ঢাকা ০৮:৫১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ছাত্রদলের নতুন সভাপতি রাকিব, সাধারণ সম্পাদক নাসির জ্বালানি তেলের স্বয়ংক্রিয় দাম নির্ধারণে প্রজ্ঞাপন জারি খাবার সংগ্রহে লাইনে দাঁড়ানো ফিলিস্তিনিদের গুলি, নিহত ১১২ রাজশাহীতে ভোক্তা অধিকার অধিদফতরের অভিযান না থাকায় ক্রমেই বাড়ছে পেঁয়াজের দাম ঘুড়ি প্রতীকের বিজয়ে সর্বাত্মক সহযোগিতা চান কাউন্সিলর প্রার্থী আসলাম ‘অগ্নি নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানোর নির্দেশ দিলেও মানা হচ্ছে না’ নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রীকে নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জারি ২৩নং ওয়ার্ডকে পরিকল্পিত আধুনিক এলাকা গড়তে চান – রানা বেইলি রোডে ভয়াবহ আগুনে পুড়ে নিহত ৪৪ চাঁপাইনবাবগঞ্জে জমি জবরদখল ও গাছ কাটার প্রতিবাদে মানববন্ধন

অনিয়ম-দুর্নীতি: ডিএসসিসির তিন কর্মকর্তা-কর্মচারী চাকরিচ্যুত

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৩:০৯:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ জানুয়ারী ২০২৩ ৯২ বার পড়া হয়েছে

অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে তিন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে চাকরিচ্যুত করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। সোমবার সংস্থাটির সচিব আকরামুজ্জামান সই করা পৃথক তিনটি অফিস আদেশে তাদেরকে চাকরি থেকে অপসারণ করা হয়।

চাকরিচ্যুতরা হলেন-অঞ্চল-১ এর উপ কর-কর্মকর্তা মো. রবিউল করিম খান, ঢাকা মহানগর শিশু হাসপাতালের স্টোর কিপার রুহুল আলম এবং অঞ্চল-৪ এর রেন্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট মোহাম্মদ রমজান আলী।

রাজস্ব বিভাগের উপকর কর্মকত মো. রবিউল করিম খান অঞ্চল-১-এ উপকর কর্মকর্তা পদে কর্মরত থাকাকালে ভবন/স্থাপনার পৌরকর মূল্যায়ন কাজে গ্রাহকদের অবৈধভাবে পৌরকর কমিয়ে দেয়ার সুবিধা প্রদানের আশ্বাস দিয়ে তাদের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা গ্রহণসহ বিভিন্ন সময়ে অনিয়ম ও দুর্নীতি করেছেন।

তার এ কর্মকাণ্ডের ফলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ভাবমর্যাদা ও সুনাম ক্ষুন্ন হওয়ায় তাকে ‘ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন কর্মচারী চাকরি বিধিমালা, ২০১৯’ এর ৬৪ (২) বিধি মোতাবেক জনস্বার্থে এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের স্বার্থ রক্ষার্থে চাকরি হতে অপসারণ করা হলো।

ডিএসসিসির অপসারণ আদেশে বলা হয়, রুহুল আলম ঢাকা মহানগর শিশু হাসপাতালের স্টোর কিপার থাকাকালে তার বিরুদ্ধে করপোরেশনের টেন্ডার কাজে ব্যক্তিগতভাবে অর্থ বিনিয়োগসহ বিভিন্ন সময়ে অনিয়ম ও দুর্নীতি করেছেন। তার এ কর্মকাণ্ডের ফলে ডিএসসিসির ভাবমর্যাদা ও সুনাম ক্ষুন্ন হওয়ায় তাকে চাকরি হতে অপসারণ করা হলো।

অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক মোহাম্মদ রমজান আলী অঞ্চল-৪-এ রেন্ট অ্যাসিসটেন্ট পদে কর্মরত থাকাকালীন ঘুষ বাণিজ্য থেকে শুরু করে ঠিকাদারদের বিভিন্ন টেন্ডার পাইয়ে দেওয়াসহ করপোরেশনের গোপনীয় ও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বাইরের লোকজনের কাছে সরবরাহ করেছেন।

