ঢাকা ০৭:২২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দুবাইয়ে বিস্ফোরণে প্রাণ হারালেন ৫ বাংলাদেশি

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ১০:৪২:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪ ৭ বার পড়া হয়েছে

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইতে গাড়ি বিস্ফোরণের ঘটনায় ঢাকার দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলার পাঁচ প্রবাসী নিহত হয়েছেন। গতকাল রবিবার বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কাজে যাওয়ার পথে আবুধাবি রোডের সাহামা এলাকায় পৌঁছালে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- নবাবগঞ্জের বালেঙ্গা গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে মো. রানা (৩০), আব্দুল হাকিমের ছেলে মো. রাশেদ (৩২), শেখ ইরশাদের ছেলে মো. রাজু (২৪), শেখ ইব্রাহীমের ছেলে ইবাদুল ইসলাম (৩৪) এবং দোহার বাজার এলাকার মো. মঞ্জুর ছেলে মো. হিরা মিয়া (২২)। তারা সবাই সংযুক্ত আরব আমিরাতের আজমান প্রদেশে একই কোম্পানিতে কর্মরত ছিলেন।

নিহতদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকালে প্রতিদিনের মতো তারা পাঁচজন গাড়িতে করে কাজের উদ্দেশে যাচ্ছিলেন। পথে তাদের গাড়িটি দুর্ঘটনায় পড়লে বিস্ফোরিত হয়। এতে ওই পাঁচজনের মৃত্যু হয়। পরে তাদের অন্য প্রবাসী সহকর্মীরা কর্মক্ষেত্রের ইউনিফর্ম সংগ্রহ করে তাদের পরিচয় নিশ্চিত করে পরিবারকে জানায়।

জয়কৃষ্ণপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রেশমা আক্তার বলেন, ‘আমিও খবরটি শুনেছি। আসলে ঘটনাটি হৃদয়বিদারক।’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

দুবাইয়ে বিস্ফোরণে প্রাণ হারালেন ৫ বাংলাদেশি

আপডেট সময় : ১০:৪২:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইতে গাড়ি বিস্ফোরণের ঘটনায় ঢাকার দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলার পাঁচ প্রবাসী নিহত হয়েছেন। গতকাল রবিবার বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কাজে যাওয়ার পথে আবুধাবি রোডের সাহামা এলাকায় পৌঁছালে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- নবাবগঞ্জের বালেঙ্গা গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে মো. রানা (৩০), আব্দুল হাকিমের ছেলে মো. রাশেদ (৩২), শেখ ইরশাদের ছেলে মো. রাজু (২৪), শেখ ইব্রাহীমের ছেলে ইবাদুল ইসলাম (৩৪) এবং দোহার বাজার এলাকার মো. মঞ্জুর ছেলে মো. হিরা মিয়া (২২)। তারা সবাই সংযুক্ত আরব আমিরাতের আজমান প্রদেশে একই কোম্পানিতে কর্মরত ছিলেন।

নিহতদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকালে প্রতিদিনের মতো তারা পাঁচজন গাড়িতে করে কাজের উদ্দেশে যাচ্ছিলেন। পথে তাদের গাড়িটি দুর্ঘটনায় পড়লে বিস্ফোরিত হয়। এতে ওই পাঁচজনের মৃত্যু হয়। পরে তাদের অন্য প্রবাসী সহকর্মীরা কর্মক্ষেত্রের ইউনিফর্ম সংগ্রহ করে তাদের পরিচয় নিশ্চিত করে পরিবারকে জানায়।

জয়কৃষ্ণপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রেশমা আক্তার বলেন, ‘আমিও খবরটি শুনেছি। আসলে ঘটনাটি হৃদয়বিদারক।’