ঢাকা ০৭:৪৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১৫০ ফুটের গ্রহাণু নিয়ে সতর্ক করল নাসা

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৯:০৬:৩৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ এপ্রিল ২০২৩ ৮০ বার পড়া হয়েছে

পৃথিবীর সঙ্গে গ্রহাণুর সংঘর্ষের শঙ্কা প্রকাশ করেছে মার্কিন গবেষণা সংস্থা নাসা। যে পাঁচটি গ্রহাণু পৃথিবীর দিকে আসছে, তাদের মধ্যে সবচেয়ে বড় আকারের গ্রহাণুটির আয়তন প্রায় ১৫০ ফুট। ওই গ্রহাণুটি পৃথিবীর খুব কাছে চলে এলে সমস্যা হতে পারে, আর তাই বড় গ্রহাণুর বিষয়ে বিশেষ ভাবে সতর্ক করেছে। এ ছাড়া, বাকি গ্রহাণুগুলি আকারে ছোট।
গ্রহাণুগুলির নামকরণ করেছে নাসা। প্রথম গ্রহাণুটি ৪৫ ফুটের। এটি সোমবারই পৃথিবীর পাশ দিয়ে চলে গিয়েছে। এই গ্রহাণুর নাম দেয়া হয়েছে ২০২৩ এফইউ ৬।

এরপর পৃথিবীর দিকে এসেছে ৮২ ফুটের একটি গ্রহাণু। সেটিও সোমবারই পৃথিবীর পাশ দিয়ে চলে যাওয়ার কথা। দ্বিতীয় গ্রহাণুটির নাম দেয়া হয়েছে ২০২৩ এফএস ১১।

তৃতীয় গ্রহাণু ২০২৩ এফএ ৭- এর আয়তন ৯২ ফুট। এই গ্রহাণুটি পৃথিবীর সবচেয়ে কাছাকাছি আসবে আজ মঙ্গলবার। চতুর্থ গ্রহাণুটি পৃথিবীর কাছাকাছি আসবে বুধবার। এই গ্রহাণুটি আকারে একটি আস্ত বাড়ির সমান, আয়তন প্রায় ৬৫ ফুট।

নাসার নজরে রয়েছে পঞ্চম এবং শেষ গ্রহাণুটি। তার নাম দেয়া হয়েছে ২০২৩ এফজেড ৩। গ্রহাণুগুলির মধ্যে সবচেয়ে বড় এটিই। আয়তন প্রায় ১৫০ ফুট। এই গ্রহাণুটি পৃথিবীর সবচেয়ে কাছে আসবে ৬ এপ্রিল, বৃহস্পতিবার।

নাসার বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এই বিশাল গ্রহাণু পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে ঘণ্টায় ৬৭ হাজার ৬৫৬ কিলোমিটার বেগে। ৬ তারিখ পৃথিবীর সঙ্গে এই গ্রহাণুর সবচেয়ে কম দূরত্ব হওয়ার কথা ৪১ লক্ষ ৯০ হাজার কিলোমিটার। মহাশূন্যের বিচারে এই দূরত্ব অনেকটাই কম।

তবে নাসার বিজ্ঞানীরা আশ্বস্ত করেছেন, ১৫০ ফুটের এই গ্রহাণুর দ্বারা পৃথিবীর কোনও ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা আপাতত নেই। গ্রহাণুটির গতিবিধির দিকে নজর রাখা হচ্ছে।

সূত্র: এনডিটিভি, আনন্দবাজার।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

১৫০ ফুটের গ্রহাণু নিয়ে সতর্ক করল নাসা

আপডেট সময় : ০৯:০৬:৩৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ এপ্রিল ২০২৩

পৃথিবীর সঙ্গে গ্রহাণুর সংঘর্ষের শঙ্কা প্রকাশ করেছে মার্কিন গবেষণা সংস্থা নাসা। যে পাঁচটি গ্রহাণু পৃথিবীর দিকে আসছে, তাদের মধ্যে সবচেয়ে বড় আকারের গ্রহাণুটির আয়তন প্রায় ১৫০ ফুট। ওই গ্রহাণুটি পৃথিবীর খুব কাছে চলে এলে সমস্যা হতে পারে, আর তাই বড় গ্রহাণুর বিষয়ে বিশেষ ভাবে সতর্ক করেছে। এ ছাড়া, বাকি গ্রহাণুগুলি আকারে ছোট।
গ্রহাণুগুলির নামকরণ করেছে নাসা। প্রথম গ্রহাণুটি ৪৫ ফুটের। এটি সোমবারই পৃথিবীর পাশ দিয়ে চলে গিয়েছে। এই গ্রহাণুর নাম দেয়া হয়েছে ২০২৩ এফইউ ৬।

এরপর পৃথিবীর দিকে এসেছে ৮২ ফুটের একটি গ্রহাণু। সেটিও সোমবারই পৃথিবীর পাশ দিয়ে চলে যাওয়ার কথা। দ্বিতীয় গ্রহাণুটির নাম দেয়া হয়েছে ২০২৩ এফএস ১১।

তৃতীয় গ্রহাণু ২০২৩ এফএ ৭- এর আয়তন ৯২ ফুট। এই গ্রহাণুটি পৃথিবীর সবচেয়ে কাছাকাছি আসবে আজ মঙ্গলবার। চতুর্থ গ্রহাণুটি পৃথিবীর কাছাকাছি আসবে বুধবার। এই গ্রহাণুটি আকারে একটি আস্ত বাড়ির সমান, আয়তন প্রায় ৬৫ ফুট।

নাসার নজরে রয়েছে পঞ্চম এবং শেষ গ্রহাণুটি। তার নাম দেয়া হয়েছে ২০২৩ এফজেড ৩। গ্রহাণুগুলির মধ্যে সবচেয়ে বড় এটিই। আয়তন প্রায় ১৫০ ফুট। এই গ্রহাণুটি পৃথিবীর সবচেয়ে কাছে আসবে ৬ এপ্রিল, বৃহস্পতিবার।

নাসার বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এই বিশাল গ্রহাণু পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে ঘণ্টায় ৬৭ হাজার ৬৫৬ কিলোমিটার বেগে। ৬ তারিখ পৃথিবীর সঙ্গে এই গ্রহাণুর সবচেয়ে কম দূরত্ব হওয়ার কথা ৪১ লক্ষ ৯০ হাজার কিলোমিটার। মহাশূন্যের বিচারে এই দূরত্ব অনেকটাই কম।

তবে নাসার বিজ্ঞানীরা আশ্বস্ত করেছেন, ১৫০ ফুটের এই গ্রহাণুর দ্বারা পৃথিবীর কোনও ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা আপাতত নেই। গ্রহাণুটির গতিবিধির দিকে নজর রাখা হচ্ছে।

সূত্র: এনডিটিভি, আনন্দবাজার।