ঢাকা ০৬:৫১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অবশেষে আন্দোলনের মুখে রুয়েটের উপাচার্যের পদত্যাগ

নিজস্ব প্রতিবেদক//
  • আপডেট সময় : ০৪:৩৬:৫৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ মে ২০২৩ ৫২ বার পড়া হয়েছে

অবশেষে আন্দোলনের মুখে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) অতিরিক্ত দায়িত্বের উপাচার্যের (ভিসি) অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেন পদত্যাগ করেছেন।
রোববার (২৮ মে) রাত পৌনে ৯টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়টির রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেনের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন তিনি। রেজিস্ট্রার নিজেই গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।পদত্যাগ প্রশ্নে রুয়েট রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেন জানান, পদত্যাগপত্র পেয়েছেন। তবে এ বিষয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের পরে বিস্তারিত জানানো হবে।
এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্ধশতাধিক শিক্ষক তাদের পদোন্নতির দাবিতে রোববার বেলা ১১টা থেকে রুটিন দায়িত্বের ভাইস-চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেনকে অবরুদ্ধ করে রাখেন।

রাত পৌনে ৯টা পর্যন্ত তিনি সেখানেই অবরুদ্ধ অবস্থায় ছিলেন। শেষে চাপের মুখে রাত সোয়া ৯টার দিকে তিনি পদত্যাগ করেন।

গত বছরের ৩০ জুলাই রুয়েট ভিসির পদ শূন্য হয়ে যায়। এরপর ১০ মাস থেকে রুটিন দায়িত্বের অতিরিক্ত হিসেবে উপাচার্যের দায়িত্ব পালন করছিলেন অ্যাপ্লাইড সায়েন্স অ্যান্ড হিউম্যানিটিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেন।

আন্দোলনরত শিক্ষকদের অভিযোগ ছিল, ১১ মাস ধরে ক্যাম্পাসে ভিসি নেই। অভিভাবক না থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রমে চরম স্থবিরতা নেমে এসেছে। এ ছাড়া সব শর্ত পূরণ করেও গত ১৫ মাসে অন্তত ৮০ জন শিক্ষক তাদের ন্যায্য পদোন্নতি ও আপগ্রেডেশন থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

পদোন্নতির দাবিতে রোববার বেলা ১১টার দিকে রুয়েট শিক্ষক সমিতির কয়েকজন নেতার সঙ্গে শিক্ষকরা ভিসির দপ্তরে প্রবেশ করেন। এ সময় রুটিন দায়িত্বের ভিসিকে পদোন্নতির বিষয়টি বললে তার হাতে কোনো ক্ষমতা নেই বলে জানান।

এরপর থেকে থেকেই শিক্ষকরা ড. সাজ্জাদের দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনের পাশাপাশি তাকে তার দপ্তর থেকে বের হতে দিচ্ছিলেন না।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

অবশেষে আন্দোলনের মুখে রুয়েটের উপাচার্যের পদত্যাগ

আপডেট সময় : ০৪:৩৬:৫৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ মে ২০২৩

অবশেষে আন্দোলনের মুখে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) অতিরিক্ত দায়িত্বের উপাচার্যের (ভিসি) অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেন পদত্যাগ করেছেন।
রোববার (২৮ মে) রাত পৌনে ৯টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়টির রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেনের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন তিনি। রেজিস্ট্রার নিজেই গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।পদত্যাগ প্রশ্নে রুয়েট রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেন জানান, পদত্যাগপত্র পেয়েছেন। তবে এ বিষয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের পরে বিস্তারিত জানানো হবে।
এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্ধশতাধিক শিক্ষক তাদের পদোন্নতির দাবিতে রোববার বেলা ১১টা থেকে রুটিন দায়িত্বের ভাইস-চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেনকে অবরুদ্ধ করে রাখেন।

রাত পৌনে ৯টা পর্যন্ত তিনি সেখানেই অবরুদ্ধ অবস্থায় ছিলেন। শেষে চাপের মুখে রাত সোয়া ৯টার দিকে তিনি পদত্যাগ করেন।

গত বছরের ৩০ জুলাই রুয়েট ভিসির পদ শূন্য হয়ে যায়। এরপর ১০ মাস থেকে রুটিন দায়িত্বের অতিরিক্ত হিসেবে উপাচার্যের দায়িত্ব পালন করছিলেন অ্যাপ্লাইড সায়েন্স অ্যান্ড হিউম্যানিটিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেন।

আন্দোলনরত শিক্ষকদের অভিযোগ ছিল, ১১ মাস ধরে ক্যাম্পাসে ভিসি নেই। অভিভাবক না থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রমে চরম স্থবিরতা নেমে এসেছে। এ ছাড়া সব শর্ত পূরণ করেও গত ১৫ মাসে অন্তত ৮০ জন শিক্ষক তাদের ন্যায্য পদোন্নতি ও আপগ্রেডেশন থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

পদোন্নতির দাবিতে রোববার বেলা ১১টার দিকে রুয়েট শিক্ষক সমিতির কয়েকজন নেতার সঙ্গে শিক্ষকরা ভিসির দপ্তরে প্রবেশ করেন। এ সময় রুটিন দায়িত্বের ভিসিকে পদোন্নতির বিষয়টি বললে তার হাতে কোনো ক্ষমতা নেই বলে জানান।

এরপর থেকে থেকেই শিক্ষকরা ড. সাজ্জাদের দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনের পাশাপাশি তাকে তার দপ্তর থেকে বের হতে দিচ্ছিলেন না।