ঢাকা ০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হারিয়ে যাওয়া মানিব্যাগ ফিরে পেলেন ৫৪ বছর পর

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৯:২৭:১০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ ১০৬ বার পড়া হয়েছে

যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিম ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের এক নারীর স্কুলজীবনে হারিয়ে ফেলা একটি মানিব্যাগ ৫৪ বছর পর ফিরে পেয়েছেন। ওই নারীর নাম শ্যারন ডে। ১৯৬৮ সালে আরকানসাস অঙ্গরাজ্যের ফায়েটভিল হাইস্কুলে একটি নাচের অনুষ্ঠানে মানিব্যাগ হারিয়ে ফেলেছিলেন তিনি। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের।

তখন তার বয়স ১৬ বছর। এর পর বহু খুঁজেছেন মানিব্যাগটি। তবে ফিরে পাননি। একপর্যায়ে সেটি পাওয়ার আশা ছেড়ে দেন।

২০১৯ সালে ফায়েটভিল হাইস্কুলটি পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়া হয়। স্কুলটিকে সংস্কার করে আবাসিক ভবন তৈরির কাজ চলছিল। এ সময় ভবনের একটি পুরনো পাইপের ভেতর একটি মানিব্যাগ পান শ্রমিকরা।

স্কুলভবনটি সংস্কারের দায়িত্ব পাওয়া প্রতিষ্ঠানের মালিক ব্রাডলি স্কট বলেন, ওই পাইপগুলো বহু বছর ধরে বন্ধ ছিল। সেটি খোলার পর পুরনো অনেক জিনিসই পাওয়া যায়। এরই একটি ছিল ওই মানিব্যাগ। এমনকি একটি বক্সিং ম্যাচের কয়েকটি টিকিটও সেটির ভেতরে ছিল।

পরে কীভাবে মানিব্যাগটি মালিকের কাছে ফিরিয়ে দেবেন, তা নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করেন স্কট। তিনি বলেন, ‘মানিব্যাগটির ভেতরে কয়েকটি ছবি ছিল। ছবিগুলোর কয়েকটিতে নাম লেখা ছিল। এ ছাড়া পরিচয় শনাক্ত করা যায়, এমন একটি কার্ডও পাওয়া যায়। এগুলো দেখে মনে হলো, আমি তো এই মানুষটাকে খুঁজে বের করতে পারি।’

এর পর ছবি ও কার্ডে লেখা নামগুলো দিয়ে ফেসবুকে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন স্কট। প্রায় এক সপ্তাহ পর সন্ধান পান শ্যারন ডের। এদিকে মানিব্যাগ ফিরে পেয়ে শ্যারন তো খুশিতে আত্মহারা।

তিনি বলেন, এমনটি হবে, তা আমি কখনই ভাবিনি। শ্যারনের ইচ্ছা— ফিরে পাওয়া মানিব্যাগে থাকা জিনিসগুলো আলাদা একটি অ্যালবামে সাজিয়ে রাখবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

হারিয়ে যাওয়া মানিব্যাগ ফিরে পেলেন ৫৪ বছর পর

আপডেট সময় : ০৯:২৭:১০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৩

যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিম ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের এক নারীর স্কুলজীবনে হারিয়ে ফেলা একটি মানিব্যাগ ৫৪ বছর পর ফিরে পেয়েছেন। ওই নারীর নাম শ্যারন ডে। ১৯৬৮ সালে আরকানসাস অঙ্গরাজ্যের ফায়েটভিল হাইস্কুলে একটি নাচের অনুষ্ঠানে মানিব্যাগ হারিয়ে ফেলেছিলেন তিনি। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের।

তখন তার বয়স ১৬ বছর। এর পর বহু খুঁজেছেন মানিব্যাগটি। তবে ফিরে পাননি। একপর্যায়ে সেটি পাওয়ার আশা ছেড়ে দেন।

২০১৯ সালে ফায়েটভিল হাইস্কুলটি পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়া হয়। স্কুলটিকে সংস্কার করে আবাসিক ভবন তৈরির কাজ চলছিল। এ সময় ভবনের একটি পুরনো পাইপের ভেতর একটি মানিব্যাগ পান শ্রমিকরা।

স্কুলভবনটি সংস্কারের দায়িত্ব পাওয়া প্রতিষ্ঠানের মালিক ব্রাডলি স্কট বলেন, ওই পাইপগুলো বহু বছর ধরে বন্ধ ছিল। সেটি খোলার পর পুরনো অনেক জিনিসই পাওয়া যায়। এরই একটি ছিল ওই মানিব্যাগ। এমনকি একটি বক্সিং ম্যাচের কয়েকটি টিকিটও সেটির ভেতরে ছিল।

পরে কীভাবে মানিব্যাগটি মালিকের কাছে ফিরিয়ে দেবেন, তা নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করেন স্কট। তিনি বলেন, ‘মানিব্যাগটির ভেতরে কয়েকটি ছবি ছিল। ছবিগুলোর কয়েকটিতে নাম লেখা ছিল। এ ছাড়া পরিচয় শনাক্ত করা যায়, এমন একটি কার্ডও পাওয়া যায়। এগুলো দেখে মনে হলো, আমি তো এই মানুষটাকে খুঁজে বের করতে পারি।’

এর পর ছবি ও কার্ডে লেখা নামগুলো দিয়ে ফেসবুকে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন স্কট। প্রায় এক সপ্তাহ পর সন্ধান পান শ্যারন ডের। এদিকে মানিব্যাগ ফিরে পেয়ে শ্যারন তো খুশিতে আত্মহারা।

তিনি বলেন, এমনটি হবে, তা আমি কখনই ভাবিনি। শ্যারনের ইচ্ছা— ফিরে পাওয়া মানিব্যাগে থাকা জিনিসগুলো আলাদা একটি অ্যালবামে সাজিয়ে রাখবেন।