ঢাকা ০৬:১৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তারাকান্দাকে নান্দনিক ও মডেল উপজেলা হিসাবে গড়ে তোলা হবে—নজরুল

আরিফ রববানী , ময়মনসিংহ ||
  • আপডেট সময় : ০৮:২৯:৩৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৩ ১০৫ বার পড়া হয়েছে

আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উন্নয়ন বান্ধব জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করে নতুন কারিগরির মাধ্যমে তারাকান্দাকে একটি উন্নত উপজেলা হিসাবে দেখতে চান এলাকার বাসিন্দারা। উপজেলার বাসিন্দাদের দাবির সাথে একমত পোষন করে এ চ্যালেঞ্জ গ্রহন করে আবারও ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন পরিশ্রমী ও উদ্যমী, তরুন সমাজসেবক, মেধাবী সাবেক ছাত্রনেতা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম নয়ন । সেলক্ষে তিনি বিজয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে তিনি উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ব্যাপক গণসংযোগ করে যাচ্ছেন।

ফুলপুর-তারাকান্দা সংসদীয় এলাকার উন্নয়নের রুপকার গণপূর্ত ও গৃহায়ণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এমপির আস্থাভাজন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তরুন এ নেতা বলেন, জনকল্যাণমূলক কাজ করাই আমার মূল লক্ষ্য। প্রতিমন্ত্রীর নির্দেশনায় উপজেলাকে আধুনিক পরিছন্ন ও ডিজিটাল সিস্টেমের আওতায় এনে একটি মডেল এলাকা হিসাবে গড়ে তোলা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এই লক্ষ্য নিয়ে ইতিমধ্যেই কাজ শুরু হয়েছে বলেও জানান নজরুল ইসলাম নয়ন। তারাকান্দাকে প্রকৃত মডেল টাউন হিসেবে গড়ে তুলতে যা করণীয় তাই তিনি করবেন বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়ে যাচ্ছেন। তরুন এ প্রার্থীকে আসন্ন উপজেলা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে আবারও বিজয়ী করতে ইতিমধ্যে উপজেলার সর্বস্তরের জনসাধারণসহ যুবসমাজের মাঝে প্রাণচাঞ্জল্য সৃষ্টি হয়েছে। এ লক্ষ্যে নিত্যদিন বিভিন্ন এলাকায় গনসংযোগ ও মতবিনিময় সভায় উপজেলার আপামর জনসাধারন একাট্রা হয়ে নজরুল ইসলাম নয়ন কে জোরালো সমর্থন দিয়েছে।
প্রথমে কোন বিষয়টিকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিবেন জানতে চাইলে মেধাবী এই নেতা নজরুল ইসলাম নয়ন বলেন, এবার আমার একটাই কাজ হচ্ছে আল্লাহর রহমতে ভোটাররা যদি আমাকে দৃবিতীয় মেয়াদে ভাইস চেয়ারম্যান হওয়ার সুযোগ করে দেয় তাহলে পরিকল্পিতভাবে উপজেলাকে সাজিয়ে নান্দনিক একটি মডেল উপজেলা গড়ে তোলা। আর জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়েও এসব প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের অঙ্গীকার করে জোরগলায় তিনি বলেছেন- অবাস্তব, কল্পনাবিলাসী ও আকাশ-কুসুম কোনো বিষয় এটা নয়। সবাই সহযোগীতা করলে এটা বাস্তবায়ন করা অবশ্যই সম্ভব।
তিনি আরো বলেন, আমি আমার এই তারাকান্দাকে উন্নয়নের মূল স্রোতের সঙ্গে মেলাতে চাই। উপজেলার উন্নত ও অনুন্নত এলাকার মধ্যে বিদ্যমান যে বৈষম্য রয়েছে তা দূর করার উদ্যোগ নেওয়ার প্রতিশ্রতি দিয়ে তিনি বলেন, সমন্বিত উন্নয়নের উদ্যোগ নেবো।
তিনি বলেন, আমার আবেগ-ভালোবাসার প্রতি মানুষ সম্মান জানিয়ে ইতিমধ্যে যে সাড়া দিয়েছেন সে জন্য আমি কৃতজ্ঞ। দলমত-নির্বিশেষে সর্বস্তরের মানুষের কাছে দোয়া চাই। তিনি বলেন- আসলে কোন কিছুই একার দ্বারা করা সম্ভব নয়। এখানেও আমি একা নই। আমার সাথে আছে আমার উপজেলার বাসিন্দারা। তাদের সহযোগীতা, সহমর্মিতা এবং আমার প্রতি তাদের বিশ্বাসের কারনে আমি এতদুর আসতে পেরেছি। তেমনি আমিও তাদের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে আবারও প্রার্থী হয়েছি। আমার মেধায় ও শ্রমে যদি জনগনের সামান্য উপকারও হয় তাহলে আমি নিজেকে ধন্য মনে করবো ।
আধুনিক পরিকল্পিত উপজেলা গঠনের জন্য তারাকান্দাবাসীর সাহায্য, সহযোগিতা ও সমর্থন কামনা করে তিনি বলেন, এলাকার উন্নয়নের জন্যই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। আল্লাহ্পাকের অশেষ কৃপায় ও সকলের সহযোগিতায় এই উপজেলার সকলের সম্মান এবং ঐতিহ্য রক্ষায় নির্লোভ ভাবে কাজ করে যেতে চাই। হিন্দু-মুসলমানসহ বিভিন্ন ধর্মপ্রাণ মানুষের সহ অবস্থান ও বসবাস রয়েছে এ উপজেলায় । তাই সকলের সহযোগীতায় ঐতিহ্য রক্ষায় মিলে মিশে থাকার জন্য সুন্দর নান্দনিক পরিবেশ বজায় রাখতে পারবো ইনশাল্লাহ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

