ঢাকা ০৮:৫১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নিজস্ব বর্ণমালায় প্রাক-প্রাথমিকের বই চান সাঁওতালরা

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০২:৫৯:৪০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ৭৯ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব বর্ণমালায় প্রাক-প্রাথমিকের পাঠ্যপুস্তক রচনার দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছেন সাঁওতালরা।শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ বঙ্গবন্ধু চত্বর সামনে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানানো হয়।

উত্তরবঙ্গ আদিবাসী ফোরাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখা, সাঁওতাল লেখক ফোরাম-বাংলাদেশ, সান্তাল সমন্বয় পরিষদ, দি সান্তালস টাইমস ডট কম, সান্তালি নিউজ ২৪.কম, কোল সমাজ উন্নয়ন সংগঠন ও মাহালী দিঘরী পরিষদ যৌথভাবে এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

মানববন্ধনে উত্তরবঙ্গ আদিবাসী ফোরামের চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপত্তি লুইস টুডু বলেন, ১৭২ বছর ধরে সাঁওতালরা নিজস্ব সাঁওতালি (রোমান) বর্ণমালা ব্যবহার করছে। কিন্তু সাঁওতালদের প্রচলিত বর্ণমালা বাদ দিয়ে সাঁওতাল শিশুদের জন্য কখনও বাংলা হরফ কখনও অলচিকি হরফে প্রাক-প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠ্যপুস্তক রচনার অপচেষ্টা হয়েছে। গারো, চাকমা, মারমা, ত্রিপুরা ও ওঁরাওদের জন্য নিজস্ব ভাষায় প্রাক-প্রাথমিক পাঠ্যপুস্তক প্রণীত হলেও সাঁওতালি ভাষায় পাঠ্যপুস্তক এখনও প্রকাশিত হয়নি।

তিনি বলেন, আমরা বাংলা ভাষা কিংবা বর্ণমালা বিদ্বেষী নই। তবে এ বর্ণমালায় সাঁওতালি ভাষার শব্দের উচ্চারণ বিকৃত হয়, যা আমাদের কাছে কষ্টকর। সাঁওতালি বর্ণমালা ছাড়া অন্য কোনো বর্ণমালা ব্যবহার করে প্রাক-প্রাথমিক পাঠ্যপুস্তক রচনার উদ্যোগ আমরা মানব না।

লুইস টুডু বলেন, কারও মাতৃভাষার ওপর কোনো কিছু জোর করে চাপিয়ে দেওয়া বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনের মূলনীতির পরিপন্থি। এটা ভাষাসৈনিক ও শহীদদের অপমানের শামিল। তাই কোনো ব্যক্তি বা সংগঠনের কথা না শুনে সাঁওতালি বর্ণমালায় পাঠ্যপুস্তক রচনার পদক্ষেপ গ্রহণের অনুরোধ জানাচ্ছি।

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন উত্তরবঙ্গ আদিবাসী ফোরাম, ঢাকার কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি হিংগু মুরমু, কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য ও প্রচার বিষয়ক সম্পাদক প্রদীপ হেমব্রম, জেলা সাধারণ সম্পাদক কর্নেলিয়াস মুরমু, সাঁওতাল লেখক ফোরাম-বাংলাদেশের পক্ষে সন্তোষ টুডু, শিক্ষক মদন মুরমু, শিক্ষার্থী ক্যাথিনা রিমি কিস্কু, অনামিকা হেমব্রমসহ অনেকে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

নিজস্ব বর্ণমালায় প্রাক-প্রাথমিকের বই চান সাঁওতালরা

আপডেট সময় : ০২:৫৯:৪০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

নিজস্ব বর্ণমালায় প্রাক-প্রাথমিকের পাঠ্যপুস্তক রচনার দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছেন সাঁওতালরা।শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ বঙ্গবন্ধু চত্বর সামনে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানানো হয়।

উত্তরবঙ্গ আদিবাসী ফোরাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখা, সাঁওতাল লেখক ফোরাম-বাংলাদেশ, সান্তাল সমন্বয় পরিষদ, দি সান্তালস টাইমস ডট কম, সান্তালি নিউজ ২৪.কম, কোল সমাজ উন্নয়ন সংগঠন ও মাহালী দিঘরী পরিষদ যৌথভাবে এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

মানববন্ধনে উত্তরবঙ্গ আদিবাসী ফোরামের চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপত্তি লুইস টুডু বলেন, ১৭২ বছর ধরে সাঁওতালরা নিজস্ব সাঁওতালি (রোমান) বর্ণমালা ব্যবহার করছে। কিন্তু সাঁওতালদের প্রচলিত বর্ণমালা বাদ দিয়ে সাঁওতাল শিশুদের জন্য কখনও বাংলা হরফ কখনও অলচিকি হরফে প্রাক-প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠ্যপুস্তক রচনার অপচেষ্টা হয়েছে। গারো, চাকমা, মারমা, ত্রিপুরা ও ওঁরাওদের জন্য নিজস্ব ভাষায় প্রাক-প্রাথমিক পাঠ্যপুস্তক প্রণীত হলেও সাঁওতালি ভাষায় পাঠ্যপুস্তক এখনও প্রকাশিত হয়নি।

তিনি বলেন, আমরা বাংলা ভাষা কিংবা বর্ণমালা বিদ্বেষী নই। তবে এ বর্ণমালায় সাঁওতালি ভাষার শব্দের উচ্চারণ বিকৃত হয়, যা আমাদের কাছে কষ্টকর। সাঁওতালি বর্ণমালা ছাড়া অন্য কোনো বর্ণমালা ব্যবহার করে প্রাক-প্রাথমিক পাঠ্যপুস্তক রচনার উদ্যোগ আমরা মানব না।

লুইস টুডু বলেন, কারও মাতৃভাষার ওপর কোনো কিছু জোর করে চাপিয়ে দেওয়া বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনের মূলনীতির পরিপন্থি। এটা ভাষাসৈনিক ও শহীদদের অপমানের শামিল। তাই কোনো ব্যক্তি বা সংগঠনের কথা না শুনে সাঁওতালি বর্ণমালায় পাঠ্যপুস্তক রচনার পদক্ষেপ গ্রহণের অনুরোধ জানাচ্ছি।

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন উত্তরবঙ্গ আদিবাসী ফোরাম, ঢাকার কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি হিংগু মুরমু, কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য ও প্রচার বিষয়ক সম্পাদক প্রদীপ হেমব্রম, জেলা সাধারণ সম্পাদক কর্নেলিয়াস মুরমু, সাঁওতাল লেখক ফোরাম-বাংলাদেশের পক্ষে সন্তোষ টুডু, শিক্ষক মদন মুরমু, শিক্ষার্থী ক্যাথিনা রিমি কিস্কু, অনামিকা হেমব্রমসহ অনেকে।