করপোরেশনের বিভিন্ন মার্কেটের দোকানের নামজারি এবং ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন কাজে অবৈধভাবে সুবিধা প্রদান করার আশ্বাস দিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা গ্রহণ করেছেন।

বহিরাগত লোক দিয়ে দোকানের ভাড়া, বাণিজ্য অনুমতিপত্র প্রদান/নবায়ন ও নামজারির কাজ করেছেন। এজন্য তাকে চাকরি হতে অপসারণ করা হলো।

জানা যায়, বিভিন্ন দুর্নীতি-অনিয়মের অভিযোগ পাওয়ার পর এ তিন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে আগেই তাদের কর্মরত পদ থেকে সচিব দফতরে বদলি করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

অনিয়ম-দুর্নীতি: ডিএসসিসির তিন কর্মকর্তা-কর্মচারী চাকরিচ্যুত

আপডেট সময় : ০৩:০৯:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ জানুয়ারী ২০২৩

অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে তিন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে চাকরিচ্যুত করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। সোমবার সংস্থাটির সচিব আকরামুজ্জামান সই করা পৃথক তিনটি অফিস আদেশে তাদেরকে চাকরি থেকে অপসারণ করা হয়।

চাকরিচ্যুতরা হলেন-অঞ্চল-১ এর উপ কর-কর্মকর্তা মো. রবিউল করিম খান, ঢাকা মহানগর শিশু হাসপাতালের স্টোর কিপার রুহুল আলম এবং অঞ্চল-৪ এর রেন্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট মোহাম্মদ রমজান আলী।

রাজস্ব বিভাগের উপকর কর্মকত মো. রবিউল করিম খান অঞ্চল-১-এ উপকর কর্মকর্তা পদে কর্মরত থাকাকালে ভবন/স্থাপনার পৌরকর মূল্যায়ন কাজে গ্রাহকদের অবৈধভাবে পৌরকর কমিয়ে দেয়ার সুবিধা প্রদানের আশ্বাস দিয়ে তাদের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা গ্রহণসহ বিভিন্ন সময়ে অনিয়ম ও দুর্নীতি করেছেন।

তার এ কর্মকাণ্ডের ফলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ভাবমর্যাদা ও সুনাম ক্ষুন্ন হওয়ায় তাকে ‘ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন কর্মচারী চাকরি বিধিমালা, ২০১৯’ এর ৬৪ (২) বিধি মোতাবেক জনস্বার্থে এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের স্বার্থ রক্ষার্থে চাকরি হতে অপসারণ করা হলো।

ডিএসসিসির অপসারণ আদেশে বলা হয়, রুহুল আলম ঢাকা মহানগর শিশু হাসপাতালের স্টোর কিপার থাকাকালে তার বিরুদ্ধে করপোরেশনের টেন্ডার কাজে ব্যক্তিগতভাবে অর্থ বিনিয়োগসহ বিভিন্ন সময়ে অনিয়ম ও দুর্নীতি করেছেন। তার এ কর্মকাণ্ডের ফলে ডিএসসিসির ভাবমর্যাদা ও সুনাম ক্ষুন্ন হওয়ায় তাকে চাকরি হতে অপসারণ করা হলো।

অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক মোহাম্মদ রমজান আলী অঞ্চল-৪-এ রেন্ট অ্যাসিসটেন্ট পদে কর্মরত থাকাকালীন ঘুষ বাণিজ্য থেকে শুরু করে ঠিকাদারদের বিভিন্ন টেন্ডার পাইয়ে দেওয়াসহ করপোরেশনের গোপনীয় ও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বাইরের লোকজনের কাছে সরবরাহ করেছেন।

করপোরেশনের বিভিন্ন মার্কেটের দোকানের নামজারি এবং ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন কাজে অবৈধভাবে সুবিধা প্রদান করার আশ্বাস দিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা গ্রহণ করেছেন।

বহিরাগত লোক দিয়ে দোকানের ভাড়া, বাণিজ্য অনুমতিপত্র প্রদান/নবায়ন ও নামজারির কাজ করেছেন। এজন্য তাকে চাকরি হতে অপসারণ করা হলো।

জানা যায়, বিভিন্ন দুর্নীতি-অনিয়মের অভিযোগ পাওয়ার পর এ তিন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে আগেই তাদের কর্মরত পদ থেকে সচিব দফতরে বদলি করা হয়।