তারাকান্দাকে নান্দনিক ও মডেল উপজেলা হিসাবে গড়ে তোলা হবে—নজরুল

আপডেট সময় : ০৮:২৯:৩৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৩

আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উন্নয়ন বান্ধব জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করে নতুন কারিগরির মাধ্যমে তারাকান্দাকে একটি উন্নত উপজেলা হিসাবে দেখতে চান এলাকার বাসিন্দারা। উপজেলার বাসিন্দাদের দাবির সাথে একমত পোষন করে এ চ্যালেঞ্জ গ্রহন করে আবারও ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন পরিশ্রমী ও উদ্যমী, তরুন সমাজসেবক, মেধাবী সাবেক ছাত্রনেতা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম নয়ন । সেলক্ষে তিনি বিজয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে তিনি উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ব্যাপক গণসংযোগ করে যাচ্ছেন।

ফুলপুর-তারাকান্দা সংসদীয় এলাকার উন্নয়নের রুপকার গণপূর্ত ও গৃহায়ণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এমপির আস্থাভাজন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তরুন এ নেতা বলেন, জনকল্যাণমূলক কাজ করাই আমার মূল লক্ষ্য। প্রতিমন্ত্রীর নির্দেশনায় উপজেলাকে আধুনিক পরিছন্ন ও ডিজিটাল সিস্টেমের আওতায় এনে একটি মডেল এলাকা হিসাবে গড়ে তোলা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এই লক্ষ্য নিয়ে ইতিমধ্যেই কাজ শুরু হয়েছে বলেও জানান নজরুল ইসলাম নয়ন। তারাকান্দাকে প্রকৃত মডেল টাউন হিসেবে গড়ে তুলতে যা করণীয় তাই তিনি করবেন বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়ে যাচ্ছেন। তরুন এ প্রার্থীকে আসন্ন উপজেলা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে আবারও বিজয়ী করতে ইতিমধ্যে উপজেলার সর্বস্তরের জনসাধারণসহ যুবসমাজের মাঝে প্রাণচাঞ্জল্য সৃষ্টি হয়েছে। এ লক্ষ্যে নিত্যদিন বিভিন্ন এলাকায় গনসংযোগ ও মতবিনিময় সভায় উপজেলার আপামর জনসাধারন একাট্রা হয়ে নজরুল ইসলাম নয়ন কে জোরালো সমর্থন দিয়েছে।
প্রথমে কোন বিষয়টিকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিবেন জানতে চাইলে মেধাবী এই নেতা নজরুল ইসলাম নয়ন বলেন, এবার আমার একটাই কাজ হচ্ছে আল্লাহর রহমতে ভোটাররা যদি আমাকে দৃবিতীয় মেয়াদে ভাইস চেয়ারম্যান হওয়ার সুযোগ করে দেয় তাহলে পরিকল্পিতভাবে উপজেলাকে সাজিয়ে নান্দনিক একটি মডেল উপজেলা গড়ে তোলা। আর জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়েও এসব প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের অঙ্গীকার করে জোরগলায় তিনি বলেছেন- অবাস্তব, কল্পনাবিলাসী ও আকাশ-কুসুম কোনো বিষয় এটা নয়। সবাই সহযোগীতা করলে এটা বাস্তবায়ন করা অবশ্যই সম্ভব।
তিনি আরো বলেন, আমি আমার এই তারাকান্দাকে উন্নয়নের মূল স্রোতের সঙ্গে মেলাতে চাই। উপজেলার উন্নত ও অনুন্নত এলাকার মধ্যে বিদ্যমান যে বৈষম্য রয়েছে তা দূর করার উদ্যোগ নেওয়ার প্রতিশ্রতি দিয়ে তিনি বলেন, সমন্বিত উন্নয়নের উদ্যোগ নেবো।
তিনি বলেন, আমার আবেগ-ভালোবাসার প্রতি মানুষ সম্মান জানিয়ে ইতিমধ্যে যে সাড়া দিয়েছেন সে জন্য আমি কৃতজ্ঞ। দলমত-নির্বিশেষে সর্বস্তরের মানুষের কাছে দোয়া চাই। তিনি বলেন- আসলে কোন কিছুই একার দ্বারা করা সম্ভব নয়। এখানেও আমি একা নই। আমার সাথে আছে আমার উপজেলার বাসিন্দারা। তাদের সহযোগীতা, সহমর্মিতা এবং আমার প্রতি তাদের বিশ্বাসের কারনে আমি এতদুর আসতে পেরেছি। তেমনি আমিও তাদের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে আবারও প্রার্থী হয়েছি। আমার মেধায় ও শ্রমে যদি জনগনের সামান্য উপকারও হয় তাহলে আমি নিজেকে ধন্য মনে করবো ।
আধুনিক পরিকল্পিত উপজেলা গঠনের জন্য তারাকান্দাবাসীর সাহায্য, সহযোগিতা ও সমর্থন কামনা করে তিনি বলেন, এলাকার উন্নয়নের জন্যই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। আল্লাহ্পাকের অশেষ কৃপায় ও সকলের সহযোগিতায় এই উপজেলার সকলের সম্মান এবং ঐতিহ্য রক্ষায় নির্লোভ ভাবে কাজ করে যেতে চাই। হিন্দু-মুসলমানসহ বিভিন্ন ধর্মপ্রাণ মানুষের সহ অবস্থান ও বসবাস রয়েছে এ উপজেলায় । তাই সকলের সহযোগীতায় ঐতিহ্য রক্ষায় মিলে মিশে থাকার জন্য সুন্দর নান্দনিক পরিবেশ বজায় রাখতে পারবো ইনশাল্লাহ।