ঢাকা ০৪:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

অস্থায়ী নিয়োগ পেলেন আরও ১৩৩ শিক্ষক-কর্মচারী

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ১০:৫৪:১৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ মে ২০২৩ ৫৭ বার পড়া হয়েছে

অস্থায়ীভাবে সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আরও ১৩৩ জন শিক্ষক-কর্মচারীকে নিয়োগ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।নিয়োগপ্রাপ্তদের মধ্যে গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার কাজী আজহার আলী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ২৪ শিক্ষক ও ৫ কর্মচারী, মাগুরার শ্রীপুর এম সি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১৬ শিক্ষক ও ৭ কর্মচারী, কুষ্টিয়ার কুমারখালী পাইলট বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১৯ শিক্ষক ও ৪ কর্মচারী, মাদারীপুরের রাজৈরের গোপালগঞ্জ কেজেএস পাইলট মডেল ইনস্টিটিউশন ও কলেজের ৩৫ শিক্ষক ৭ কর্মচারী এবং সিরাজগঞ্জের তাড়াশ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ জন শিক্ষক ও ৪ জন কর্মচারী রয়েছেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে তাদের অ্যাডহক নিয়োগ দিয়ে পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার ও বুধবার এ প্রজ্ঞাপনগুলো প্রকাশ করা হয়।

জানা গেছে, গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার কাজী আজহার আলী মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে ২৮ মে, মাগুরার শ্রীপুর এম সি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে ১৩ সেপ্টেম্বর, কুষ্টিয়ার কুমারখালী পাইলট বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ নভেম্বর, মাদারীপুরের রাজৈর গোপালগঞ্জ কেজেএস পাইলট মডেল ইনস্টিটিউশন ও কলেজ ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ৫ মে এবং সিরাজগঞ্জের তাড়াশ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ নভেম্বর সরকারি করা হয়েছিলো। প্রতিষ্ঠান সরকারিকরণের তারিখ থেকে শিক্ষক কর্মচারীদের অ্যাডহক নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

এসব শিক্ষক কর্মচারীকে অ্যাডহক নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের ‘জাতীয়করণকৃত উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কর্মচারী (মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর) আত্তীকরণ বিধিমালা ১৯৮৩ (সংশোধনী ১৯৯৪ ও ১৯৯৫)’ অনুসারে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

তবে, মাদারীপুরের রাজৈর গোপালগঞ্জ কেজেএস পাইলট মডেল ইনস্টিটিউশন ও কলেজের কলেজ শাখার শিক্ষক-কর্মচারীরা জাতীয়করণকৃত কলেজ শিক্ষক ও অ-শিক্ষক কর্মচারী আত্তীকরণ বিধিমালা-২০০০ অনুযায়ী অ্যাডহক নিয়োগ পেয়েছেন।

জানা গেছে, আদেশ জারির তারিখ থেকে অ্যাডহক নিয়োগ পাওয়া শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিও বাতিল বলে গণ্য হবে বলে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এছাড়া আত্তীকৃতরা অন্যত্র বদলি হতে পারবেন না বলেও বলা হয়েছে প্রজ্ঞাপনে। অ্যাডহক নিয়োগপ্রাপ্তদের সরকারি প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করতে হবে। প্রচলিত রীতি অনুযায়ী এসব শিক্ষক-কর্মচারীর চাকরি নিয়মিত ও স্থায়ীকরণ করা হবে বলেও জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

অস্থায়ী নিয়োগ পেলেন আরও ১৩৩ শিক্ষক-কর্মচারী

আপডেট সময় : ১০:৫৪:১৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ মে ২০২৩

অস্থায়ীভাবে সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আরও ১৩৩ জন শিক্ষক-কর্মচারীকে নিয়োগ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।নিয়োগপ্রাপ্তদের মধ্যে গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার কাজী আজহার আলী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ২৪ শিক্ষক ও ৫ কর্মচারী, মাগুরার শ্রীপুর এম সি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১৬ শিক্ষক ও ৭ কর্মচারী, কুষ্টিয়ার কুমারখালী পাইলট বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১৯ শিক্ষক ও ৪ কর্মচারী, মাদারীপুরের রাজৈরের গোপালগঞ্জ কেজেএস পাইলট মডেল ইনস্টিটিউশন ও কলেজের ৩৫ শিক্ষক ৭ কর্মচারী এবং সিরাজগঞ্জের তাড়াশ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ জন শিক্ষক ও ৪ জন কর্মচারী রয়েছেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে তাদের অ্যাডহক নিয়োগ দিয়ে পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার ও বুধবার এ প্রজ্ঞাপনগুলো প্রকাশ করা হয়।

জানা গেছে, গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার কাজী আজহার আলী মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে ২৮ মে, মাগুরার শ্রীপুর এম সি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে ১৩ সেপ্টেম্বর, কুষ্টিয়ার কুমারখালী পাইলট বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ নভেম্বর, মাদারীপুরের রাজৈর গোপালগঞ্জ কেজেএস পাইলট মডেল ইনস্টিটিউশন ও কলেজ ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ৫ মে এবং সিরাজগঞ্জের তাড়াশ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ নভেম্বর সরকারি করা হয়েছিলো। প্রতিষ্ঠান সরকারিকরণের তারিখ থেকে শিক্ষক কর্মচারীদের অ্যাডহক নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

এসব শিক্ষক কর্মচারীকে অ্যাডহক নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের ‘জাতীয়করণকৃত উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কর্মচারী (মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর) আত্তীকরণ বিধিমালা ১৯৮৩ (সংশোধনী ১৯৯৪ ও ১৯৯৫)’ অনুসারে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

তবে, মাদারীপুরের রাজৈর গোপালগঞ্জ কেজেএস পাইলট মডেল ইনস্টিটিউশন ও কলেজের কলেজ শাখার শিক্ষক-কর্মচারীরা জাতীয়করণকৃত কলেজ শিক্ষক ও অ-শিক্ষক কর্মচারী আত্তীকরণ বিধিমালা-২০০০ অনুযায়ী অ্যাডহক নিয়োগ পেয়েছেন।

জানা গেছে, আদেশ জারির তারিখ থেকে অ্যাডহক নিয়োগ পাওয়া শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিও বাতিল বলে গণ্য হবে বলে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এছাড়া আত্তীকৃতরা অন্যত্র বদলি হতে পারবেন না বলেও বলা হয়েছে প্রজ্ঞাপনে। অ্যাডহক নিয়োগপ্রাপ্তদের সরকারি প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করতে হবে। প্রচলিত রীতি অনুযায়ী এসব শিক্ষক-কর্মচারীর চাকরি নিয়মিত ও স্থায়ীকরণ করা হবে বলেও জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।