ঢাকা ০৪:০৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেশে ব্যাংক আমানতের ৬১ শতাংশই ঢাকার!

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ১১:১০:৩৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪ ১২ বার পড়া হয়েছে

ব্যাংকে আমানতে সারাদেশের মধ্যে ঢাকার ধারেকাছেও নেই দেশের কোনো অংশ। দেশে ব্যাংকের মোট আমানতের ৬১ শতাংশ রয়েছে ঢাকাবাসীর দখলে। আর বাকি ৩৯ শতাংশ রয়েছে বাকি বিভাগ ও জেলাগুলোতে। তবে এই ৩৯ শতাংশের অর্ধেকেরই বেশি রয়েছে চট্টগ্রামের দখলে। এই দুই বিভাগ বাদ দিলে সারাদেশে আমানত রয়েছে ১৯ শতাংশেরও কম। শুধু আমানতই নয়। ঋণেরও সিংহভাগ দখলে রয়েছে ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এক প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে। তথ্য অনুযায়ী, ২০২৪ সালের মার্চ শেষে ব্যাংক খাতের সারাদেশের মোট ১৫ কোটি ৭১ লাখ ২০ হাজার ২২৭ জন আমানতকারীর জমাকৃত টাকার পরিমাণ ১৭ লাখ ৬২ হাজার ৩০৩ কোটি টাকা। এর মধ্যে শুধু ঢাকা বিভাগেই আমানতের পরিমাণ ১০ লাখ ৭৮ হাজার ৫৬০ কোটি টাকা। যা মোট আমানতের ৬১ দশমিক ২ শতাংশ। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগের শহরকেন্দ্রীক রয়েছে ৯ লাখ ৮৬ হাজার ২৩৬ কোটি, প্রান্তিকে রয়েছে ৯২ হাজার ২২৩ কোটি টাকা। তবে শুধু ঢাকা জেলায় আমানতের পরিমাণ ৯ লাখ ১৪ হাজার ৩৯৯ কোটি টাকা।

২০২৩ সালের মার্চ শেষে ঢাকা বিভাগের আমানত ছিল ৯ লাখ ৯৪ হাজার ১২৬ কোটি টাকা। সে হিসেবে আমানত বেড়েছে ১ লাখ ৬৪ হাজার ১৬১ কোটি টাকা।

অন্যদিকে চলতি বছরে মার্চ পর্যন্ত ১৫ লাখ ৬১ হাজার ২২৭ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করেছে ব্যাংকগুলো। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগে ঋণ বিতরণ হয়েছে ১০ লাখ ৬১ হাজার ৪৫৫ কোটি টাকা, যা মোট ঋণের ৬৮ শতাংশ। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগের শহরাঞ্চলে বিতরণ হয়েছে ১০ লাখ ২৩ হাজার ৬৮৫ কোটি আর প্রান্তিকে বিতরণ হয়েছে ৩৭ হাজার ৭৭৯ কোটি টাকা।

গত বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে ঢাকা বিভাগে ঋণ বিতরণের পরিমাণ ছিল ৯ লাখ ৫৮ হাজার ১১৯ কোটি টাকা বা ৬৮ শতাংশ। তবে শুধু ঢাকা জেলাতেই বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ ৯ লাখ ৮৩ হাজার ৬৩৯ কোটি টাকা।

ঢাকার পরেই আমনত ও ঋণ বিতরণে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে দেশের বণিজ্যিক প্রাণকেন্দ্র চট্টগ্রাম। চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে চট্টগ্রাম বিভাগে আমানতের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৭২ হাজার ৭৬৪ কোটি টাকা, যা মোট আমানতের ২১ দশমিক ১৫ শতাংশ।

এর মধ্যে বিভাগের শহরকেন্দ্রীক রয়েছে ২ লাখ ৮৫ হাজার ১৯২ কোটি, প্রান্তিকে রয়েছে ৮৭ হাজার ৫৭২ কোটি টাকা। তবে শুধু চট্টগ্রাম জেলাতেই আমানতের পরিমাণ ২ লাখ ৪০ হাজার ৬৩৭ কোটি টাকা।

অন্যদিকে এই বিভাগে ২ লাখ ৭৭ হাজার ৬৫ কোটি টাকা। যা বিতরণকৃত মোট ঋণের ১৭ দশমিক ৭৫ শতাংশ। গত বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে এই বিভাগে ঋণ বিতরণের পরিমাণ ছিল ২ লাখ ৪৭ হাজার ৪৯ কোটি টাকা বা ঋণের ১৭ দশমিক ৫৮ শতাংশ। তবে শুধু চলতি বছরের মার্চ প্রান্তিকে শুধু চট্টগ্রাম জেলাতেই বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ ২ লাখ ৩৬ হাজার ৭৪ কোটি টাকা।

