ঢাকা ১০:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আগুনে পুড়ল রোজার জন্য আমদানি করা চিনি

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ১২:১২:১১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪ ১৩ বার পড়া হয়েছে

দেশের শীর্ষস্থানীয় একটি শিল্পগোষ্ঠীর চিনি পরিশোধন কারখানায় আগুন লেগেছে। সোমবার (৪ মার্চ) বিকেলে ৪টার দিকে চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলার চরলক্ষ্যা এলাকায় এস আলম গ্রুপের এস আলম সুগার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে আগুন লাগে।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রমজানে বাজারে সরবরাহ করতে পরিশোধনের জন্য রাখা একটি গুদামের প্রায় সব চিনি পুড়ে গেছে। তবে বৈদ্যুতিক শটসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে এস আলম গ্রæপের কর্মকর্তা ধারণা করছেন।

এস আলম গ্রুপের মানবসম্পদ বিভাগের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ ফয়সাল বলেন, এ কারখানায় আমদানি করা কাঁচা চিনি পরিশোধন করা হয়। চার লাখ মেট্রিকটন ক্যাপাসিটি আছে। ইউনিট-ওয়ান এর গুদামে আগুন লেগেছে। সেখানে এক লাখ মেট্রিকটন অপরিশোধিত চিনি ছিল। সেগুলো সব পুড়ে গেছে। রমজানের জন্য চিনিগুলো আমদানি করা হয়েছিল।

সন্ধ্যায় কর্ণফুলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহির হোসেন জানিয়েছেন, সন্ধ্যা সোয়া ৬টা পর্যন্ত আগুনে হতাহতের কোনো তথ্য তারা পাননি।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আগুন লাগার সংবাদ পেয়ে বিকেল ৩টা ৫৫ মিনিটে ফায়ার সার্ভিসের টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে। কর্ণফুলী স্টেশন থেকে একটি এবং চন্দনপুরা ও আগ্রাবাদ থেকে আরও আটটিসহ মোট ৯টি ইউনিট আগুন নেভানোর কাজ করছে।

চট্টগ্রামের ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. আবদুর রাজ্জাক জানিয়েছেন, আগুন এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি। তবে আগুন যেন পুরো কারখানায় ছড়াতে না পারে সেই চেষ্টা তারা করছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

আগুনে পুড়ল রোজার জন্য আমদানি করা চিনি

আপডেট সময় : ১২:১২:১১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪

দেশের শীর্ষস্থানীয় একটি শিল্পগোষ্ঠীর চিনি পরিশোধন কারখানায় আগুন লেগেছে। সোমবার (৪ মার্চ) বিকেলে ৪টার দিকে চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলার চরলক্ষ্যা এলাকায় এস আলম গ্রুপের এস আলম সুগার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে আগুন লাগে।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রমজানে বাজারে সরবরাহ করতে পরিশোধনের জন্য রাখা একটি গুদামের প্রায় সব চিনি পুড়ে গেছে। তবে বৈদ্যুতিক শটসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে এস আলম গ্রæপের কর্মকর্তা ধারণা করছেন।

এস আলম গ্রুপের মানবসম্পদ বিভাগের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ ফয়সাল বলেন, এ কারখানায় আমদানি করা কাঁচা চিনি পরিশোধন করা হয়। চার লাখ মেট্রিকটন ক্যাপাসিটি আছে। ইউনিট-ওয়ান এর গুদামে আগুন লেগেছে। সেখানে এক লাখ মেট্রিকটন অপরিশোধিত চিনি ছিল। সেগুলো সব পুড়ে গেছে। রমজানের জন্য চিনিগুলো আমদানি করা হয়েছিল।

সন্ধ্যায় কর্ণফুলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহির হোসেন জানিয়েছেন, সন্ধ্যা সোয়া ৬টা পর্যন্ত আগুনে হতাহতের কোনো তথ্য তারা পাননি।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আগুন লাগার সংবাদ পেয়ে বিকেল ৩টা ৫৫ মিনিটে ফায়ার সার্ভিসের টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে। কর্ণফুলী স্টেশন থেকে একটি এবং চন্দনপুরা ও আগ্রাবাদ থেকে আরও আটটিসহ মোট ৯টি ইউনিট আগুন নেভানোর কাজ করছে।

চট্টগ্রামের ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. আবদুর রাজ্জাক জানিয়েছেন, আগুন এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি। তবে আগুন যেন পুরো কারখানায় ছড়াতে না পারে সেই চেষ্টা তারা করছেন।