ইউক্রেন-রাশিয়া শান্তি আলোচনা সম্ভব

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৫:০০:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২২ ৮৭ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ইউক্রেন যুদ্ধ নিরসনে শান্তি আলোচনা সম্ভব, তবে তা ইউক্রেনের পূর্বশর্ত অনুযায়ী হবে না। এমন মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার ডেপুটি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মিখাইল গালুজিন। খবর তাসের।

রাশিয়ার এ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘ইউক্রেনের রাজনীতিবিদদের রুশবিরোধী মনোভাব, অসতর্কতার এবং দূরদর্শিতার কারণে ইউক্রেন সংকটের নিরসন হচ্ছে না। রাশিয়া চায় আলোচনা করতে কিন্তু তারা চায় না।

ইউক্রেন যেসব শর্ত দিয়ে আলোচনায় বসতে চায় তা সম্ভব নয়। এখন সবকিছুই কিয়েভের ওপর নির্ভর করছে। তারা চাইলেই যুদ্ধ থেমে যাবে।’ এ সময় ইউক্রেনের নানা পদক্ষেপের সমালোচনা করেছেন গালুজিন।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর থেকেই বিভিন্ন সময় শান্তি আলোচনার হয় রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে। তবে কয়েকদফা আলোচনার পরও কোনো সমাধান হয়নি। এখনো একে অপরকে দোষারোপে লিপ্ত দুদেশ।

প্রসঙ্গত, গত সেপ্টেম্বরে ইউক্রেনের ১৫ শতাংশ অঞ্চল গণভোটের মাধ্যমে দখলে নিয়েছে রাশিয়া, যা এখনো মেনে নেয়নি ইউক্রেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ইউক্রেন-রাশিয়া শান্তি আলোচনা সম্ভব

আপডেট সময় : ০৫:০০:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২২

ইউক্রেন যুদ্ধ নিরসনে শান্তি আলোচনা সম্ভব, তবে তা ইউক্রেনের পূর্বশর্ত অনুযায়ী হবে না। এমন মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার ডেপুটি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মিখাইল গালুজিন। খবর তাসের।

রাশিয়ার এ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘ইউক্রেনের রাজনীতিবিদদের রুশবিরোধী মনোভাব, অসতর্কতার এবং দূরদর্শিতার কারণে ইউক্রেন সংকটের নিরসন হচ্ছে না। রাশিয়া চায় আলোচনা করতে কিন্তু তারা চায় না।

ইউক্রেন যেসব শর্ত দিয়ে আলোচনায় বসতে চায় তা সম্ভব নয়। এখন সবকিছুই কিয়েভের ওপর নির্ভর করছে। তারা চাইলেই যুদ্ধ থেমে যাবে।’ এ সময় ইউক্রেনের নানা পদক্ষেপের সমালোচনা করেছেন গালুজিন।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর থেকেই বিভিন্ন সময় শান্তি আলোচনার হয় রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে। তবে কয়েকদফা আলোচনার পরও কোনো সমাধান হয়নি। এখনো একে অপরকে দোষারোপে লিপ্ত দুদেশ।

প্রসঙ্গত, গত সেপ্টেম্বরে ইউক্রেনের ১৫ শতাংশ অঞ্চল গণভোটের মাধ্যমে দখলে নিয়েছে রাশিয়া, যা এখনো মেনে নেয়নি ইউক্রেন।