আমানত ও ঋণ বিতরণে পরের অবস্থানে রয়েছে খুলনা বিভাগ। যেখানে আমানতের পরিমাণ ৭৪ হাজার ১১০ কোটি, ঋণ বিতরণের পরিমাণ ৬০ হাজার ৭১৪ কোটি টাকা। চতুর্থ অবস্থানে থাকা রাজশাহী বিভাগে আমানতের পরিমাণ ৭০ হাজার ৪৩৪ কোটি, ঋণ বিতরণের পরিমাণ ৬৩ হাজার ৩৯৩ কোটি টাকা।

এছাড়া সিলেট বিভাগে আমানতের পরিমাণ ৬৯ হাজার ৯৯৬ কোটি, ঋণ বিতরণের পরিমাণ ১৯ হাজার ৬৮৭ কোটি টাকা, বরিশাল বিভাগে আমানতের পরিমাণ ৩৩ হাজার ৫৯২ কোটি, ঋণ বিতরণের পরিমাণ ১৮ হাজার ৮৯৬ কোটি টাকা, ময়মনসিংহ বিভাগে আমানতের পরিমাণ ২৮ হাজার ৫২৫ কোটি, ঋণ বিতরণের পরিমাণ ২১ হাজার ৮১ কোটি টাকা, রংপুর বিভাগে আমানতের পরিমাণ ৩৪ হাজার ৩১৮ কোটি, ঋণ বিতরণের পরিমাণ ৩৮ হাজার ৯৩৩ কোটি টাকা।

সারাদেশে মোট ঋণ বিতরণ করা হয়েছে ১৭ লাখ ৬২ হাজার ৩০৩ কোটি টাকা। এর মধ্যে শহরাঞ্চলে আমানতের পরিমাণ ১৪ লাখ ৯১ হাজার ১৯৫ কোটি, প্রান্তিক পর্যায়ে আমানতের পরিমাণ ২ লাখ ৭১ হাজার ১০৭ কোটি টাকা। এছাড়াও ১৫ লাখ ৬১ হাজার ২২৭ কোটি ঋণের মধ্যে শহরাঞ্চলে বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ ১৪ লাখ ৩৬ হাজার ৫৮৭ কোটি ও প্রান্তিকে ঋণ বিতরণের পরিমাণ ১ লাখ ২৪ হাজার ৬৩৯ কোটি টাকা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

দেশে ব্যাংক আমানতের ৬১ শতাংশই ঢাকার!

আপডেট সময় : ১১:১০:৩৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪

ব্যাংকে আমানতে সারাদেশের মধ্যে ঢাকার ধারেকাছেও নেই দেশের কোনো অংশ। দেশে ব্যাংকের মোট আমানতের ৬১ শতাংশ রয়েছে ঢাকাবাসীর দখলে। আর বাকি ৩৯ শতাংশ রয়েছে বাকি বিভাগ ও জেলাগুলোতে। তবে এই ৩৯ শতাংশের অর্ধেকেরই বেশি রয়েছে চট্টগ্রামের দখলে। এই দুই বিভাগ বাদ দিলে সারাদেশে আমানত রয়েছে ১৯ শতাংশেরও কম। শুধু আমানতই নয়। ঋণেরও সিংহভাগ দখলে রয়েছে ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এক প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে। তথ্য অনুযায়ী, ২০২৪ সালের মার্চ শেষে ব্যাংক খাতের সারাদেশের মোট ১৫ কোটি ৭১ লাখ ২০ হাজার ২২৭ জন আমানতকারীর জমাকৃত টাকার পরিমাণ ১৭ লাখ ৬২ হাজার ৩০৩ কোটি টাকা। এর মধ্যে শুধু ঢাকা বিভাগেই আমানতের পরিমাণ ১০ লাখ ৭৮ হাজার ৫৬০ কোটি টাকা। যা মোট আমানতের ৬১ দশমিক ২ শতাংশ। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগের শহরকেন্দ্রীক রয়েছে ৯ লাখ ৮৬ হাজার ২৩৬ কোটি, প্রান্তিকে রয়েছে ৯২ হাজার ২২৩ কোটি টাকা। তবে শুধু ঢাকা জেলায় আমানতের পরিমাণ ৯ লাখ ১৪ হাজার ৩৯৯ কোটি টাকা।

২০২৩ সালের মার্চ শেষে ঢাকা বিভাগের আমানত ছিল ৯ লাখ ৯৪ হাজার ১২৬ কোটি টাকা। সে হিসেবে আমানত বেড়েছে ১ লাখ ৬৪ হাজার ১৬১ কোটি টাকা।

