ঢাকা ০৭:৪৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাটোরে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে প্রতারণা, গ্রেফতার ১

নাটোর প্রতিবেদকঃ
  • আপডেট সময় : ০৯:২০:৩৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ৭৭ বার পড়া হয়েছে

নাটোরের বড়াইগ্রামে উচ্চ বেতনের মিত্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে প্রতারক চক্রের মূলহোতা মো. দেলোয়ার হোসেনকে (৪৮) গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৫)।

বুধবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া বাইপাস মোড়ে ওয়ান-সেভেন হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন নাটোর র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন।

গ্রেফতার মো. দেলোয়ার হোসেন (৪৮) বড়াইগ্রাম উপজেলার দিগ্যান এলাকার মো. তায়জাল প্রামানিকের ছেলে।

ভুক্তভোগী মো. মন্টু প্রামানিকের (৪২) অভিযোগে সূত্রে জানা গেছে, উচ্চ বেতনের চাকরি দেওয়ার মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে আসামি ৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। পরে জাল কাগজপত্র দিয়ে দুবাইয়ে তাকে দুবাই পাঠান। সেখানে অবস্থানরত ভুক্তভোগীকে কোনো কাজ না দিয়ে পাকিস্তানি দালালের কাছে বিক্রি করে দেয়। পরে পাকিস্তানি দালাল ভুক্তভোগীকে দিয়ে জোরপূর্বক বিনা পারিশ্রমিকে ৯দিন কাজ করান। পরে ভুক্তভোগী বুঝতে পেরে বিদেশে অবস্থানরত লোকজনের সহায়তায় দেশে ফিরে আসেন।

র‌্যাব-৫ জানান, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে কোম্পানি অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ফরহাদ হোসেন ও কোম্পানি উপ-অধিনায়ক সহকারী পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া বাইপাস মোড়ে ওয়ান-সেভেন হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টের সামনে থেকে প্রতারক চক্রের মূলহোতা মো. দেলোয়ার হোসেনকে (৪৮) গ্রেফতার করা হয়। পরে আসামি সাক্ষীদের উপস্থিতিতে প্রতারণার বিষয়টি স্বীকার করেন।

র‌্যাব-৫ আরও জানান, এ ঘটনায় বড়াইগ্রাম থানায় গ্রেফতার আসামির বিরুদ্ধে পেনাল কোড আইনে মামলা দায়ের করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

নাটোরে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে প্রতারণা, গ্রেফতার ১

আপডেট সময় : ০৯:২০:৩৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

নাটোরের বড়াইগ্রামে উচ্চ বেতনের মিত্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে প্রতারক চক্রের মূলহোতা মো. দেলোয়ার হোসেনকে (৪৮) গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৫)।

বুধবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া বাইপাস মোড়ে ওয়ান-সেভেন হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন নাটোর র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন।

গ্রেফতার মো. দেলোয়ার হোসেন (৪৮) বড়াইগ্রাম উপজেলার দিগ্যান এলাকার মো. তায়জাল প্রামানিকের ছেলে।

ভুক্তভোগী মো. মন্টু প্রামানিকের (৪২) অভিযোগে সূত্রে জানা গেছে, উচ্চ বেতনের চাকরি দেওয়ার মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে আসামি ৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। পরে জাল কাগজপত্র দিয়ে দুবাইয়ে তাকে দুবাই পাঠান। সেখানে অবস্থানরত ভুক্তভোগীকে কোনো কাজ না দিয়ে পাকিস্তানি দালালের কাছে বিক্রি করে দেয়। পরে পাকিস্তানি দালাল ভুক্তভোগীকে দিয়ে জোরপূর্বক বিনা পারিশ্রমিকে ৯দিন কাজ করান। পরে ভুক্তভোগী বুঝতে পেরে বিদেশে অবস্থানরত লোকজনের সহায়তায় দেশে ফিরে আসেন।

র‌্যাব-৫ জানান, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে কোম্পানি অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ফরহাদ হোসেন ও কোম্পানি উপ-অধিনায়ক সহকারী পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া বাইপাস মোড়ে ওয়ান-সেভেন হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টের সামনে থেকে প্রতারক চক্রের মূলহোতা মো. দেলোয়ার হোসেনকে (৪৮) গ্রেফতার করা হয়। পরে আসামি সাক্ষীদের উপস্থিতিতে প্রতারণার বিষয়টি স্বীকার করেন।

র‌্যাব-৫ আরও জানান, এ ঘটনায় বড়াইগ্রাম থানায় গ্রেফতার আসামির বিরুদ্ধে পেনাল কোড আইনে মামলা দায়ের করা হয়।