ঢাকা ০৭:২৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পুঠিয়ায় গ্যারেজ, হোটেল ও বাড়ি আগুনে ভস্মীভূত

মেহেদী হাসান, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
  • আপডেট সময় : ০২:২০:২৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ মার্চ ২০২৩ ৯৯ বার পড়া হয়েছে

রাজশাহীর পুঠিয়া রাজবাড়ি সংলগ্ন মোটরসাইকেল গ্যারেজ, হোটেল ও বাড়ি আগুনে ভস্মীভূত হয়েছে। গতকাল দিবাগত রাত্রি সাড়ে তিনটায় এ আগুন লাগার ঘটনাটি ঘটে। এ সময় গ্যারেজ ও হোটেলের ভিতর কেউ না থাকায় হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। আগুনে ভস্মীভূত দুইটি প্রতিষ্ঠানের মালিক সুমন শেখ। এছাড়াও বাড়িটি তার বাবা মকসেদ আলী শেখের। বর্তমানে তারা নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। গ্যারেজের ভিতরে থাকা চারটি মোটরসাইকেল বিভিন্ন যন্ত্রাংশ মোবিলসহ হোটেলের আসবাপত্র ও বাড়ির ভিতরের সকল জিনিপত্র পুড়ে ছাই হয়েগেছে। ভুক্তেভোগি সুমন শেখ জানান, গ্যারেজের ও হোটেলে কাজ শেষ করে রত্রিতে হোটেল সংলগ্ন বাড়িতে আমরা সবাই যাই। রাতের খাওয়া দাওয়া শেষে বাড়ির সবাই ঘুমিয়ে পড়ি। হঠাৎ গভির রাত সাড়ে তিনটায় বাজারের পাহারাদার আমাকে ডাক দিয়ে আমার গ্যারেজে আগুন লেগেছে বলে জানায়। এসময় আমরা বাড়ির সবাই ঘর থেকে এক কাপড়ে বের হয়ে গ্যারেজের আগুন দ্রæত পাশ^বর্তী হোটেলেও আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এসময় উপায় অন্তর না দেখে আমরা নিজেরই আগুন নিভাতে শুরু করি। তবে আগুনের লেলিহান শিখা হোটেল থেকে আমার বাড়িতেও ছড়িয়ে পড়ে। পরে পুঠিয়া ফায়ারসার্ভিসকে খরব দেওয়া হয়। খবর পেয়ে ফায়ারসার্ভিস কর্মিরা আশার আগেই আগুন আমার বাড়িতে ধরে যায়। ফায়ারসার্ভিস কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রনে আনার আগেই সবকিছু পুড়ে ছাই হয়ে যায়। আগুনে প্রায় ৯ থেকে ১০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে সুমন শেখ জানান। এবিষয়ে পুঠিয়া ফায়ারসার্ভিস সিভিল ডিফেন্স ওয়ার হাউস ইন্সপেক্টর আরিফুল ইসলাম জানান, ধারনা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে এ অগুন লাগতে পারে। এছাড়াও তদন্ত সাপেক্ষে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান নিরুপন করা হবে বলে এ কর্মকর্তা জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

পুঠিয়ায় গ্যারেজ, হোটেল ও বাড়ি আগুনে ভস্মীভূত

আপডেট সময় : ০২:২০:২৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ মার্চ ২০২৩

রাজশাহীর পুঠিয়া রাজবাড়ি সংলগ্ন মোটরসাইকেল গ্যারেজ, হোটেল ও বাড়ি আগুনে ভস্মীভূত হয়েছে। গতকাল দিবাগত রাত্রি সাড়ে তিনটায় এ আগুন লাগার ঘটনাটি ঘটে। এ সময় গ্যারেজ ও হোটেলের ভিতর কেউ না থাকায় হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। আগুনে ভস্মীভূত দুইটি প্রতিষ্ঠানের মালিক সুমন শেখ। এছাড়াও বাড়িটি তার বাবা মকসেদ আলী শেখের। বর্তমানে তারা নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। গ্যারেজের ভিতরে থাকা চারটি মোটরসাইকেল বিভিন্ন যন্ত্রাংশ মোবিলসহ হোটেলের আসবাপত্র ও বাড়ির ভিতরের সকল জিনিপত্র পুড়ে ছাই হয়েগেছে। ভুক্তেভোগি সুমন শেখ জানান, গ্যারেজের ও হোটেলে কাজ শেষ করে রত্রিতে হোটেল সংলগ্ন বাড়িতে আমরা সবাই যাই। রাতের খাওয়া দাওয়া শেষে বাড়ির সবাই ঘুমিয়ে পড়ি। হঠাৎ গভির রাত সাড়ে তিনটায় বাজারের পাহারাদার আমাকে ডাক দিয়ে আমার গ্যারেজে আগুন লেগেছে বলে জানায়। এসময় আমরা বাড়ির সবাই ঘর থেকে এক কাপড়ে বের হয়ে গ্যারেজের আগুন দ্রæত পাশ^বর্তী হোটেলেও আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এসময় উপায় অন্তর না দেখে আমরা নিজেরই আগুন নিভাতে শুরু করি। তবে আগুনের লেলিহান শিখা হোটেল থেকে আমার বাড়িতেও ছড়িয়ে পড়ে। পরে পুঠিয়া ফায়ারসার্ভিসকে খরব দেওয়া হয়। খবর পেয়ে ফায়ারসার্ভিস কর্মিরা আশার আগেই আগুন আমার বাড়িতে ধরে যায়। ফায়ারসার্ভিস কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রনে আনার আগেই সবকিছু পুড়ে ছাই হয়ে যায়। আগুনে প্রায় ৯ থেকে ১০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে সুমন শেখ জানান। এবিষয়ে পুঠিয়া ফায়ারসার্ভিস সিভিল ডিফেন্স ওয়ার হাউস ইন্সপেক্টর আরিফুল ইসলাম জানান, ধারনা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে এ অগুন লাগতে পারে। এছাড়াও তদন্ত সাপেক্ষে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান নিরুপন করা হবে বলে এ কর্মকর্তা জানান।