ঢাকা ০৮:৪৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সেবা বাদ দিয়ে ডাক্তাররা এখন ক্লিনিক ব্যবসায়ী: হাইকোর্ট

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০২:৫৪:৫৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ নভেম্বর ২০২৩ ৩৪ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

রোগীদের চিকিৎসাসেবা বাদ দিয়ে ডাক্তাররা ক্লিনিকের ব্যবসা খুলে বসেছেন মন্তব্য করে হাইকোর্ট এ ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) একটি মামলার আগাম জামিন শুনানির সময় বিচারপতি জাফর আহমেদ ও বিচারপতি ড. বশির উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

হবিগঞ্জে একটি ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর ঘটনার মামলায় আগাম জামিন আবেদনের শুনানিতে আদালত বলেন, এসব ম্যাসেস (বার্তা) জাতির কাছে যাওয়া উচিত, যাতে এ ধরনের ব্যবসা থেকে ভবিষ্যতে মানুষ মুখ ফিরিয়ে নেয়।

ভিকটিমদের সেবার নামে সিন্ডিকেটের কবলে চিকিৎসাব্যবস্থা মন্তব্য করে আদালত বলেন, আগে দেখতাম পরিবারের কোনো সদস্য ডাক্তার হলে তাদের কোনো আত্মীয়-স্বজনরা ক্লিনিক খুলতেন। এখন ডাক্তারের পরিবার নয়, যে কেউ ক্লিনিকের ব্যবসা করছেন। তাছাড়া সরকারি হাসপাতাল থেকে দালালদের মাধ্যমে ক্লিনিকে রোগী নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

হবিগঞ্জের দি জাপান বাংলাদেশ হসপিটালের ডাক্তার এসকে ঘোষের বিরুদ্ধে রোগী শেফালীকে অপারেশনের সময় বাম পাশের কিডনি ও জরায়ু কেটে ফেলার অভিযোগ ওঠেছে। এ ঘটনায় গত ২৪ অক্টোবর একটি মামলা হয়। ওই মামলায় আজ ডা. এসকে ঘোষ, প্রতিষ্ঠানটির মালিক, ম্যানেজার ও একজন অফিস সহকারী আগাম জামিন নিতে আসেন।

তবে উচ্চ আদালত তাদের জামিন না দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দিতে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলকে নির্দেশ দেন। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী আসামিদের পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

সেবা বাদ দিয়ে ডাক্তাররা এখন ক্লিনিক ব্যবসায়ী: হাইকোর্ট

আপডেট সময় : ০২:৫৪:৫৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ নভেম্বর ২০২৩

রোগীদের চিকিৎসাসেবা বাদ দিয়ে ডাক্তাররা ক্লিনিকের ব্যবসা খুলে বসেছেন মন্তব্য করে হাইকোর্ট এ ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) একটি মামলার আগাম জামিন শুনানির সময় বিচারপতি জাফর আহমেদ ও বিচারপতি ড. বশির উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

হবিগঞ্জে একটি ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর ঘটনার মামলায় আগাম জামিন আবেদনের শুনানিতে আদালত বলেন, এসব ম্যাসেস (বার্তা) জাতির কাছে যাওয়া উচিত, যাতে এ ধরনের ব্যবসা থেকে ভবিষ্যতে মানুষ মুখ ফিরিয়ে নেয়।

ভিকটিমদের সেবার নামে সিন্ডিকেটের কবলে চিকিৎসাব্যবস্থা মন্তব্য করে আদালত বলেন, আগে দেখতাম পরিবারের কোনো সদস্য ডাক্তার হলে তাদের কোনো আত্মীয়-স্বজনরা ক্লিনিক খুলতেন। এখন ডাক্তারের পরিবার নয়, যে কেউ ক্লিনিকের ব্যবসা করছেন। তাছাড়া সরকারি হাসপাতাল থেকে দালালদের মাধ্যমে ক্লিনিকে রোগী নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

হবিগঞ্জের দি জাপান বাংলাদেশ হসপিটালের ডাক্তার এসকে ঘোষের বিরুদ্ধে রোগী শেফালীকে অপারেশনের সময় বাম পাশের কিডনি ও জরায়ু কেটে ফেলার অভিযোগ ওঠেছে। এ ঘটনায় গত ২৪ অক্টোবর একটি মামলা হয়। ওই মামলায় আজ ডা. এসকে ঘোষ, প্রতিষ্ঠানটির মালিক, ম্যানেজার ও একজন অফিস সহকারী আগাম জামিন নিতে আসেন।

তবে উচ্চ আদালত তাদের জামিন না দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দিতে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলকে নির্দেশ দেন। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী আসামিদের পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।