ঢাকা ০৮:২৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আফ্রিকায় ১১ হাজার কোরআন বিতরণ করেছে তুরস্ক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৫:১৯:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৩ ৯৯ বার পড়া হয়েছে

আফ্রিকা মহাদেশে ১১ হাজার ২১৫ কপি পবিত্র কোরআন বিতরণ করেছে তুরস্কের বেসরকারি সেবা সংস্থা দ্য ফাউন্ডেশন অব হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ফ্রিডমস অ্যান্ড হিউম্যানিট্রিয়ান রিলিফ (আইএইচএইচ)।
সংস্থাটির বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম আনাদোলু এজেন্সি।
রোববার এক বিবৃতিতে আইএইচএইচ জানিয়েছে, ২০২২ সালে আফ্রিকায় এই বিপুল পরিমাণ কোরআনের কপি বিতরণ করেছে তারা। ১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে চেচনিয়া, ফিলিস্তিন, কসোভো ও সিরিয়ার মতো বিপর্যস্ত অঞ্চলগুলোতে মানবিক ত্রাণ দিয়ে আসছে ইস্তাম্বুলভিত্তিক এই সংস্থা। খাদ্য সহায়তা ছাড়াও তাদের ত্রাণ কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে এতিমখানা-স্কুল-হাসপাতাল-মসজিদ নির্মাণ, সাংস্কৃতিক কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা ও কূপ খনন।

বিভিন্ন দেশের বিবদমান গোষ্ঠীর মধ্যে সমঝোতার ক্ষেত্রে মধ্যস্থতাকারী হিসেবেও কাজ করেন এই সংস্থার সদস্যরা।

বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে মুসলিম দেশগুলোর প্রয়োজন পূরণে পবিত্র কোরআনের কপি উপহার দিয়ে থাকে সংস্থাটি। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১২০টিরও বেশি দেশে তারা সেবামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।

২০০৪ সাল থেকে জাতিসংঘের ইকোনমিক অ্যান্ড সোশ্যাল কাউন্সিলের সঙ্গে বিশেষ পরামর্শ সেবার মর্যাদা লাভ করেছে তারা। তাছাড়া ওআইসির পরামর্শসভার সদস্য হিসেবে কাজ করে সংস্থাটি।

গত বছর নাইজেরিয়াতে সাড়ে তিন হাজার, মালিতে আড়াই হাজার, বুর্কিনা ফাসোতে দুই হাজার ১৮৪, শাদে এক হাজার, গিনিতে ৬০০, ইথিওপিয়ায় ৫৮৬, বেনিনে ৫০০ এবং সুদানে ৩৪৫টি কোরআনের প্রতিলিপি উপহার দিয়েছে আইএইচএইচ।

এর আগে, ২০২১ সালে আফ্রিকার সাতটি দেশে অন্তত ২১ হাজার কোরআন উপহার দেয় তুরস্ক। দেশগুলো হলো- গিনি-মালি (১৩ হাজার ৫০০), শাদ (দুই হাজার ৯০০)’, ঘানা (দুই হাজার), নাইজার ও সুদান (দুই হাজার) এবং সিয়েরা লিওন (৬০০ কপি)।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

আফ্রিকায় ১১ হাজার কোরআন বিতরণ করেছে তুরস্ক

আপডেট সময় : ০৫:১৯:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৩

আফ্রিকা মহাদেশে ১১ হাজার ২১৫ কপি পবিত্র কোরআন বিতরণ করেছে তুরস্কের বেসরকারি সেবা সংস্থা দ্য ফাউন্ডেশন অব হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ফ্রিডমস অ্যান্ড হিউম্যানিট্রিয়ান রিলিফ (আইএইচএইচ)।
সংস্থাটির বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম আনাদোলু এজেন্সি।
রোববার এক বিবৃতিতে আইএইচএইচ জানিয়েছে, ২০২২ সালে আফ্রিকায় এই বিপুল পরিমাণ কোরআনের কপি বিতরণ করেছে তারা। ১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে চেচনিয়া, ফিলিস্তিন, কসোভো ও সিরিয়ার মতো বিপর্যস্ত অঞ্চলগুলোতে মানবিক ত্রাণ দিয়ে আসছে ইস্তাম্বুলভিত্তিক এই সংস্থা। খাদ্য সহায়তা ছাড়াও তাদের ত্রাণ কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে এতিমখানা-স্কুল-হাসপাতাল-মসজিদ নির্মাণ, সাংস্কৃতিক কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা ও কূপ খনন।

বিভিন্ন দেশের বিবদমান গোষ্ঠীর মধ্যে সমঝোতার ক্ষেত্রে মধ্যস্থতাকারী হিসেবেও কাজ করেন এই সংস্থার সদস্যরা।

বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে মুসলিম দেশগুলোর প্রয়োজন পূরণে পবিত্র কোরআনের কপি উপহার দিয়ে থাকে সংস্থাটি। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১২০টিরও বেশি দেশে তারা সেবামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।

২০০৪ সাল থেকে জাতিসংঘের ইকোনমিক অ্যান্ড সোশ্যাল কাউন্সিলের সঙ্গে বিশেষ পরামর্শ সেবার মর্যাদা লাভ করেছে তারা। তাছাড়া ওআইসির পরামর্শসভার সদস্য হিসেবে কাজ করে সংস্থাটি।

গত বছর নাইজেরিয়াতে সাড়ে তিন হাজার, মালিতে আড়াই হাজার, বুর্কিনা ফাসোতে দুই হাজার ১৮৪, শাদে এক হাজার, গিনিতে ৬০০, ইথিওপিয়ায় ৫৮৬, বেনিনে ৫০০ এবং সুদানে ৩৪৫টি কোরআনের প্রতিলিপি উপহার দিয়েছে আইএইচএইচ।

এর আগে, ২০২১ সালে আফ্রিকার সাতটি দেশে অন্তত ২১ হাজার কোরআন উপহার দেয় তুরস্ক। দেশগুলো হলো- গিনি-মালি (১৩ হাজার ৫০০), শাদ (দুই হাজার ৯০০)’, ঘানা (দুই হাজার), নাইজার ও সুদান (দুই হাজার) এবং সিয়েরা লিওন (৬০০ কপি)।