্তরাঞ্চলের তানাহ মেরাহ এলাকায় বড় একটি তেলের ডিপোতে আগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় দুই শিশুসহ অন্তত ১৭ জন নিহত হয়েছেন এবং ৫০ জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের কয়েকজনের শরীর ব্যাপক মাত্রায় পুড়ে গেছে। ফলে নিহতের সংখ্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

স্থানীয় সময় শুক্রবার (৩ মার্চ) রাত ৮টার দিকে ছড়িয়ে পড়া আগুন রাত সাড়ে ১০টায় নিয়ন্ত্রণে আসে। ফায়ার সার্ভিসের ২৬০ জন এবং ৫২টি গাড়ি এ কাজে অংশ নেয়।

স্থানীয় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে মার্কিন বার্তাসংস্থা এপি নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উত্তর জাকার্তার তানাহ মেরাহ এলাকার প্লামপ্যাং ফুয়েল স্টোরেজ স্টেশন নামের সেই তেলের ডিপোতে শুক্রবার রাত ৮ টার দিকে আকস্মিকভাবে আগুনের সূত্রপাত ঘটে এবং দ্রুত তা ছড়িয়ে পড়ে পার্শ্ববর্তী জনবসতিপূর্ণ এলাকায়। ইন্দোনেশিয়ার মোট জ্বালনি তেলের চাহিদার ২৫ শতাংশ সরবরাহ আসে এই ডিপো থেকে।

তানাহ মেরাহ এলাকার সেই তেলের ডিপোটি ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ব তেল-গ্যাস কোম্পানি পেরতামিনার। কোম্পানির এরিয়া ম্যানেজার ইকো ক্রিস্তিয়াওয়ান গতকাল সাংবাদিকদের বলেন, ঝড়ো বজ্রপাতের কারণে ডিপোর পাইপলাইন ফেটে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে জানা গেছে। এই আগুনের কারণে দেশের জ্বালানি তেলের সরবরাহে কোনো প্রভাব পড়বে না বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

ইন্দোনেশিয়ার কেন্দ্রীয় ফায়ার সার্ভিস দপ্তরের জাকার্তা শাখার প্রধান সাত্রিয়াদি গুনাওয়ান জানিয়েছেন, আহত ৫০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।

দুর্ঘটনাস্থল থেকে অনেক মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তাদের আপাতত জাকার্তার কয়েকটি সরকারি অফিসের কার্যালয় ও একটি স্টেডিয়ামে রাখা হয়েছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন জাকার্তার গভর্নর হেরু বুদি হারতোনো।

ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ব কোম্পানি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী এরিক থোহির এক শোকবার্তায় আগুনে হতাহতদের পরিবারের সদস্যদের আন্তরিক সমবেদনা জানিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

ইন্দোনেশিয়ায় তেলের ডিপোতে আগুন, নিহত ১৭

আপডেট সময় : ০৫:৫৪:০৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৪ মার্চ ২০২৩

ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তার উত্তরাঞ্চলের তানাহ মেরাহ এলাকায় বড় একটি তেলের ডিপোতে আগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় দুই শিশুসহ অন্তত ১৭ জন নিহত হয়েছেন এবং ৫০ জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের কয়েকজনের শরীর ব্যাপক মাত্রায় পুড়ে গেছে। ফলে নিহতের সংখ্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

স্থানীয় সময় শুক্রবার (৩ মার্চ) রাত ৮টার দিকে ছড়িয়ে পড়া আগুন রাত সাড়ে ১০টায় নিয়ন্ত্রণে আসে। ফায়ার সার্ভিসের ২৬০ জন এবং ৫২টি গাড়ি এ কাজে অংশ নেয়।

স্থানীয় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে মার্কিন বার্তাসংস্থা এপি নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উত্তর জাকার্তার তানাহ মেরাহ এলাকার প্লামপ্যাং ফুয়েল স্টোরেজ স্টেশন নামের সেই তেলের ডিপোতে শুক্রবার রাত ৮ টার দিকে আকস্মিকভাবে আগুনের সূত্রপাত ঘটে এবং দ্রুত তা ছড়িয়ে পড়ে পার্শ্ববর্তী জনবসতিপূর্ণ এলাকায়। ইন্দোনেশিয়ার মোট জ্বালনি তেলের চাহিদার ২৫ শতাংশ সরবরাহ আসে এই ডিপো থেকে।

তানাহ মেরাহ এলাকার সেই তেলের ডিপোটি ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ব তেল-গ্যাস কোম্পানি পেরতামিনার। কোম্পানির এরিয়া ম্যানেজার ইকো ক্রিস্তিয়াওয়ান গতকাল সাংবাদিকদের বলেন, ঝড়ো বজ্রপাতের কারণে ডিপোর পাইপলাইন ফেটে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে জানা গেছে। এই আগুনের কারণে দেশের জ্বালানি তেলের সরবরাহে কোনো প্রভাব পড়বে না বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

ইন্দোনেশিয়ার কেন্দ্রীয় ফায়ার সার্ভিস দপ্তরের জাকার্তা শাখার প্রধান সাত্রিয়াদি গুনাওয়ান জানিয়েছেন, আহত ৫০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।

দুর্ঘটনাস্থল থেকে অনেক মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তাদের আপাতত জাকার্তার কয়েকটি সরকারি অফিসের কার্যালয় ও একটি স্টেডিয়ামে রাখা হয়েছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন জাকার্তার গভর্নর হেরু বুদি হারতোনো।

ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ব কোম্পানি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী এরিক থোহির এক শোকবার্তায় আগুনে হতাহতদের পরিবারের সদস্যদের আন্তরিক সমবেদনা জানিয়েছেন।