অন্যদিকে চলতি বছরে মার্চ পর্যন্ত ১৫ লাখ ৬১ হাজার ২২৭ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করেছে ব্যাংকগুলো। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগে ঋণ বিতরণ হয়েছে ১০ লাখ ৬১ হাজার ৪৫৫ কোটি টাকা, যা মোট ঋণের ৬৮ শতাংশ। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগের শহরাঞ্চলে বিতরণ হয়েছে ১০ লাখ ২৩ হাজার ৬৮৫ কোটি আর প্রান্তিকে বিতরণ হয়েছে ৩৭ হাজার ৭৭৯ কোটি টাকা।

গত বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে ঢাকা বিভাগে ঋণ বিতরণের পরিমাণ ছিল ৯ লাখ ৫৮ হাজার ১১৯ কোটি টাকা বা ৬৮ শতাংশ। তবে শুধু ঢাকা জেলাতেই বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ ৯ লাখ ৮৩ হাজার ৬৩৯ কোটি টাকা।

ঢাকার পরেই আমনত ও ঋণ বিতরণে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে দেশের বণিজ্যিক প্রাণকেন্দ্র চট্টগ্রাম। চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে চট্টগ্রাম বিভাগে আমানতের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৭২ হাজার ৭৬৪ কোটি টাকা, যা মোট আমানতের ২১ দশমিক ১৫ শতাংশ।

এর মধ্যে বিভাগের শহরকেন্দ্রীক রয়েছে ২ লাখ ৮৫ হাজার ১৯২ কোটি, প্রান্তিকে রয়েছে ৮৭ হাজার ৫৭২ কোটি টাকা। তবে শুধু চট্টগ্রাম জেলাতেই আমানতের পরিমাণ ২ লাখ ৪০ হাজার ৬৩৭ কোটি টাকা।

অন্যদিকে এই বিভাগে ২ লাখ ৭৭ হাজার ৬৫ কোটি টাকা। যা বিতরণকৃত মোট ঋণের ১৭ দশমিক ৭৫ শতাংশ। গত বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে এই বিভাগে ঋণ বিতরণের পরিমাণ ছিল ২ লাখ ৪৭ হাজার ৪৯ কোটি টাকা বা ঋণের ১৭ দশমিক ৫৮ শতাংশ। তবে শুধু চলতি বছরের মার্চ প্রান্তিকে শুধু চট্টগ্রাম জেলাতেই বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ ২ লাখ ৩৬ হাজার ৭৪ কোটি টাকা।

আমানত ও ঋণ বিতরণে পরের অবস্থানে রয়েছে খুলনা বিভাগ। যেখানে আমানতের পরিমাণ ৭৪ হাজার ১১০ কোটি, ঋণ বিতরণের পরিমাণ ৬০ হাজার ৭১৪ কোটি টাকা। চতুর্থ অবস্থানে থাকা রাজশাহী বিভাগে আমানতের পরিমাণ ৭০ হাজার ৪৩৪ কোটি, ঋণ বিতরণের পরিমাণ ৬৩ হাজার ৩৯৩ কোটি টাকা।

এছাড়া সিলেট বিভাগে আমানতের পরিমাণ ৬৯ হাজার ৯৯৬ কোটি, ঋণ বিতরণের পরিমাণ ১৯ হাজার ৬৮৭ কোটি টাকা, বরিশাল বিভাগে আমানতের পরিমাণ ৩৩ হাজার ৫৯২ কোটি, ঋণ বিতরণের পরিমাণ ১৮ হাজার ৮৯৬ কোটি টাকা, ময়মনসিংহ বিভাগে আমানতের পরিমাণ ২৮ হাজার ৫২৫ কোটি, ঋণ বিতরণের পরিমাণ ২১ হাজার ৮১ কোটি টাকা, রংপুর বিভাগে আমানতের পরিমাণ ৩৪ হাজার ৩১৮ কোটি, ঋণ বিতরণের পরিমাণ ৩৮ হাজার ৯৩৩ কোটি টাকা।

সারাদেশে মোট ঋণ বিতরণ করা হয়েছে ১৭ লাখ ৬২ হাজার ৩০৩ কোটি টাকা। এর মধ্যে শহরাঞ্চলে আমানতের পরিমাণ ১৪ লাখ ৯১ হাজার ১৯৫ কোটি, প্রান্তিক পর্যায়ে আমানতের পরিমাণ ২ লাখ ৭১ হাজার ১০৭ কোটি টাকা। এছাড়াও ১৫ লাখ ৬১ হাজার ২২৭ কোটি ঋণের মধ্যে শহরাঞ্চলে বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ ১৪ লাখ ৩৬ হাজার ৫৮৭ কোটি ও প্রান্তিকে ঋণ বিতরণের পরিমাণ ১ লাখ ২৪ হাজার ৬৩৯ কোটি টাকা।